আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার ইতিহাস | Argentina 11 Goal Record

সুপ্রিয় পাঠকবৃন্দ আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার ইতিহাস সম্পর্কে জানার জন্য আপনারা অনেকে গুগল সার্চ করে থাকেন। অনেকের মধ্যেই এ বিষয়টি নিয়ে নানান ধরনের প্রশ্ন এবং দ্বিধা দ্বন্দ্ব রয়েছে। অনেক আর্জেন্টিনার সমর্থক বলছেন এটি একটি ভুয়া ইতিহাস।

কিন্তু বিপরীত দলের সমর্থক রা এ বিষয়টি নিয়ে নানান ধরনের কথাবাত্রা বলছেন। আমাদের মধ্যে অনেকেই এমন আছেন যারা ইন্টারনেটে অনুসন্ধান করছেন যে ১১ গোল কবে কিংবা কিভাবে আর্জেন্টিনা খেয়েছিল।

আজকের এই আর্টিকেলে আপনাদেরকে এই সংক্রান্ত সকল তথ্য গুলো বিস্তারিত জানানো হবে। আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনারা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়বেন।

আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার রেকর্ড

আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার রেকর্ড
আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার রেকর্ড

মূলত আর্জেন্টিনা নারী ফুটবল দল বিশ্বকাপে শক্তিশালী জার্মানির বিপক্ষে ১১ টি গোল খেয়েছিল।

নারী ফুটবল দলের জন্য এটি খুবই লজ্জার একটি রেকর্ড।

তবে এর পাশাপাশি পুরুষ জাতীয় দলের ও মোটামুটি লজ্জার রেকর্ড রয়েছে।

তবে তাদের এ ধরনের লজ্জার রেকর্ড নেই।

কিন্তু ইতিহাসে আর্জেন্টিনা জাতীয় ফুটবল দলের এমন এমন রেকর্ড রয়েছে যেগুলো সম্পর্কে আপনারা জানলে অনেকটাই অবাক হবেন।

তবে এর আগে নারী ফুটবল দল কিভাবে এবং কোথায় ১১ টি গোল খেয়েছিল সে সম্পর্কে ইতিহাস জেনে নেয়া যাক। 

আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার ইতিহাস 

মূলত আর্জেন্টিনার সর্বপ্রথম আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করে উরুগুয়ের বিপক্ষে ১৯০২ সালে।

এরপর থেকে আর্জেন্টিনা দলটি অনেক এগিয়ে গিয়েছিল। আবার অনেক সময় মাঝেমধ্যেই মাঝপথে তারা হোঁচট খেয়েছিল।

আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার ইতিহাস আসলে আর্জেন্টিনা নারী ফুটবল দলের জন্য প্রযোজ্য। ২০০৭ সালে নারী বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে জার্মানির কাছে ১১-০ গোলের ব্যবধানে হেরেছিল আর্জেন্টিনা জাতীয় নারী ফুটবল দল। 

এটি আর্জেন্টিনার ইতিহাসে সবথেকে খারাপ দিন এবং পরাজয় ছিল।

এই লজ্জার ম্যাচটি শেষ হওয়ার পর আর্জেন্টাইন কোচ কার্লো বরেলা বলেছিলেন, “আমি আমার কৌশল নিয়ে খুব বেশি মন্তব্য করতে চাই না।”

এটি আমাদের জন্য একটি দুঃস্বপ্নের মতো রাত ছিল। গোলক ভ্যানিলা কোরেয়া নিজেদের জালে নিজেই দুটি গোল দিয়ে দেন। যেটা আসলে একটা দু:স্বপ্নের মতো রাত ছিল।

তবে ম্যাচের আগে আর্জেন্টাইন কোচ বোরেলার মুখে ছিল ভিন্ন সুর।

তিনি বলেছিলেন চার বছর আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যা ঘটেছিল তার প্রতিশোধ নিতে চান তিনি।

এই ম্যাচের ঠিক ৪ বছর আগে জার্মানির ফুটবল দলের কাছে ৬-১ গোলে হেরেছিল আর্জেন্টাইন নারী ফুটবল দল।

কিন্তু প্রতিশোধ নেয়ার কথা বলে উল্টো নিজেরাই ১১ গোল খেয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করে লজ্জার।

