বিজয় দিবসের কবিতা আবৃতি কিভাবে করবেন?

প্রিয় পাঠকগণ বিজয় দিবসের কবিতা আবৃতি সম্পর্কে আপনারা অনেকেই জানার জন্য গুগলের মাধ্যমে সার্চ করেছেন। আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের জন্য মহান বিজয় দিবস সম্পর্কে কিছু বিখ্যাত কবিতা সংগ্রহ করেছি। আজকে আমি আপনাদের সামনে এসে সকল কবিতা গুলো তুলে ধরব।

মূলত এই কবিতাগুলো আপনারা মহান বিজয় দিবসের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যে ব্যবহার করতে পারবেন। দীর্ঘ নয় মাস যুদ্ধের পর আমাদের বাংলাদেশের যখন স্বাধীনতা পেয়েছিল সেই সময় অনেক কবি বাংলাদেশকে নিয়ে বা বিজয় দিবসকে নিয়ে অনেক ধরনের কবিতা লিখেছেন।

সেই সময়ে বাংলাদেশে ভাসছিল আনন্দের জোয়ার এবং সকল এতটাই খুশি ছিল যে ঘরে ঘরে ঈদের খুশির মতো দিন উদযাপন করেছে সবাই। এখনো বাংলাদেশেই ১৬ ডিসেম্বর আসলে মহান বিজয় দিবসের জমজমাট আয়োজন প্রতিটি ঘরে ঘরেই হয়ে থাকে। আজকে আমরা আপনাদেরকে এই দিনের অনুষ্ঠানে আপনারা কোন কবিতাগুলো আবৃত্তি করতে পারেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবো।

বিজয় দিবসের কবিতা

বিজয় দিবসের কবিতা
বিজয় দিবসের কবিতা

নিচে আপনাদের কে কিছু বিজয় দিবসের কবিতা প্রদান করা হলো-

বিজয় দিবস

( মাশায়েখ হাসান )

৭১’এর এই দেশেতে

হানাদার হানা দেয়।

দেশকে স্বাধীন করতে বাঙ্গালী

অস্ত্র তুলে নেয়।

৭১’এর এই দিনেতে

হয় সীমাহীন যুদ্ধ।

যার কাহিনী শুনলে মোদের

শ্বাস হয়ে যায় রুদ্ধ।

৩০ লক্ষ শহীদ আর

মা-বোনের বিনিময়।

স্বাধীন বাংলাদেশ এর ঘটে

উদার অভ্যূদয়।

বঙ্গ বিজয়

মোঃ জাহিদুল ইসলাম 

কতকাল পরে বাঙালীর ঘরে এলো বঙ্গ বিজয়ের মাস, হানাদার বাহিনী অঙ্গ সংগঠন করিল বাংলার কত সর্বনাশ,

কত মা – বোনের সম্ভ্রম লুটিয়ে করেছে কত গুম, বয়েছে নহর কত মানুষের বুকের তাজা খুন,

বাংলা ভাষা আগলে রাখতে দিলো পরিচয় রণে, সালাম, বরকত, রফিক, জব্বার শহীদ হলেন কত জনে,

বাঙালী জাতি গর্জে উঠিল শেখ মুজিবুর যার নেতা, নতশির নয়, যুদ্ধ করিব ছিনিয়ে নিবো স্বাধীনতা,

বাঙালী জাতির উন্নত শির সমর অস্ত্র ধরিল হাতে, হানাদার বাহিনীর দোসর যারা কেউ যেন প্রাণে না বাঁচে, 

বিতারিত হলো হায়েনার দল করিল আত্মসমর্পন, কত কিছুর বেশে অবশেষে উড়লো বিজয় কেতন।

বিজয়ের দিন

( তাসনিয়া আহমেদ )

বাংলাদেশে পাক-শাসনের আসন যেদিন টলে,

সেদিনটাকে আজকে সবাই ‘বিজয় দিবস’ বলে।

বিজয় কিন্তু অনেক দামী; সহজলভ্য নয়।

মুক্তিসেনা বিজয় আনে জয় করে সব ভয়।

লাল সবুজের পতাকাটার আজকে খুঁটি শক্ত;

আনতে সেটা,বীর সেনারা দিয়েছিলো রক্ত।

বাংলা মায়ের বীর ছেলেরা ভয় পায়না মোটে।

তাদের ত্যাগে মোদের মুখে বিজয় স্লোগান ফোটে।

বিজয় দিবস রক্তে ধোয়া,বীর শহীদের স্মৃতি।

জয় নিয়েই আজকে লেখা-কবিতা আর গীতি।

বিজয় মাখা ফুলে-পাতায়,বিজয় সবুজ ঘাসে।

বছর ঘুরে এদিন যেন বারে বারে আসে!

আরও পড়ুনঃ

বুদ্ধিজীবীদের কবিতা কোনগুলো?

পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো কাজ কি?

