নগদ একাউন্টের সুবিধা 2021 যা জানা দরকার | নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার

নগদ একাউন্টের সুবিধা 2021 কি কি? বাংলাদেশ মোবাইল ব্যাংকিং সেবার অগ্রদূত হিসেবে আগমন ঘটে বিকাশের। বিকাশ রকেট শিওর ক্যাশ পরবর্তী নতুন মোবাইল ব্যাংকিং সেবা হিসেবে চালু হয় নগদ। বাংলাদেশ ডাক বিভাগ পরিচালিত নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সেবার বর্তমানে গ্রাহকের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে।  শুধু তাই নয় ক্যাশ আউট চার্জ খরচ ও নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার দেয়ার দিক দিয়ে অনেক মোবাইল ব্যাংকিং সেবা থেকে অনেকটা এগিয়ে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং। 

এতসব সুবিধা পাওয়ার পরও আপনি কেন নগদ ব্যবহার করবেন না একটা অনেকটা প্রশ্ন থেকে যায়।  তবে বিকাশ গ্রাহক সংখ্যা বর্তমানে প্রায় ৫ কোটি, সে তুলনায় এখনো নগদ বিকাশের কাছাকাছি পৌঁছতে পারেনি।   

আড়ও পড়ুনঃ কিভাবে বিকাশ প্রিয়ও নম্বর অ্যাড করবেন

তবে সার্বিক বিবেচনায় অল্প সময়ে গ্রাহকের মন জয় করতে পেরেছে এবং বিকাশ এর কাছাকাছি পৌঁছে যেতে খুব বেশি সময়ের প্রয়োজন হবেনা এর মূল কারণ হচ্ছে এর ক্যাশ আউট খরচ কম এবং অন্যান্য সুবিধা।

চলুন দেখে নেই নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সকল সুবিধা ও অসুবিধা এবং বিস্তারিত তথ্য।  

নগদ একাউন্টের সুবিধা 2021

"<yoastmark

নগদ সুবিধার কথা বিবেচনা করলে প্রথমেই চলে আসে ক্যাশ আউট চার্জ প্রসঙ্গ, তারপর রয়েছে সেন্ড মানি খরচ এবং নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার বিষয়ে। 

বর্তমানে যারা বাংলাদেশে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা ব্যবহার করছেন তাদের মধ্যে বেশিরভাগ গ্রাহকই ব্যবহার করছেন বিকাশ এবং রকেট।

বিকাশ এবং রকেট ব্যবহারের মূল কারণ হচ্ছে অনেকেই একাউন্ট খোলা কে ঝামেলা মনে করছেন।

নতুন করে অ্যাকাউন্ট করে তা ব্যবহার করবেন এমন লক্ষ অনেকেরই থাকে না।

বন্ধুরা শুনুন আপনাদের বলছি আপনি যদি মোবাইল ব্যাংকিং সেবা ব্যবহার করে আপনার টাকা সেভ করতে চান  এবং আপনার একাউন্টে জমা থাকা টাকা থেকে আপনি ইন্টারেস্ট চান তবে আপনাকে নগদে আসতেই হবে।

নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি সম্পর্কে

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার
নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার

আরেকটি কথা বলা জরুরি বর্তমানে নগদ একাউন্ট খোলার জন্য আপনাকে কোথাও যেতে হবে না আপনি নিজ মোবাইল থেকে *১৬৭# ডায়েল করে নিজেই খুব সহজে নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন। 

এ বিষয়ে আরো একটি কথা বলা জরুরী, যে আপনি নিজে থেকে নগদ একাউন্ট খোলার কোন ধরনের সমস্যা হলে নগদ উদ্যোক্তা যেতে পারেন। 

কোন ধরনের কাগজপত্র ছাড়াই নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্টে হাজির হয় আপনি নগদ একাউন্ট খোলার কথা বললে তারা আপনাকে সাথে সাথে একটি নগদ একাউন্ট খুলে দেবে।

