অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয় | How to write an assignment in Bangla

অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয় এই বিষয়ে আজকে আপনাদের জানাবো। শিক্ষার্থীদের অনেকের বিশেষ করে করোনা চলাকালিন সময়ে সরকার নির্ধারিত প্রায় প্রত্যেক শ্রেনিতে দীর্ঘদিন অ্যাসাইনমেন্ট প্রথা চালু ছিলো। কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সারা বছরই অ্যাসাইনমেন্ট সিস্টেম চালু থাকে। আজকে জানতে চেষ্টা করবো অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয় এর আদ্দপান্থ। 

অ্যাসাইনমেন্ট শব্দটির আভিধানিক অর্থ নিয়োগ। অ্যাসাইনমেন্ট শব্দটির সাথে পরিচিত নন বা একবার হলেও শোনেন নাই এমন লকের সংখ্যা খুবই কম। বিশেষ করে ছাত্র শিক্ষক থেকে শুরু করে চাকরিজীবী পর্যন্ত সবাই অ্যাসাইনমেন্ট শব্দের সাথে পরিচিত। আজকে আমরা জানতে চেষ্টা করবো অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয় সেই সম্পর্কে। 

আজকের পোস্টে আমরা যা যা জানতে চেষ্টা করবো এ্যাসাইনমেন্ট কি? কিভাবে এসাইনমেন্ট লিখতে হয়? অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে সার্বিক ধারণা পাবেন এই পোস্টে।

What is assignment in Bangla? অ্যাসাইনমেন্ট কি?

অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয়
(Assignment) অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয়

অ্যাসাইনমেন্ট হলো মূলত শিক্ষক বা গৃহ শিক্ষক দ্বারা শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত সময়ে সম্পন্ন করার জন্য নির্ধারিত কাজ সমূহ।

অন্যভাবে বলা যায়, শেখার অংশ হিসেবে কাউকে দেওয়া কাজ সমূহ হলো অ্যাসাইনমেন্ট।

অ্যাসাইনমেন্টহতে পারে লিখিত আকারে ব্যবহারিক আকারে হতে পারে অনলাইন পদ্ধতিতেও। আমাদের দেশে সাধারণত উচ্চ শিক্ষা স্তরে গিয়ে শিক্ষার্থীরা অ্যাসাইনমেন্ট করে থাকে। 

অ্যাসাইনমেন্টমূলত পড়ালেখা ভিত্তিক একটি কাজ। যা পড়াশোনাকে পূর্ণতা দিতে একটি অনবদ্য অবদান রাখে।  একাডেমিক দিক থেকে ষষ্ঠ থেকে ১০ শ্রেণী পর্যন্ত এবং কলেজ পর্যায়েও অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হয়ে থাকে। কিন্তু অনেকে জানেন না অ্যাসাইনমেন্ট কি।

আশা করছি এবার আপনার বুঝতে  সমস্যা রইলো না যে অ্যাসাইনমেন্ট  কি। 

এবার জেনে নেওয়া যাক অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয়

১) অ্যাসাইনমেন্ট হলো শিক্ষার্থীদের শেখার জন্য ঘরে বসে দেওয়া কাজের একটি অংশ।

২) অ্যাসাইনমেন্ট হলো একটি কাজ যা কাউকে দেওয়া হয়, সাধারণত এটা তাদের কাজের অংশ হিসাবেই দেওয়া হয়ে থাকে। 

আমরা জানতে পারলাম অ্যাসাইনমেন্ট  কি।এবার জানতে চেষ্টা করবো কিভাবে অ্যাসাইনমেন্ট  লিখতে হয় – How to write an assignment in bangla 

How to write an assignment in bangla- বাংলায় কিভাবে অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয়

১) অ্যাসাইনমেন্ট একটি কভার পেজ থাকবে। পেজটি অবশ্যই ফর্মাল ডিজাইনের হতে হবে। শতকরা ৯৯.৯৯ অ্যাসাইনমেন্ট এর ক্ষেত্রে ফর্মাল কভার পেজ ব্যবহারের নির্দেশনা দিয়ে থাকে। 

২) বিষয় অনুযায়ী কভার পেজে একটি লোগো থাকবে। তবে অবশ্যই তা মার্জনীয় হবে (যদি থাকে)। 

