মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান | General knowledge about Metrorail

মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান গুলো উপস্থাপন করার জন্য আজকে আমরা এই আর্টিকেলটি গঠন করেছি। প্রিয় পাঠকবৃন্দ আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা মেট্রোরেল সম্পর্কিত সকল ধরনের তথ্য বিস্তারিত জানতে পারবেন। মেট্রোরেল হচ্ছে বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগে নতুন একটি ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রকল্প। 

ইতিমধ্যে এই প্রকল্পের কাজ অনেকটা শেষ বললেই চলে। বাংলাদেশকে একটি ডিজিটাল বাংলাদেশ পরিণত করার জন্য বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। আমরা সকলেই জানি কিছুদিন আগেই পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করা হয়েছে। সে প্রকল্পটির মত মেট্রোরেল প্রকল্প একটি বড় প্রকল্প। এটি সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত হয়ে গেলে জনজীবনকে চলাচলের ক্ষেত্রে আরো অনেক সুযোগ সুবিধা বাড়িয়ে দিবে। 

আশা করছি খুব তাড়াতাড়ি মেট্রোরেলের কাজ শেষ হবে। শিক্ষার্থী ভাই ও বোনেদের জন্যে ইতিমধ্যেই সম্পর্কিত নানান প্রশ্ন তাদের পরীক্ষায় করা হচ্ছে। যে সকল শিক্ষার্থী ভাই ও বোনেরা আজকের এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন আশা করি পরবর্তীতে মেট্রোর সম্পর্কিত যেকোন প্রশ্ন আপনারা খুব সহজেই উত্তর প্রদান করতে পারবেন। তাহলে চলুন মেট্রো সম্পর্কে বিস্তারিত পর্বে যাওয়া যাক।

মেট্রোরেল কি 

মেট্রোরেল কি 
মেট্রোরেল কি 

পুরো পৃথিবীতে বর্তমান সময়ে বিশ্বায়নের একটি গুরুত্বপূর্ণ যাতায়াত মাধ্যম হচ্ছে মেট্রোরেল ব্যবস্থা।

ইতিমধ্যে আমাদের দেশে নানান জায়গায় যাওয়ার জন্য আমরা অনেক সময় ব্যয় করে থাকি। 

আমাদের দেশটি খুব ছোট হওয়ায় রাস্তায় অনেক সময় যানজটের কারণে আমাদের যে কোনো গুরুত্বপূর্ণ কাজে যেতে সময় বেশি লাগে।

সময়মতো গন্তব্যে না পৌছানো কারণে অনেক মানুষেরই নানান ধরনের ক্ষতি হয়েছে। 

শিক্ষার্থী ভাই ও বোনেরা পরীক্ষায় দেরিতে উপস্থিত হয়েছে। 

বর্তমান সময়ে একই স্থান থেকে অন্য স্থানে খুব দ্রুত পৌঁছানোর জন্য ইতিমধ্যেই নানান ধরনের প্রকল্প চালু হয়ে গিয়েছে। 

সেসকল প্রকল্পের মধ্যে অন্যতম একটি প্রকল্প হচ্ছে মেট্রোরেল প্রকল্প। 

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে মেট্রো রেল ব্যবস্থা চালু হবে বলে সকলের মধ্যে একটি আলাদা ভাললাগা কাজ করছে। 

এত যানজট এবং সময়ের এত অপব্যবহার রোধ করার জন্যই মূলত ঢাকা শহরে মেট্রোরেল ব্যবস্থা নিয়ে আসছে বর্তমান বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক সরকার।

এতে করে যেমন মানুষের কাজের আগ্রহ বাড়বে তেমনি জনজীবনে অশান্তি নেমে আসবে।

বাংলাদেশের শ্রমঘণ্টা জরিপ করার পর জানা গিয়েছে যে প্রায় প্রতিদিন ১৭ থেকে ৩২ লক্ষ মানুষের শ্রমঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে শুধুমাত্র যানজটের কারণে। 

মেট্রোরেল সফলভাবে চালু হওয়ার পর থেকে এ সকল বিষয়গুলো খুবই কমে যাবে বলে সকলেই আশাবাদী।

আরও পড়ুনঃ

আজকের খেলার সময় সূচি প্রথম আলো

শেষ বিকেলের ক্যাপশন

রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম

মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান 

আজকে আপনাদেরকে মেট্রো সম্পর্কিত সকল তথ্য প্রদানের জন্য আমরা এখানে উপস্থিত হয়েছি।

মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান অর্জন করা আপনার জন্য অত্যন্ত জরুরী এবং প্রয়োজনীয়। 

বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বপ্রথম চালু হয়েছে আমাদের মেট্রোরেল। 