আপনার কোন ধরনের কাগজপত্র প্রয়োজন পড়বে না। শুধুমাত্র পিন সেট করুন এবং নগদ ব্যবহার করা শুরু করুন।

নগদ একাউন্টের ক্যাশ আউট চার্জ 

নগদ ক্যাশ আউট চার্জ ভ্যাট ছাড়া ⇒ ভ্যাট ভ্যাট সহ 
নগদ অ্যাপ থেকে ১০০০ ৯.৯৯ টাকা ১.৪৯ টাকা ১১.৪৯ টাকা
*১৬৭# ডায়াল করে প্রতি হাজারে ১২.৯৯ টাকা ১.৯৫ টাকা ১৪.৯৪ টাকা

নগদ ক্যাশ আউট চার্জ নিয়ে সাধারণ নগদ গ্রাহকদের মধ্যে অনেক দ্বিধা দ্বন্দ্ব রয়েছে। আজকের পর এই বিষয়ে কোনও দ্বিধা-দ্বন্দ্ব থাকবে না।   

কেননা এই পোস্টে আপনি নগদ ক্যাশ আউট চার্জ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চলেছেন। 

অফিশিয়ালি নগদ সর্বনিম্ন ক্যাশ আউট চার্জ হাজারে ৯ টাকা বলে প্রচার করা হয়।

তবে মূলত নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্টে গেলে তার ব্যতিক্রম কথা শোনা যায়। 

কেন এরকম বা কিভাবে আপনি নগদে ৯ টাকা হাজারে ক্যাশ আউট করতে পারবেন এসকল বিষয় এখন আপনি পরিষ্কারভাবে জানতে পারবে। 

নগদ একাউন্টের সর্বনিম্ন ক্যাশ আউট

হ্যাঁ বন্ধুরা নগদ একাউন্টের সুবিধা 2021 এ রয়েছে নগদ সর্বনিম্ন ক্যাশ আউট চার্জ 9 টাকা 99 পয়সা।

তবে এই ক্ষেত্রে আপনাকে নগদ অ্যাপ ব্যবহার করে ক্যাশ আউট করতে হবে। 

তবেই আপনি ৯ টাকা 99 পয়সা হাজারে ক্যাশ আউট করতে পারবেন নগদ একাউন্ট থেকে।  

নগদ ইউএসএসডি কোড *২৪৭# ডায়াল করে নগদে ক্যাশ আউট চার্জ বর্তমানে 14 টাকা 50 পয়সা প্রতি হাজারে। 

 এখন আপনি যদি নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্টে প্রশ্ন করেন হাজারে কত টাকা খরচ। তারা আপনাকে সঠিকভাবে উত্তর দিতে পারবে না,  কেননা নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্ট আপনার কাছ থেকে কোনো ধরনের চার্জ কর্তন করে না। 

উদ্যোক্তা পয়েন্ট থেকে সাধারণত আপনি যে পরিমাণ টাকা তাদেরকে দিবেন তারা ঐ পরিমান টাকা আপনার প্রদান করা নম্বরে ক্যাশ ইন করে দিবে।

এখানে তারা আপনার কাছ থেকে কোন চার্জ করবে না। 

এখানে খরচের বিষয়টা নির্ভর করছে নগদ একাউন্ট থেকে কিভাবে টাকা উত্তোলন করছেন তার উপর। টাকাটা আপনি যে নাম্বারে পাঠাচ্ছেন ওই গ্রাহক কিভাবে টাকাটা উত্তোলন করছেন তার উপর। 

ওই গ্রাহক যদি নগদ অ্যাপস ব্যবহার করেন তবে তার খরচ হবে 9 টাকা 99 পয়সা। সাথে রয়েছে ভেট ১.৪৯ পয়সা। তাহলে মোট খরচ ১১.৪৯ টাকা। 