৩) কভার পেজের উপরে একটু বড় করে লেখা থাকবে। এর আকৃতি অর্ধচন্দ্রাকৃতির হলে ভালো হয়। তবে সাধারন আকৃতি অর্থাৎ সোজা হলে সমস্যা নাই। 

৪) কভার পেজের নিচের দিকে শিক্ষার্থীর নাম শ্রেণী, রোল নাম্বার এবং বইয়ের বা বিষয়ের নাম তারিখ এবং  অ্যাসাইনমেন্ট জমা দেওয়ার তারিখ উল্লেখ থাকবে। কিছু ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীর স্বাক্ষর এবং কন্ট্রাক্ট নাম্বার অব্ধি থাকতে পারে।  

৫) অ্যাসাইনমেন্ট সাধারণত কয়েকটি পেজের ন্যায় একটি খাতার মতো হয়ে থাকে। এর একদম শেষে একটি সাদা পেজ অবশিষ্ট রাখতে হবে।

উপরে উল্লেখিত পদ্দতি অনুসরন করলে এতে করে আপনার অ্যাসাইনমেন্টটি নষ্ট বা ছিরে গেলেও ক্ষতিগ্রস্ত হবে নাহ আপনার লেখা পেজগুলো। 

আদর্শ অ্যাসাইনমেন্ট কি ?

৬) একটি আদর্শ অ্যাসাইনমেন্ট এর ক্ষেত্রে পলিপ্লাস্টিক দ্বারা বাধাই করতে হবে। কিন্তু শিক্ষার্থীদের এই বিষয়ে কোনো বাধ্য বাধগতা নাই। করলে সমস্যা নাই। ছাত্রদের বেলায় হতে পারে যেমন অ্যাসাইনমেন্ট পিনাপ বা সেলাই শেষে চ্যাপ্টা টেপ দিয়ে পাশে আতকে দেওয়া যেতে পারে। এটাই যথেষ্ট হবে। 

আরও পড়ুনঃ জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই পদ্ধতি ২০২২

৮) একটি আদর্শ অ্যাসাইনমেন্টে একটি পেজের শুধু উপরের পেজে লিখতে হয়। অথবা শুধু ডান পাশে লেখা যায়।

তবে, নিজের মতো করে লিখলে খুব একটা অসুবিধা নাই। 

৯) একটি অ্যাসাইনমেন্ট সাধারণত মিনিমাম ৭-৮ পৃষ্ঠার হয়ে থাকে। তবে একটি আদর্শ অ্যাসাইনমেন্ট ২০-৩০ বা ৫০ বা তারও বেশি পৃষ্ঠার হয়ে থাকে। 

কিন্তু, শিক্ষার্থীদের সিলেবাসে সীমাবদ্ধতা থাকায় মূল বিষয় ছাড়া অযথা  কিছু লেখা থেকে বিরত  থাকতে হবে তাতে ছোট বা কম পৃষ্ঠার হলেও সমস্যা নাই। 

অ্যাসাইনমেন্ট এর উত্তর লেখার ক্ষেত্রে মুখস্ত বা হুবহু বই থেকে না লিখে একটু বড় করে হলেও নিজের মতামত যুক্তি সহকারে নিজের লেখাকে লিখতে হয়।

অর্থাৎ, শিক্ষার্থীর গবেষণা এবং মতামত চিন্তা উল্লেখ করাই অ্যাসাইনমেন্ট  এর অন্যতম লক্ষ্য।  

১০) অ্যাসাইনমেন্ট সাধারণত কখনোই ডিজাইনের লেখা হয় না। তাই স্পষ্ট এবং সকল অক্ষরে সাধারন লেখার সাইজের মতো সাইজ রখে লিখতে হবে।

অ্যাসাইনমেন্টএর ভাষা হবে বইয়ের এবং হাতের লেখা যতটা সম্ভব ভালো করার চেষ্টা করতে হবে। 

১১) অ্যাসাইনমেন্ট লেখার ক্ষেত্রে যে তথ্য সংগ্রহ করতে হয় তা যে কোনো সোর্স থেকে সংগ্রহ করা যেতে পারে।

অ্যাসাইনমেন্ট হতে হবে সহজ, সুন্দর, সাবলীল এবং মার্জিত ভাষায়।

এর মধ্যে অন্যতম সোর্স হতে পারে বই থেকে তথ্য নেওয়া, গল্পের বই, বিভিন্ন বিজ্ঞানমূলক বই, উপন্যাস কিংবা কাব্যগ্রন্থ।

এছাড়া বর্তমান সময়ে অন্যতম সোর্স ইন্টারনেট। কোন তথ্য না পাওয়া যায় ইন্টারনেটে?