অনেকের মাঝেই ভুল ধারণা ছিল যে এটি হয়তো বা আর্জেন্টাইন পুরুষদের লজ্জার রেকর্ড।

কিন্তু বিষয়টি তেমন নয় এটি মূলত নারী জাতীয় ফুটবল দলের জন্যই প্রযোজ্য।

আর্জেন্টিনার যত লজ্জার রেকর্ড

আর্জেন্টিনা নারী জাতীয় ফুটবল দলের মত আর্জেন্টিনা পুরুষদের আরও বেশকিছু লজ্জাকর গোল খাওয়ার রেকর্ড ইতিহাস রয়েছে।

এতক্ষণ আমরা আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার ইতিহাস সম্পর্কে জেনেছি।

এবারে আর্জেন্টিনা জাতীয় পুরুষদের লজ্জা করছে গোল খাওয়ার রেকর্ড সম্পর্কে বিস্তারিত জানব। 

আরও পড়ুনঃ

২০২৬ ফুটবল বিশ্বকাপ কোথায় হবে?

আর্জেন্টিনার যত লজ্জার রেকর্ড

আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় পরাজয়গুলো কি?

আর্জেন্টিনা বনাম কলম্বিয়া, ১৯৯৩

যদিও সম্প্রতিক সময়ে আর্জেন্টিনা খুবই শক্তিশালী দল কিন্তু অতীতে কলম্বিয়া আর্জেন্টিনা তুলনা করাটা অনেক টাই হাস্যকর ছিল।

১৯৯৩ সালে কলম্বিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনা ৫-০ গোলে পরাজিত হয়েছিল।

যা আর্জেন্টিনা জাতীয় ফুটবল দলের জন্য খুবই লজ্জা জনক একটি রেকর্ড ছিল।

পরিসংখ্যান বলছে, কলম্বিয়ার সাথে আর্জেন্টিনার সর্বমোট মুখোমুখি হয়েছে ২৮ বার।

কিন্তু এর মধ্যে আর্জেন্টিনা জয়লাভ করেছে মাত্র ১৩ বার।

আর্জেন্টিনা বনাম উরুগুয়ে, ১৯৫৯

উরুগুয়ের সাথে আর্জেন্টিনা জাতীয় ফুটবল দল ১৯৫৯ সালে ৫-০ গোলের ব্যবধানে বিশাল পরাজয় গ্রহণ করেছিল।

এটি ছিল কোপা আমেরিকার ফাইনাল ম্যাচ। এই ম্যাচকেও ইতিহাসের পাতায় আর্জেন্টিনার অন্যতম লজ্জার একটি ইতিহাস হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। 

আর্জেন্টিনা বনাম চেকোশ্লোভাকিয়া, ১৯৫৮

আর্জেন্টিনা ১৯৫৮ সালে সুইডেন বিশ্বকাপে চোকোশ্লোভাকিয়া এর কাছে ৬-১ ব্যবধানে আর্জেন্টিনা হেরে যায়।

এরকম হারের ফলে আর্জেন্টিনা গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়ে যায় সেই বিশ্বকাপে। 

আর্জেন্টিনা বনাম স্পেন, ২০১৮

২০১৮ সালে স্পেনের শহর মাদ্রিদে আর্জেন্টিনা খেলতে নামে।

সে সময় আর্জেন্টিনা দলের মূল তারকার লিওনেল মেসি ইনজুরির কারণে দলের বাইরে ছিলেন।

এই ম্যাচে আর্জেন্টিনার স্পেন এর কাছে ৬-০ গোলের ব্যবধানে হেরে যায়। স্পেনের দিয়াগো কস্তা ১২ মিনিটের মাথায় প্রথম গোল করেন।

এটি আর্জেন্টিনা পুরুষ ফুটবল দলের সব থেকে বড় পরাজয় ছিল। 

আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় পরাজয়গুলো

আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় পরাজয়গুলো
আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় পরাজয়গুলো

যদি আর্জেন্টিনার নারী দলের কথা বিবেচনা করা হয় তাহলে তারা সর্বোচ্চ ১১ গোল হজম করে জার্মানির বিপক্ষে অন্যতম একটি লজ্জার রেকর্ড গড়েছে।

