মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় কি? কিভাবে ব্যাটারির যত্ন নিবেন

মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় সমূহ সম্পর্কে আপনি জানেন কি? প্রজুক্তির উন্নতি এবং সহজলভ্যতার যুগে স্মার্টফোন এখন সবার হাতে হাতে। শুধু তাই নয়, যুগের আধুনিকতায় স্মার্টফোন এখন প্রায় প্রত্যেকের প্রতি মুহূর্তের দরকারি ডিভাইস। আর ব্যাটারি হলো এই ডিভাইসের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি পার্স যা থেকে ডিভাইসটি অন বা চালু রাখা সম্ভব। 

ছোট থেকে বৃদ্ধ বিশেষ করে যুবক শ্রেণীর যখন স্মার্টফোন প্রতিমুহূর্তের দরকারি ডিভাইস তখন এর ব্যাটারিতে সবসময় চার্জ দিয়ে রাখা সম্ভব না।

অন্যদিকে সারাক্ষণ মোবাইল স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকতে থাকতে চার্জ শেষ হয়ে যায় অতি দ্রুত। যার ফলে স্মার্টফোনের চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যায়। 

কয়েকটি বিষয়ে খেয়াল রাখলে এবং মেনে চললে মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় জানা যাবে এবং মোবাইলের ব্যাটারির চার্জ আগে থেকে প্রায় দেড় গুন বেশি সময় যাবে এবং ব্যাটারি দীর্ঘ দিন সার্ভিস দিবে।

মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় বা কিভাবে ভাল রাখা যায়?  

মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় কি কিভাবে ব্যাটারির যত্ন নিবো
নতুন মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়

মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় সম্পর্কে জানার পূর্বে আপনার ব্যাটারি সম্পর্কে কিছু জানার প্রয়োজন রয়েছে।

১) নিয়ম মেনে চার্জ করা 

অনেকের মধ্যে দেখা যায় মোবাইলের ব্যাটারি ০% চার্জ না হলে চার্জের কথা মনেই করি না, যা একদমই ঠিক না।

সাধারণত বর্তমান সময়ে বেশিরভাগ ব্যাটারি লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়। 

ব্যাটারির চার্জ একদম শেষ হওয়ার পড়ে চার্জ দিলে ব্যাটারি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

আর মোবাইলটি বন্ধ হলে চার্জের পর চালু হতে অনেক সময় লাগে যা ব্যাটারিকে খুব কম সময়ের মধ্যে দুর্বল করে ফেলে।  

মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখতে এবং দীর্ঘ দিন নতুনের মতো সার্ভিস পেতে অবশ্যই মোবাইল ফোনের ব্যাটারি ২০% চার্জ থাকতেই চার্জ দিন এবং ৯০ থেকে ৯৫ % হলে চার্জ থেকে উঠিয়ে রাখুন।

মনে রাখবেন মোবাইলের ব্যাটারি ২০ থেকে ৭০ % চার্জের মধ্যে সবথেকে ভালো সার্ভিস দিয়ে থাকে।

আর কোনো ভাবেই যেন মোবাইলের ব্যাটারির চার্জ ০% হয়ে না যায় সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন। 

২) ভালো ও মানসম্মত চার্জার ব্যবহার

মোবাইল চার্জ দেওয়ার জন্য ব্যবহারকৃত চার্জার অবশ্যই মোবাইল কেনার সময় সাথে দেওয়া চার্জার হতে হবে।

মোবাইলের একটি ব্যাটারিতে কি ধরনের চার্জ ধারণ করতে পারবে, কত ভোল্টে ঠিকভাবে চার্জ হবে তা মেনেই সকল মোবাইল প্রতিষ্ঠান সেরকম চার্জার তৈরি করে থাকে। 

তাই মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখতে অবশ্যই আসল চার্জার ব্যবহার করতে হবে।

তবে মাঝে মধ্যে একান্ত দরকার হলে দুই একবার অন্য চার্জার ব্যাবহার করা যেতে পারে, তবে তা না করাই ভালো। 

৩) ব্যাটারির তাপ নিয়ন্ত্রণ 

একটি মোবাইল ফোন বেশ কিছুদিন ব্যবহারের পর দেখা যায় চার্জ দেওয়ার সময় মোবাইলের পিছনের অংশ অর্থাৎ ব্যাটারির দিক গরম হয়ে যায়।

এর সমাধান হিসেবে মোবাইলের ব্যাক কভার খুলে চার্জ করা যেতে পারে। এতে কম গরম হবে।  

এছাড়া ভালো হয় মোবাইল চার্জ দেওয়ার সময় বন্ধ করে চার্জ দিলে। আর নিরাপত্তার দিক চিন্তা করে এমন বদ্ধ জায়গায় চার্জে দিবেন না যেখানে বাতাস আশা যাওয়া করতে পারে না। সবসময় খোলামেলা ঘরে মোবাইল চার্জ দিবেন। 

৪) চার্জে দিয়ে ফোণের ব্যবহার 

অনেক মোবাইল ব্যবহারকারীদের মধ্যে সবথেকে খারাপ অভ্যাস হচ্ছে মোবাইল চার্জে লাগিয়ে ব্যবহার করা।