অন্যদিকে ওই গ্রাহকের যদি নগদ অ্যাপস না থাকে উনি যদি ম্যানুয়ালি টাকা ক্যাশ আউট করেন তবে তার খরচ হবে ১৪ টাকা ৯৪ পয়সা, বা ১৫ টাকা প্রায়। 

ধরুন ওই গ্রাহক নগদ অ্যাপস ব্যবহার করেন না।

তবে আপনাকে ওই  নগদ গ্রাহকের হিসাবে 15 টাকা হাজার খরচ হিসাবে ক্যাশ ইন করে দেন। ব্যস আপনার সমস্যার সমাধান হয়ে গেল।

এ নিয়ে খুব বেশি বুদ্ধি খাটানোর প্রয়োজন নেই বলে আমি মনে করি। আশা করি আপনি ব্যাপারটা বুঝতে পেরেছেন। নগদ একাউন্টের সুবিধা 2021 এ সেরা সুবিধা এটাই। 

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং লাখপতি

একসময় নগদ এর একটি ক্যাম্পেইন চলছিল নগদ লাখপতি অফার।  গ্রামীণফোন গ্রাহকদের জন্য এই অফারটি ছিল তবে বর্তমানে তা বন্ধ রয়েছে।

নগদ Add money করার সুবিধা

বিকাশ ২০১৯ সালে প্রথম অ্যাড মানি সুবিধা নিয়ে আসে। অনেকের ব্যাংকে টাকা কিন্তু ওই ব্যাংক বের করতে এটিএম অথবা ব্যাংক ব্রাঞ্চে যেতে হয়।

অনেকে অনেক সময় ঘর থেকে বাইরে যেতে চান না অথচ টাকা প্রয়োজন আছে তাদের জন্য অ্যাড মানি সুবিধা ভালো। 

যে সকল গ্রাহকের বিকাশ একটি ব্যক্তিগত নাম্বার রয়েছে তারা এখন খুব সহজেই নিজের ব্যাংক হিসাব থেকে টাকা নিয়ে আসতে পারেন বিকাশে। 

এই সুবিধাটি এখন আপনি আপনার নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট থেকেও পাচ্ছেন। 

বলে রাখা ভাল Add money  সুবিধা চালু করলেও এখনো খুব অল্পসংখ্যক ব্যাংক থেকেই নগদে টাকা আনা যায়।  তবে সামনের দিকে আরো বেশি ব্যাংক যুক্ত হবে বলে মনে করা হচ্ছে।  

প্রায় প্রতিটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবার মত নগদ একাউন্টে ব্যাংক থেকে Add money ফ্রি।

নগদ একাউন্টের মোবাইল রিচার্জ সুবিধা

নগদ মোবাইল রিচার্জ অফার

মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহার করছেন অথচ মোবাইল ব্যাংকিং থেকে মোবাইল রিচার্জ করছেন না এমন গ্রাহকের সংখ্যা এখন অনেক কম। 

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় এখন রিচার্জে ক্যাশব্যাক অফার পাচ্ছেন। নগদ মোবাইল রিচার্জ ক্যাশব্যাক অফার নিয়ে আলোচনা করা হবে।

তবে আপনি অন্য মোবাইল ব্যাংকিং সেবার মত এখানেও আপনি নিজের নাম্বারে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন সহজেই।

নগদ একাউন্টের একাউন্টের মুনাফা

বাংলাদেশের মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় প্রথম কোন মোবাইল ব্যাংকিং সেবা যে সেবায় আপনি আপনার মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে টাকা রাখলে মুনাফা বা লাভ পাচ্ছেন। 

এক্ষেত্রে মুনাফা পেতে হলে অবশ্যই আপনাকে একাউন্ট করার শুরুতেই অপশনটি সিলেক্ট করতে হবে।