এটিকে ঘিরে নানান ধরনের প্রশ্ন নতুন করে তৈরি হয়েছে। 

শিক্ষার্থী ভাই ও বোনদের জন্য বিশেষ করে সর্বাধিক বেশি সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান ধারণ করা প্রয়োজন। 

কেননা আমরা বর্তমান সময়ে নানান ধরনের টপিকের ওপর পরীক্ষার প্রশ্নগুলো তৈরি করতে দেখে থাকি। 

পদ্মা সেতু সম্পর্কিত সাধারণ জ্ঞান থাকা প্রয়োজন তেমনি মেট্রো সম্পর্কিত সাধারণ জ্ঞান কিন্তু আপনাকে থাকতে হবে।

চলুন দেখে নেয়া যাক মেট্রো সম্পর্কিত সকল তথ্য।

সাধারণ জ্ঞান | General knowledge about Metrorail

General knowledge about Metrorail
General knowledge about Metrorail
মেট্রোরেল সম্পর্কিত তথ্যবিবরণ
মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়২০১৬ইং সালে
ঢাকা মেট্রোরেল ব্যবস্থা হচ্ছেম্যাস রেপিড ট্রানজিট
মেট্রোরেল প্রকল্পের পরিচালনাকারী কোম্পানির নামঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি
ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি গঠন৩রা জুন, ২০১৩ইং সালে
DMTCL গঠন করার কারণমেট্রোরেল নির্মাণ, পরিচালনা, রক্ষণাবেক্ষণ, ডিজাইন এবং জরিপ সংঘটিত কাজের জন্য
RSTP হচ্ছেRevised Strategic Trans port Plan
মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় হচ্ছে২২,০০০ কোটি টাকা
RSTP অনুসারে সরকার ম্যাচ ট্রানজিট প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য পরিকল্পনার সংখ্যা৫ টি
মেট্রোরেল প্রকল্পের বাস্তবায়নের জন্য ঋণ প্রদান করেনজাইকা
মেট্রোরেল প্রকল্পে বাস্তবায়নের জন্য জাইকা ঋণ প্রদান করার শতাংশের হার৭৫ শতাংশ
মেট্রোরেল প্রকল্পের ঋণের পরিমাণ হচ্ছে১৬,৫৯৫ কোটি টাকা
মেট্রোরেল প্রকল্পে সরকারের মোট অর্থায়নের পরিমাণ হচ্ছে৫,৩৯০ কোটি টাকা অর্থাৎ মোট শতাংশের ২৫%
মেট্রোরেলের প্রথম স্তর চালু হয়ডিসেম্বর, ২০২০ সালে
মেট্রোরেলের প্রথম স্তর চালু হওয়ার স্থানউত্তরা হতে মতিঝিল
মেট্রোরেলের প্রথম স্তর এর মেট্রো রেলপথের নাম হচ্ছেএমআরটি লাইন- ৬
মেট্রোরেল ব্যবহার করে উত্তরা হতে মতিঝিল৩৫ মিনিট
মেট্রোরেলের প্রথম স্তর স্টেশন এর মান গুলো হচ্ছেজাতীয় জাদুঘর।
দোয়েল চত্বর।
জাতীয় স্টেডিয়াম।
বাংলাদেশ ব্যাংক।
উত্তরা সেন্টার।
আইএমটি।
মিরপুর-১০।
কাজীপাড়া।
তালতলা।
আগারগাঁও।
উত্তরা উত্তর।
বিজয় সরণি।
উত্তরা দক্ষিণ।
পল্লবী।
ফার্মগেট।
সোনারগাঁও।
মেট্রোরেলের প্রথম স্তর স্টেশন সংখ্যা১৬ টি
মেট্রোরেলের প্রথম স্তর দৈর্ঘ্য২০.১০ কিলোমিটার
মেট্রোরেল প্রকল্পের প্রথম স্তর ট্রেন সংখ্যা২৪ টি
মেট্রোরেল প্রকল্পের প্রথম স্তর প্রতিটি ট্রেনে বগি সংখ্যা৬ টি
মেট্রোরেলের প্রতিটি পিলারের ব্যাস২ মিটার
মেট্রোরেলের প্রতিটি পিলারের উচ্চতা১৩ মিটার
মেট্রোরেলের একটি পিলার থেকে আরেকটি পিলারের দূরত্ব৩০ কিলোমিটার হতে ৪০ কিলোমিটার
মেট্রোরেলে প্রতি ঘন্টায় বিদ্যুৎ খরচ১৩.৪৭ মেগাওয়াট
মেট্রোরেলের বিদুৎ জোগানের জন্য উপকেন্দ্রের সংখ্যা৫ টি
মেট্রোরেলের দ্বিতীয় স্তর চালু হওয়ার স্থানহোটেল সোনারগাঁও থেকে বাংলাদেশ ব্যাংক
মেট্রোরেলের বিদুৎ জোগানের জন্য উপকেন্দ্রের স্থান সমূহ1. তালতলা
2. বাংলা একাডেমি
3. সোনারগাঁও
4. উত্তরা
5. পল্লবী
মেট্রোরেলের দ্বিতীয় স্তর হচ্ছে৪.৪০ কিলোমিটার
মেট্রোরেলের তৃতীয় স্তর হচ্ছে৪.৭ কিলোমিটার
মেট্রোরেলের তৃতীয় স্তর চালু হওয়ার স্থানপল্লবী থেকে উত্তরা
ঢাকা মেট্রোরেলের প্যাসেঞ্জার ক্যাপাসিটি১,০০,৮০০ জন (প্রতিদিন)
মেট্রোরেলের রুটের দৈর্ঘ্য২০.১ কিলোমিটার
ঢাকা মেট্রোরেলের ট্রেনের সংখ্যা৫৬ টি (পরিকল্পনা অনুসারে)
ঢাকা মেট্রোরেলের স্টেশন সংখ্যা১৬ টি (এলিভেটেড স্টেশন)
ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজ শুরুজুন, ২০১৬ইং সাল
ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজ শেষপরিকল্পনা অনুসারে কাজ শেষ হয় নি তাই এখন পর্যন্ত তারিখ নির্ধারন করা হয় নি
প্রকল্প মোট বাজেট২.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার
সাধারণ জ্ঞান

