বেতন মওকুফের জন্য আবেদন পত্র লেখার নিয়ম?

সুপ্রিয় পাঠকবৃন্দ বেতন মওকুফের জন্য আবেদন পত্র কিভাবে লিখতে হয় সেটি আপনারা অনেকেই হয়তো ভুলে গিয়েছেন কিংবা সঠিকভাবে লিখতে পারছেন না। আজকের এই আর্টিকেলে শিক্ষার্থী ভাই ও বোনেদের জন্যে কিভাবে বেতন মওকুফের জন্য দরখাস্ত লিখতে হয় তা নমুনা করে দেখানো হবে।

বেতন মওকুফ করার জন্য প্রিয় শিক্ষার্থী ভাই ও বোনেরা তার বিদ্যালয় পরীক্ষা কিংবা ক্লাসে শিক্ষকের নির্দেশে আবেদন পত্র লিখন।

ঠিক যখন পরীক্ষাতে কিংবা নিজের প্রয়োজনে বেতন মওকুফের জন্য দরখাস্ত লিখতে হয় সে সময় দেখা যায় যে অধিকাংশ শিক্ষার্থী ভাই ও বোনেরা এতে ভুল করে থাকেন।

আমাদের মধ্যে অনেকেরই আর্থিক অবস্থা বর্তমান বাজারে খুবই শোচনীয়। যার কারণে এটি আমাদের স্বাভাবিক জীবনে নানান ধরনের প্রভাব ফেলছে। 

তেমনি মধ্যবিত্ত অথবা নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানদের জন্য পড়ালেখা করার ক্ষমতাও হারিয়ে যাচ্ছে। 

এ সময় দাঁড়িয়ে বিদ্যালয় থেকে কিভাবে বেতন মওকুফ করানো যায় এই চিন্তাটি সবার আগে একজন শিক্ষার্থীর মাথায় আসছে। চলুন বেশি কথা না বাড়িয়ে আমরা আজকের এই আর্টিকেল থেকে বেতন মওকুফ করা আবেদনের নমুনা দেখি নিই।

স্কুলের বেতন মওকুফের জন্য আবেদন পত্র

স্কুলের বেতন মওকুফের জন্য আবেদন পত্র
স্কুলের বেতন মওকুফের জন্য আবেদন পত্র

নিচে স্কুলের বেতন মওকুফের জন্য দরখাস্তের নমুনা পালন করা হলো-

বরাবর,

প্রধান শিক্ষক/অধ্যক্ষ

হাজী মোঃ এখলাছ উদ্দিন ভূইয়া উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজ

রূপগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ

বিষয়: বেতন মওকুফের জন্য আবেদন।

জনাব,

সবিনয় বিনীত নিবেদন এই যে, আমি আপনার বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর একজন নিয়মিত ছাত্র। আমি আপনার বিদ্যালয়ের গত তিন বছর যাবত পড়াশোনা করছি। এ সময়ের মধ্যে বিদ্যালয় আমার কোন ধরনের পাওনা পরিশোধ বিহীন নেই।

আমি বিদ্যালয়ের সকল বেতন এবং পাওনা ধারাবাহিকভাবে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পরিশোধ করে আসছি। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের সাথে জানানো হচ্ছে যে বর্তমান দুনিয়ার বাজারে আমার পরিবারের একমাত্র আয়কারী আমার বাবার পক্ষে আমার সকল ভাই বোনের পড়ালেখার খরচ চালানোর সামর্থ্য নেই। বর্তমানে তিনি আর্থিকভাবে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ অবস্থায় রয়েছেন। আমাদের এত বড় পরিবার সহ আমার পড়াশোনার খরচ  বর্তমান সময়ে চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না তার পক্ষে।

অতএব, পরিশেষে জনাবের নিকট আকুল আবেদন এই যে, এই খারাপ সময়ে উপরোক্ত বিবরণের বিষয়টিকে বিবেচনা করে আমাকে বিদ্যালয়ের পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দিলে আপনার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকিব।

বিনীত নিবেদক,

আপনার বিদ্যালয়ের একান্ত বাধ্যগত ছাত্র

মঞ্জুরুল ইসলাম সজীব 

শ্রেণি: নবম

রোলনং: ১২

আরও পড়ুনঃ

জাতিসংঘের প্রথম মহাসচিব কে?

বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার কোনটি?

পৃথিবীর প্রথম ধর্ম কোনটি?

বেতন মওকুফের জন্য আবেদন FAQS

আবেদন পত্র লেখার নিয়ম কি?

একটি আবেদন পত্রের মধ্যে আপনি যে বিষয় নিয়ে আবেদন করছেন সে বিষয়ের সুন্দর উপস্থাপন জরুরি। লাইন গুলো সোজা রাখার চেষ্টা করবেন। এবং সঠিক নিয়ম গুলো অনুসরণ করে লিখবেন।

উপসংহার

প্রিয় পাঠকগণ আজকের এই আর্টিকেলে বেতন মওকুফের জন্য আবেদন পত্র কিভাবে লিখতে হয় সেটি আপনাদেরকে নমুনা করে দেখানো হয়েছে।

আমরা আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভাল লেগেছে এবং আপনারা আজকের এই আর্টিকেল থেকে কিভাবে বেতন মওকুফের জন্য দরখাস্ত লিখবেন সেটি বুঝতে পেরেছেন।

তবুও আপনাদের যদি এ বিষয়ে আরো কোনো প্রশ্ন অথবা মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন।

অনলাইন থেকে ঘরে বসে টাকা আয় করবেন কিভাবে এসম্পর্কে যদি আপনাদের জানার ইচ্ছা থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

আমাদের ওয়েবসাইটে টাকায় সংক্রান্ত অনেকগুলো আর্টিকেল রয়েছে যেগুলো আপনারা পড়লে অনলাইন থেকে কিভাবে আয় করতে হয় সে উপায় জানতে পারবেন।

সব ধরনের আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ফেসবুক পেইজে। 

Leave a Comment

sixteen − 1 =