হিসাব বিজ্ঞান কাকে বলে? হিসাববিজ্ঞানকে ব্যবসায়ের ভাষা বলা হয় কেন

হিসাব বিজ্ঞান কি বা হিসাব বিজ্ঞান কাকে বলে? আপনি জানেন কি? হিসাব বিজ্ঞান বইয়ের ভাষা হলেও প্রতিটি বেক্তির জীবনে হিসাবের গুরুত্ব রয়েছে। বাস্তব জীবনে যেকোনো সফল মানুষের সফলতার পেছনে প্রতিটি জিনিসের হিসাব রয়েছে।

বাস্তবিক অর্থে বাস্তব জীবনের এই হিসাব কে হিসাব বিজ্ঞান বলা হয়ে থাকে। তবে এছাড়াও বইয়ের ভাষায় হিসাব বিজ্ঞান সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানাব এই পোস্টে।

হিসাব বিজ্ঞান কাকে বলে?

যে পদ্ধতিতে কোন প্রতিষ্ঠানের লাভ-ক্ষতি অথবা আর্থিক অবস্থা নির্ণয় করা হয় তাকে হিসাববিজ্ঞান বলে।

কোন প্রতিষ্ঠানের আয়-ব্যয়, দায়, সম্পদ, মালিকানা স্বত্ব ইত্যাদি অন্যান্য লেনদেনগুলোকে বিজ্ঞানের নিয়ম অনুযায়ী উপযুক্ত শিরোনামের অধীনে সংক্ষিপ্ত ও সীমাবদ্ধ বিবরণী আকারে লিপিবদ্ধ করাকে হিসাব বলে।

হিসাববিজ্ঞান হল ব্যবসা এর ফলাফল নির্ণয়ের একটি প্রক্রিয়া। কোন প্রতিষ্ঠান বা কোন ব্যক্তি আর্থিক কার্যাবলি (আয়-ব্যয়, ক্রয়-বিক্রয়, মালিকানা স্বত্ব, পরিশোধ, পাওনা ইত্যাদি) হিসাবের বইতে সুষ্ঠুভাবে লিপিবদ্ধ করা এবং একটি নির্দিষ্ট সময় শেষে আর্থিক কার্যক্রমের ফলাফল জানা যায়।

হিসাব বিজ্ঞানের সংজ্ঞাঃ

হিসাবশাস্ত্রবিদ ‘ডব্লিউ জনসন’ এর মতে হিসাব বিজ্ঞানের সংজ্ঞা,

the collection, compilation and systematic recording of business transactions in terms of money, the preparation of financial reports, the analysis and interpretation of these reports for the information and guidance of management.”

অর্থাৎ, অর্থের পরিপ্রেক্ষিতে ব্যবসায়িক লেনদেনের সংগ্রহ, সংকলন এবং পদ্ধতিগত রেকর্ডিং, আর্থিক প্রতিবেদন তৈরি করা, ব্যবস্থাপনার তথ্য ও নির্দেশনার জন্য এই প্রতিবেদনগুলির বিশ্লেষণ এবং ব্যাখ্যা।”

সুতরাং, আমরা বলতে পারি যে, যে বই বা  নিয়ম পাঠ করে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান তার  আর্থিক কার্যাবলি হিসাবের বইতে সঠিকভাবে লিপিবদ্ধ করতে পারেন এবং একটি নির্দিষ্ট সময় পরে সঠিক ফলাফল নির্ণয় করতে পারেন তাকে হিসাববিজ্ঞান বলে।

ব্যাংকিং এর ভাষায় হিসাব বিজ্ঞানঃ

ব্যাংকিং সেক্টরে হিসাব বিজ্ঞানের গুরুত্ব অপরিসীম। হিসাব বিজ্ঞান হলো কোনো ব্যবসায়ের সাথে সম্পর্কিত তথ্য হিসাবভুক্ত করা।এ প্রক্রিয়ার মধ্যে অনেক কিছু রয়েছে যেমনঃ লেনদেন এর সারসংক্ষেপ, বিশ্লেষণ এবং রির্পোটিং করা।

হিসাব বিজ্ঞানের উদ্দেশ্য:

হিসাব বিজ্ঞানের মূল উদ্দেশ্য হলো ব্যবসায়ের আর্থিক সঠিক ফলাফল নিরূপণ করা।

ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের আয়-ব্যয়, দায়, সম্পদ, মালিকানা স্বত্ব নিরূপণ করে আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে সঠিক ধারণা দেয়া।

আরও পড়ুনঃ

যৌথ মূলধনী কোম্পানির অর্থায়নের কার্যাবলী কি

যৌথ ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম | কিভাবে খুলবেন যৌথ একাউন্ট

এছাড়াও হিসাববিজ্ঞানের আরো উল্লেখযোগ্য কিছু উদ্দেশ্য রয়েছে

  • ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের আর্থিক লেনদেনগুলোকে আওতাভুক্ত  করার মাধ্যমে স্থায়ীভাবে সংরক্ষণ করা।
  • ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান যে সংশ্লিষ্ট পক্ষসমূহ রয়েছে সেখানে প্রয়োজন অনুযায়ী তথ্য সরবরাহ করা।
  • প্রতিষ্ঠানের আয়ের সাথে সঠিক সমঞ্জস্য রেখে ব্যয় নিয়ন্ত্রণ করা।
  • প্রতিষ্ঠানের আয় ও ব্যয়ের তুলনামূলকভাবে বিশ্লেষণ করা।
  • প্রতিষ্ঠানের যথাযথ আইন পালনের জন্য হিসাব রাখা।
  • প্রতিষ্ঠানের আর্থিক অবস্থা নিরূপণ করা।
  • প্রতিষ্ঠানের তহবিল চুরি ও জালিয়াতির রোধ করা।
  • সঠিকভাবে ব্যক্তির বা প্রতিষ্ঠানের কর ওভ্যাট  নির্ণয় করা।