আরও পড়ুনঃ

লাহোর প্রস্তাবের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় কি ছিল?

বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু কত?

ফরাসি বিপ্লবের মূলমন্ত্র কি ছিল?

মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান mcq

মেট্রোরেলে মতিঝিল থেকে উত্তরা যাওয়ার জন্য কত সময় লাগতে পারে?

মেট্রোরেলে মতিঝিল থেকে উত্তরা যাওয়ার জন্য ৪০ মিনিট সময় লাগবে।

ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের বিনিয়োগকারী সংস্থার নাম কি?

মেট্রোরেল প্রকল্পের বিনিয়োগকারী সংস্থা হচ্ছে ইতালির থাই ডেভলপমেন্ট পাবলিক কোম্পানি।

ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্প কবে থেকে বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে?

মেট্রোরেল প্রকল্প ২০১৬ সাল থেকে বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে।

ঢাকা মেট্রোরেল ব্যবস্থাকে কি বলা হয়?

মেট্রোরেল ব্যবস্থাকে বলা হয় ম্যাস রেপিড ট্রানজিড।

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিড কোম্পানি বা DMTCL কবে গঠন করা হয়?

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিড কোম্পানি বা DMTCL ৩ জুন, ২০১৩ সালে গঠন করা হয়।

DMTCL কেন গঠন করা হয়?

DMTCL গঠন করা হয় মেট্রোরেল নির্মাণ, পরিচালনা, রক্ষণাবেক্ষণ, জরিপ, ডিজাইন ইত্যাদি কাজে।

RSTP কি?

Revised Strategic Transport Plan.

ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হবে কত?

মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় ২২ হাজার কোটি টাকা।

ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নে কোন সংস্থা ঋন প্রদান করেন?

ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নে ঋন প্রদান করেন জাইকা।

মেট্রোরেল প্রকল্পের প্রথম ধাপে কতটি ট্রেন চলাচল করবে?

মেট্রোরেল প্রকল্পের প্রথম ধাপে ২৪ টি ট্রেন চলাচল করবে?

উপসংহার 

প্রিয় পাঠকগণ আজকের এই আর্টিকেলের সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান আপনাদেরকে প্রদান করা হয়েছে।

আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা বাংলাদেশের অন্যতম প্রকল্প মেট্রো সম্পর্কে সম্পূর্ণ জানতে পেরেছেন। 

এবং আমরা আশা করছি আপনাদের আজকে এই আর্টিকেলটি ভালো লেগেছে।

আপনাদের যদি তবু আজকের এই আর্টিকেলটি সম্পর্কে কোনো ধরনের প্রশ্ন বা মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। 

অনলাইন থেকে ঘরে বসে কিভাবে টাকা আয় করবেন আপনারা জানেন কি। 

হয়তো এখনো অনেকেই এ সকল বিষয়ে অনেকটাই জানেন না। 

আপনারা যদি চান আপনাদের ক্যারিয়ার অনলাইনের মাধ্যমে করতে তাহলে অবশ্যই এসকল বিষয় গুলো জানার জন্য আপনাকে আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এসংক্রান্ত আর্টিকেলগুলো পড়তে হবে।

আপনারা যদি আমাদের ওয়েবসাইটে উপবীত সকল আপডেট পেতে চান তাহলে অবশ্যই আমাদের ফেসবুক পেইজে ফলো করে রাখুন। 

Leave a Comment

one + fifteen =