অন্যদিকে আর্জেন্টিনার পুরুষ দল স্পেনের বিপক্ষে ৬ গোল হজম করে লজ্জার অনন্য রেকর্ড গড়েছে।

মূলত এই সকল রেকর্ড গুলো নিয়ে নানান ধরনের দ্বিধাদ্বন্দ্ব রয়েছে আর্জেন্টিনা এবং অন্যান্য দলের সমর্থকদের মাঝে।

এছাড়াও কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে।

এসময় বিভিন্ন দলের সমর্থকদের মাঝে বিভিন্ন ধরনের তর্ক বিতর্ক শুরু হয়ে যায়।

বিশেষ করে বাংলাদেশের ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনার সমর্থকদের মাঝে এ বিষয়টি নিয়ে মারামারি পর্যায়ে চলে যায়।

আপনি যদি আর্জেন্টিনার সমর্থক হয়ে থাকেন কিংবা আর্জেন্টিনার সমর্থক নাও হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনার আর্জেন্টিনার লজ্জার রেকর্ড গুলো জানার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

আর্জেন্টিনার দল ইতিমধ্যেই কাতার বিশ্বকাপে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে ২-১ গোলে অতৃপ্ত লজ্জার হার গ্রহণ করেছে।

এছাড়াও বাদ যায়নি জার্মানি ও।

তুলনামূলকভাবে কম শক্তিশালী জাপানের কাছে জার্মানি ও অনেকটাই শিশু বনে গেছে।

তাইতো জাপানের বিরুদ্ধে খুব লজ্জাজনক ২-১ গোলের হার মেনে নিয়েছে জার্মানি।

কিন্তু হতাশ করেনি ব্রাজিল।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে সার্বিয়াকে ২-০ বলে হারিয়ে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ দিয়েছে সেলেসাওরা।

আরও পড়ুনঃ

আর্জেন্টিনা কতবার বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলেছে?

ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনার রেকর্ড

আর্জেন্টিনা কতবার কোপা আমেরিকা জিতেছে

আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার ইতিহাস FAQS

১১ গোল খাওয়ার ইতিহাস আসলে আর্জেন্টিনা নারী ফুটবল দলের জন্য প্রযোজ্য।

২০০৭ সালে নারী বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে জার্মানির কাছে ১১-০ গোলের ব্যবধানে হেরেছিল আর্জেন্টিনা জাতীয় নারী ফুটবল দল। 

আর্জেন্টিনার স্পেন এর কাছে ৬-০ গোলের ব্যবধানে হেরে যায়। স্পেনের দিয়াগো কস্তা ১২ মিনিটের মাথায় প্রথম গোল করেন।

এটি আর্জেন্টিনা পুরুষ ফুটবল দলের সব থেকে বড় পরাজয় ছিল। 

উপসংহার 

প্রিয় পাঠকবৃন্দ আর্জেন্টিনার ১১ গোল খাওয়ার ইতিহাস সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেলে আপনাদেরকে বিস্তারিত তথ্য প্রদান করা হয়েছে।

আশা করছি আজকের এই আর্টিকেল থেকে আপনারা আর্জেন্টিনার লজ্জার রেকর্ড সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পেয়ে গিয়েছেন।

আপনাদের যদি আজকের এই আর্টিকেল সংক্রান্ত কোনো প্রশ্ন বা মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন।

অনলাইন থেকে ঘরে বসে টাকা আয়, ডিজিটাল মার্কেটিং, ফেসবুক মার্কেটিং, ব্লগিং সহ অন্যান্য অনলাইন ভিত্তিক কাজগুলোর আর্টিকেল আমাদের ওয়েবসাইটে রয়েছে।

আপনারা যদি অনলাইনে নিজেদের ক্যারিয়ার গড়তে চান তাহলে অবশ্যই সেই সকল আর্টিকেলগুলো পড়ুন।

আমাদের ওয়েবসাইটে আপনারা অনলাইন ভিত্তিক কাজগুলোর সম্পূর্ণ গাইড লাইন সহ আর্টিকেল পেয়ে যাবেন।

তাই অবশ্যই ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট এবং চোখ রাখুন আমাদের ফেসবুক পেইজে

ধন্যবাদ।

Leave a Comment

thirteen + 2 =