কিডনির পয়েন্ট কত হলে ভালো

বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে কবিতা আবৃত্তি 

বিজয় দিবসের কবিতা তৈরির নিয়ম 
কবিতা তৈরির নিয়ম 

বিজয় ডিসেম্বর

( সিফাত আহমেদ )

লাল সবুজের স্মৃতি ঘেড়া নিশান আমার উড়ে।

কিনেছিলাম রক্ত দিয়ে বিজয় ডিসেম্বরে।

মাগো তোমার চোখের জলে,

জয় বাংলা ধ্বনি তুলে,

হাজার ছেলে প্রাণ দিল ঐ নতুন আশার ভোরে।

রক্ত দিয়ে কেনা এই বিজয় ডিসেম্বরে।

মাগো তুমি হায়েনা ভয়ে কাঁদছ দেখে তাই।

তোমার ছেলে ঘর ছেড়েছে তোমায় দিতে ঠাঁই

বিশ্বমাঝে উচ্চাসনে,

পাক বাহিনীর নির্যাতনে,

আর হবেনা শোষন এবার তোমার আপন ঘরে।

রক্ত দিয়ে কেনা এই বিজয় ডিসেম্বরে।

১৬ ই ডিসেম্বর

( তানজিম এ আল আমিন )

বছর ঘুরে আবার এলো ষোলই ডিসেম্বর

বিজয় গানে উঠলো মেতে মানুষ আপামর।

একাত্তর এর সেই সে বিজয়

করলো স্বাধীন সকল হৃদয়

শোষন ত্রাসন করলো বিদায়

করলো নতুন সূর্য উদয়

সেই সূচনায় আমরা সবাই স্বাধীন নিরন্তর,

বছর ঘুরে আবার এলো ষোলই ডিসেম্বর।

বিজয় দিবসের কবিতা তৈরির নিয়ম 

আমাদের মধ্যে অনেকেই কবিতা লিখতে খুবই ভালোবাসি।

যাদের এরকম কবিতা লিখতে ভালোবাসে তারা সবসময়ই সারাক্ষণ কবে তা তৈরি করবার চেষ্টা করতে থাকে।

আপনার যদি কবিতা খুবই ভালো লাগে এবং আপনি যদি কবিতা লিখতে খুব পছন্দ করেন তাহলে আপনিও বিজয় দিবসের কবিতা তৈরি করতে পারেন।

আপনাকে মনে রাখতে হবে আপনার বিজয় দিবস সম্পর্কে কিছু এমন বর্ণনা তুলে ধরতে হবে যা আপনার কবিতার মধ্যে শোভা পায়।

অর্থাৎ মানুষ যাতে বুঝতে পারে আপনি বিজয় দিবস সম্পর্কে কোন কবিতা লিখেছেন।

বাঙালিরা এত সহজে এই বিজয় পায়নি। দীর্ঘ নয় মাস যুদ্ধ করতে হয়েছে এই একটি বিজয়ের জন্য।

এই ৯ মাসের মাঝে বাঙালি হারিয়েছে ৩০ লক্ষ মানুষের পাশাপাশি হারিয়েছে বুদ্ধিমান মানুষদের।

তাই আপনি আপনার কবিতার মাঝে এই সকল বিষয়গুলো ছন্দের তালে তালে তুলে ধরতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ

পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো প্রধানমন্ত্রী কে?

স্বর্গীয় বধু মসজিদ কে নির্মাণ করেন?

Internet এর পূর্ণরূপ কি?

বিজয় দিবসের কবিতা আবৃতি FAQS

বিজয় দিবসের কবিতা আবৃতি কিভাবে করতে হয়?

আমরা সকলে জানি মহান বিজয় দিবস হচ্ছে আমাদের দেশের একটি অন্যতম উৎসব। এই দিনে আপনি অবশ্যই শহীদ দের সরন করে কবিতা আবৃত্তি করার চেষ্টা করবেন।

বাংলাদেশের বিজয় দিবস কবে?

১৬ই ডিসেম্বর হচ্ছে বাংলাদেশের বিজয় দিবস।

উপসংহার 

সুপ্রিয় পাঠকগণ আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করেছি বিজয় দিবসের কবিতা আবৃতি সম্পর্কে।

আপনাদেরকে কয়েকটা কবিতা ও আমরা প্রদান করেছি যে সকল কবিতাগুলো আপনারা আবৃত্তি করতে পারেন।

আমরা যদি আজকের এই আর্টিকেলটি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন।

আর যদি আপনাদের এই আর্টিকেল সংক্রান্ত কোন মতামত বা প্রশ্ন থাকে তাহলে সেটি ও আমাদেরকে কমেন্টের মাধ্যমে করতে পারেন।

অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইট থেকে অনলাইন থেকে টাকা আয় বিষয়ক আর্টিকেল গুলো পড়ুন।

কারন অনেকেই অনলাইনের মাধ্যমে টাকা আয় সংক্রান্ত বিষয়গুলো নিয়ে সারাক্ষণ চিন্তা করতে থাকেন কিন্তু কোথায় কাজ করবেন সে সংক্রান্ত কোন বিষয়ে জানেন না।

আমাদের এইখানে সম্পূর্ণ গাইড লাইন প্রদান করা হয়েছে অনলাইন কাজ বিষয়ক।

এছাড়াও আমাদের ওয়েবসাইটের সকল আর্টিকেলগুলো আপনারা আমাদের ফেসবুক পেইজে পেয়ে যাবেন।

তাই অবশ্যই আমাদের ফেসবুক পেইজে ফলো করে রাখুন। 

Leave a Comment

five × four =