আধুনিক হিসাব বিজ্ঞান এর জনক কে

বর্তমান সময়ের আধুনিক হিসাববিজ্ঞানের জনক হলেন লুকা প্যাসিওলি (১৪৪৫-১৫১৭)। তার জন্ম হয়েছিল  ইতালির সানসিপলক্রোতে।

তিনি ১৮৮৫ সালে জন্ম গ্রহন করেন। এবং তিনি একই শহরে ১৫১৭ সালের ১৫ই জুন মৃত্যু বরণ করেন।

১৪৯৪ সালে তিনি একটি বই প্রকাশ করেন যার নাম ‘সুম্মা এরিথমেটিকা জিওমেট্রিকা প্রপোরশনিয়েট প্রপোরশনালিটা’।এই বইয়ের মাধ্যমেই হিসাব বিজ্ঞান সম্পর্কে তিনি সর্ব প্রথম আলোচনা করেছিলেন।

এই বইটিতেই তিনি “দুই তরফা দাখিলা পদ্ধতি” অর্থাৎ হিসাব বিজ্ঞান এর মূল ভিওি হিসেবে পরিচিত তা নিয়ে আলোচনা করে।

হিসাববিজ্ঞানকে ব্যবসায়ের ভাষা বলা হয় কেন?

হিসাব বিজ্ঞান কাকে বলে হিসাববিজ্ঞানকে ব্যবসায়ের ভাষা বলা হয় কেন
হিসাববিজ্ঞানকে ব্যবসায়ের ভাষা বলা হয় কেন

হিসাববিজ্ঞান ব্যবস্থায় সংশ্লিষ্ট পক্ষসমূহ প্রয়োজনীয় আর্থিক তথ্যের মাধ্যমে ব্যবসায় সম্পর্কে বিভিন্ন ধারনা লাভ করে থাকে। এছাড়াও যে কোন ব্যবসার আর্থিক যোগাযোগ স্থাপন করতে পারে হিসাব এবং হিসাববিজ্ঞানে প্রস্তুত করা বিবরণী ও প্রতিবেদনের মাধ্যমেই প্রতিষ্ঠানের আর্থিক অবস্থা জানা ও বোঝা যায় বলেই হিসাববিজ্ঞানকে ব্যবসায়ের ভাষা বলা হয়

আরও পড়ুনঃ

সত্যায়িত মানে কি? | কিভাবে সত্যায়িত করতে হয়

ইতিহাস পাঠ করা প্রয়োজন কেন? । বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা

থাইরয়েড কি খেলে ভালো হয় । থাইরয়েড রোগের লক্ষণ কি?

হিসাব বিজ্ঞান কাকে বলে FAQS

হিসাব বিজ্ঞান কাকে বলে?

বইয়ের ভাষায় হিসাব বিজ্ঞান হচ্ছে কোন প্রতিষ্ঠানের লাভ ক্ষতি বা আর্থিক অবস্থার ফলাফল যে পদ্ধতিতে বের করা হয় তাকে হিসাব বিজ্ঞান বলে।

হিসাব বিজ্ঞানের জনক কে?

হিসাব বিজ্ঞানের জনক হচ্ছেন লুকা প্যাসিওলি (১৪৪৫-১৫১৭)। যুগ যুগ ধরে অনেক মহান বেক্তি হিসাব বিজ্ঞান নিয়ে গবেষণা করছেন। যদিও লুকা প্যাসিওলি হিসাব বিজ্ঞানের জনক।

হিসাববিজ্ঞানকে ব্যবসায়ের ভাষা বলা হয় কেন?

হিসাব হচ্ছে একটি ব্যবসার প্রধান সূত্র। যে কোন ব্যবসা সম্পর্কে সঠিক ধারণা পেতে ব্যবসায়ী পক্ষকে হিসাববিজ্ঞানকে কাজে লাগাতে হয়। তাই হিসাববিজ্ঞানকে ব্যবসায়ের ভাষা বলা হয়।

উপসংহার

তাহলে আমরা সকলে বুজতে পেরেছি হিসাব বিজ্ঞান কি বা হিসাব বিজ্ঞান কাকে বলে। আমাদের জীবনে প্রতিটি সময় হিসাবের গুরুত্ব রয়েছে।

জীবনে সঠিক হিসাব নিকাশ না করতে পারলে কোন বেক্তি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারে না।

সুতরাং হিসাব বা হিসাব বিজ্ঞান সম্পর্কে আমাদের সকলের ধারণা প্রয়োজন।

তারপরও যদি হিসাব বিজ্ঞান সম্পর্কে আপনার কোনো মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করবেন। 

ঘরে বসে টাকা আয় ও ইন্টারনেট বিষয়ে নিত্য নতুন তথ্য পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট।

চোখ রাখুন আমাদের ফেসবুক পেজে। 

Leave a Comment

10 − nine =