নগদ মুনাফা হওয়ার পদ্ধতি হচ্ছে আপনার একাউন্টে টাকা জমা রাখতে হবে।

নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকার উপরেই মাসিক হারে, বাৎসরিক একটি নির্দিষ্ট হার্যাঁ মুনাফা পাবেন নগদ গ্রাহক। 

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার

নিজের ব্যক্তিগত নগদ মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্টে টাকা রেখে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণ মুনাফা পেতে পারেন।

এই ক্ষেত্রে সকল কন্ট্রোল আপনার নিজের হাতে আপনি যখন ইচ্ছা টাকা উত্তোলন করতে নিতে পারেন। 

প্রতি মাসে মুনাফার পরিমাণ আপনাকে এসএমএস এর মাধ্যমে জানানো হবে এবং আপনার একাউন্টে জমা করে দেয়া হবে। 

মুনাফার স্ল্যাব বার্ষিক মুনাফা হার
৫০০০.০০১ টাকা থেকে ঊর্ধ্বে ৬.০%
১০০০.০০১ টাকা থেকে ৫০০০ টাকা ৪.০%
০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা ০.০%

নগদ অ্যাপ

মোবাইল অ্যাপস! যা বর্তমান বিশ্বের অনেক কাজকে সহজ করে দিয়েছে।

তেমনি নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সেবার একটি অ্যাপস রয়েছে।

বিকাশ অ্যাপসের মত নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সেবা অ্যাপ আপনারা বিদ্যুৎ বিল থেকে শুরু, অন লাইন কেনাকাটা,ক্যাশ আউট, ও অন্যান্য সকল কাজকে সহজ করে দিয়েছে।  

নগদ একাউন্টের বিল পেমেন্ট করার সুবিধা

বিভিন্ন অনলাইন কেনাকাটায় এখন পে বিল সুবিধার ব্যাপক প্রসার হয়েছে।

অনলাইন পেমেন্ট গেটওয় উন্নত হওয়ার পর এখন অনেক বেশি অনলাইন কেনাকাটার বিল মোবাইল ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে প্রদান করা হয়ে থাকে। 

বর্তমান অনলাইন কেনাকাটার বিল আপনার নগদ একাউন্ট থেকে প্রদান করতে পারবেন। 

লক্ষণীয় বিষয় হচ্ছে অনেক অনলাইন কেনাকাটায় মোবাইল ব্যাংকিং সেবা সমুহ থেকে পেমেন্ট করলে বিশেষ ছাড় দেয়া হচ্ছে। যা আপনার অনলাইন কেনাকাটাকে আরো বেশি উৎসাহিত করবে। 

নগদ মোবাইল রিচার্জ অফার সুবিধা 

একটা সময় ছিল যখন নিজের মোবাইলে রিচার্জ করার জন্য আমাদের রিচার্জ পয়েন্ট গুলোতে যাওয়া জরুরী ছিল।

এখন সময় পাল্টেছে এবং মোবাইল ব্যাংকিং সেবা গুলো তাদের সেবার মধ্যে মোবাইল রিচার্জ পদ্দতি যুক্ত করেছে। 

এই ক্ষেত্রে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং তার ব্যতিক্রম নয়। শুধু তাই নয় নগদ থেকে মোবাইল রিচার্জ এর মাধ্যমে বিভিন্ন সময় গ্রাহকরা ক্যাশব্যাক পাচ্ছেন।

কিছুদিন আগেও নগদ একাউন্ট থেকে মোবাইল রিচার্জ 100 টাকা পর্যন্ত ক্যাশব্যাক দিয়ে আসছিল রবির 598 টাকা বান্ডেল অফারে।    

এছাড়াও বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ক্যাশব্যাক অফার চলে আসে নগদ একাউন্টে। 20 টাকা রিচার্জে করলে টাকা নগদ ক্যাশব্যাক অফার আরো কিছুদিন আগেও ছিল।