আমার জানামতে এমন কোনো বিষয় আছে যে সেই সম্পর্কে ইন্টারনেটে পাওয়া যাবে না? এসব সোর্স থেকে তথ্য ওপেন করে পড়ে যা বুঝবেন তাই ই লিখতে হবে। 

শুধুমাত্র এখানে উপদেশ মুলক বানী কোন ব্যক্তি বা লেখকের কথা এখার সময় ডাবল কোটেশনে লিখতে হয়।

১২) অ্যাসাইনমেন্ট  শুধুমাত্র একটি পৃষ্ঠার উপরের অংশে লিহতে হবে।

পৃষ্ঠার দুই পাশেই লেখা যাবে না। একটি আদর্শ অ্যাসাইনমেন্ট  লেখার মধ্যে এটি অন্যতম আদর্শ। 

১৩) অন্যান্য বড় ধরনের অ্যাসাইনমেন্ট লেখার জন্য হাতে লিখে মডেল তৈরি করে তা টাইপ করে প্রিন্ট করে বাধাই করে জমা দিতে বলে হয়।

শুধুমাত্র পরীক্ষার্থীদের বেলায় হাতে লেখা অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে বলে হয়ে থাকে।

এর অন্যতম কারণ, এটি শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার বিকল্প হিসেবে কাজ করে অনেক ক্ষেত্রে বা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে। 

১৪) শিক্ষার্থীর নিজের খুজে খুজে তথ্য পূর্ণ সোর্স থেকে লিখতে হবে।

অন্য কাউকে দিয়ে লিখিয়ে নেওয়া যাবে না।

অ্যাসাইনমেন্ট  মূলত শিক্ষার্থীদের শেখানোর উদ্দেশ্য করে করতে দেওয়া হয়।

তাই, কোনো ভাবেই অন্য কাউকে দিয়ে লিখিয়ে নেওয়া উচিত না। 

এছাড়াও আরও কিছু অ্যাসাইনমেন্ট  নিয়ে আরও কিছু পরামর্শ

এছাড়া অ্যাসাইনমেন্ট  লেখার জন্য উপরোল্লিখিত বিষয় ছারাও কিছু বিষয়ের দিকে খ্যেয়াল রাখতে হয়।

যেমন পেন্মসিলের ব্যবহার ক্ললমের ব্যবহার এমনকি পেজে মার্জিন দেওয়ার বিষয়েও যথেষ্ট সতর্ক থাকতে হয়। 

আরও পড়ুনঃ পুরাতন জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম । Registering old births online 

অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয়?

নিজেই নিজের অ্যাসাইনমেন্ট লিখা ভালো। অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয় এই সম্পর্কে বিস্তারিত পাবেন আমাদের এই পোস্টে।

অ্যাসাইনমেন্ট কি?

ছাত্রদের হোম work কে অ্যাসাইনমেন্ট বলা হয়ে থাকে। অ্যাসাইনমেন্ট হচ্ছে মূলত শিক্ষক বা গৃহ শিক্ষক দ্বারা শিক্ষার্থীদের জন্য নির্ধারিত সময়ে সম্পন্ন করার জন্য নির্ধারিত কাজ সমূহ।

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম কি?

শিখকদের কাছ থেকে পাওয়া Home work গুলি বা অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম হচ্ছে উপরে উল্লেখিত ১৪ টি বেসিক বিষয়কে অনুসরণ করা।

উপসংহার

আজকে আমরা জানতে চেষ্টা করেছি অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে লিখতে হয় এই বিষয়ে জানাতে। সেই সাথে আপনি জানতে পেরেছেন অ্যাসাইনমেন্ট কি। অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত।

আশা করছি ইতিমধ্যে সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ে আপনি অ্যাসাইনমেন্ট সম্পর্কে সকল বিষয়ে বুঝতে পেরেছেন। 

এরকম নিত্য নতুন পোস্ট পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট এবং চোখ রাখুন আমাদের ফেসবুক পেজে। 

Leave a Comment

19 − five =