আপনি নিয়মিত ব্যবহার করলে অবশ্য এসব অফার সম্পর্কে জানতে পারবেন এবং নিজের মোবাইল খরচ কিছুটা হলেও ক্যাশব্যাক দিয়ে বাঁচাতে পারবেন। 

নগদ একাউন্টের আয়কর দেওয়ার সুবিধা

অনেকে আয়কর জমা দেয়া নিয়ে অনেকে বিড়ম্বনার শিকার হন। তবে এখন আপনি আপনার নগদ একাউন্ট থেকে আয়কর জমা দিতে পারবেন খুব সহজেই।  

নগদ অ্যাপস থেকে সহজেই এখন আপনার আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবেন নগদ একাউন্ট ব্যবহার করে।

নগদ একাউন্টের হেল্পলাইন সুবিধা

বর্তমানে বাংলাদেশের প্রতিটি সেবা খাতে হেলপ্লাইন ব্যবস্থা রয়েছে। 24/7 নগদ হেলপ্লাইন ব্যবস্থা নগদ গ্রাহককে আরো বেশি উৎসাহিত করছে নগদ ব্যবহারে। 

যেকোনো সময় আপনার মোবাইল থেকে নগদ হেলপ্লাইনে কথা বলতে 16167 ডায়াল করুন এবং আপনার যেকোনো সমস্যার সমাধান নিয়ে নিন। 

নগদ একাউন্টের সুবিধা ও কিছু অসুবিধা ২০২১

প্রতিটি সেবার কিছু সুবিধার পাশাপাশি কিছু অসুবিধাও থাকে। তবে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সেবার খুব বেশি অসুবিধা এখনো চোখে পড়েনি।

নগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট সংখ্যা

তবে একটি মূল অসুবিধা হচ্ছে পর্যাপ্ত পরিমাণ উদ্যোক্তা থাকা। তবে আশা করা যায় খুব বেশি দিন দূরে নয় যে দেশের শহর গ্রাম অলিগলি সব জায়গায় আপনি নগদ উদ্যোক্তা খুঁজে পাবেন। 

এখন অনেক এলাকাতেই পাওয়া যায় না নগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট। 

নগদ একাউন্টের পিন কোড সমস্যা

এটাকে সমস্যা বলা যাবেনা তথাপিও আমি আমার পোস্টে উল্লেখ করলাম। নগদে পিন সংখ্যা মাত্র চারটি।

আমার ব্যক্তিগত ভাবে মনে হয় যে পিন সংখ্যা সর্বনিম্ন পাঁচটি হওয়া উচিত।

তাই আপনার গোপন পিন কোড টি কারো সাথে শেয়ার করবেন না। 

যদি কেউ আপনাকে কল করে বলে যে আমি নগদ হেলপ্লাইন থেকে বলতেছি বা কাস্টমারকে থেকে বলতেছি তাহলেও আপনার গোপন পিন কোড শেয়ার করা উচিত নয়।

কথাটি অবশ্যই অবশ্যই মনে রাখবেন।

আড়ও পড়ুনঃ

Freelancing meaning in Bengali 

উপায় মোবাইল ব্যাংকিং 

How to buy skitto Mb without app?

উপসংহার

নগদ একাউন্টের সুবিধা 2021 আপনার জানা দরকার ছিল। আশা করি আপনি নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার, নগদ একাউন্টের সুবিধা সম্পর্কে সঠিক তথ্য পেয়েছেন। এই সম্পর্কে আরও জানার থাকলে কমেন্ট করুন।

জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

4 thoughts on “নগদ একাউন্টের সুবিধা 2021 যা জানা দরকার | নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার”

  1. অত্যাধুনিক মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। তাছাড়া এটি মুনাফাভিত্তিক হওয়ায় আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে। আমি এর উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি।

    Reply
  2. আমি যদি ৫০০০ হাজার টাকা রাখি তাহলে প্রতি মাসে কত টাকা মুনাফা দিবে?

    Reply

Leave a Comment

9 + 15 =