কিন্তু এতে মোবাইল এবং ব্যাটারি উভয়-ই মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্থ হয়। বাস্তব অভভিজ্ঞতা থেকে লিখছি, মোবাইল চার্জে লাগিয়ে ব্যবহার করলে মোবাইল এবং ব্যাটারি উভয় নষ্ট হতে খুব বেশি দিন লাগবে না। 

কোনো ক্রমেই মোবাইল চার্জে বসিয়ে ব্যবহার করা যাবে না এবং চার্জ দেওয়ার সময় মোবাইল অন রাখলেও ডাটা কানেকশন অফ করে রাখতে হবে। 

৫) অরজিনাল ব্যাটারি 

মোবাইল ফোণের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ ব্যাটারি যদি একবার নষ্ট হয়ে যায় তাহলে কোনো কিছুর বিনিময়ে আর আসল ব্যাটারি পাওয়া সম্ভব না, যার জন্য আসল ব্যাটারি ভালো রাখতে এসকল কাজগুলি অত্যন্ত জরুরি।

অরজিনাল ব্যাটারি কোম্পানি ফোনের সাথে মিলিয়ে সেটআপ দিয়ে থাকে যা আর কখনোই পাওয়া সম্ভব না।

একটি অরজিনাল ব্যাটারি নষ্ট হওয়া মানে ফোনটি একপ্রকার ৫০% অচল অবস্থা হয়ে যাওয়া। 

৬) চার্জ দেওয়ার পারফেক্ট সময় 

রাতে ঘুমানোর আগে চার্জে দিয়ে সকালে ঘুম থেকে উথে চার্জ ন্থেকে উঠানোর অভ্যাস আপনার আছে? থাকলে বুঝে নিন আপনি নিজেই আপনার মোবাইল তারাতারি নষ্ট হওয়ার জন্য দায়ী।

রাতে বিশেষ করে বিছানায় চার্জে দিয়ে ঘুমালে ফোন গরম হয় যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। একইসাথে ফুল চার্জ হার পরেও কানেক্ট করা থাকে চার্জারে।

তবে বর্তমান সময় খুব ভালো মানের ফোনগুলিতে অটোমেটিক চার্জ হয়ে থাকে যার ফলে ফুল চার্জ হওয়ার ফলে চার্জ নেওয়া বন্ধ করে দেয়।

কিন্তু আমরা আগেই জেনে এসেছি মোবাইলের ব্যাটারিতে ৯০ থেকে ৯৫% চার্জ করা সবথেকে ভালো। 

রাতে ঘমানর সময় বাদে যেকোনো সময় চার্জ দিতে পারেন। তবে একটু চার্জ দিলেন একটু উঠালেন  ভুলেও এমনটা করবেন না।

এতে ব্যাটারির অনেক বেশ ক্ষতি হয়। 

আরও পড়ুনঃ

রাউটার কি? wifi কি? রাউটার কিভাবে কাজ করে সুবিধা ও অসুবিধা

Online Birth Certificate Check Bangladesh | Online bris check BD

৭) ব্যাটারিতে চার্জ ধরে রাখার উপায় 

মোবাইলের ব্যাটারিতে চার্জ ধরে রাখতে নিচের কয়েকটি বিষয় ফলো করা যেতে পারেঃ 

  • প্রয়োজন অনুযায়ী মোবাইলের ব্রাইটনেস মাঝামাঝি বা কমিয়ে রাখতে হবে।
  • প্রয়োজন ব্যতীত অন্য সব সফটওয়ার আনইন্সটল করে রাখতে হবে। 
  • ব্যাকগ্রাউনডে যেসব সফটওয়ার চলে তা দরকার না হলে আনইন্সটল বা ব্যাকরাউডে চলার অনুমতি বন্ধ করে রাখতে হবে। 
  • ফোনের লক সিস্টেম ছাড়া অন্য লক সফটওয়ার ব্যবহার না করাই ভালো।এটা ব্যবহার করলে একসাথে একই কাজের জন্য দুইতি সফটওয়ার কাজ করে যাতে বেশি চার্জ নষ্ট হয়। 
  • বিভিন্ন ধরনের Launcher অ্যাপ ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। এই সফটওয়ার ব্যবহার থেকে অতিরিক্ত চার্জ ক্ষয় হয়। 
  • ডিসপ্লে জালিয়ে রাখার সময় প্রয়োজন মতো রাখুন। 

৯) ফাস্ট চারজিং এ করণীয় 

মোবাইল ফোনে ফাস্ট চারজিং না থাকলে অন্য ফাস্ট চারজিং ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।

মনে রাখবেন, কখনোই ফাস্ট চারজিং শুধু মাত্র চার্জারের উপর নির্ভর করে না।

ফাস্ট চারজিং এর জন্য মোবাইলে অতিরিক্ত চিফ লাগানো থাকে।ফাস্ট চারজিং মোবাইলের মূল্যের উপর নির্ভর করায় সব মোবাইলে থাকে না। 

একটি মোবাইল বা মোবাইলের ব্যাটারি আজীবন যাবে না এটা সত্য।

কিন্তু উপরোল্লিখিত নিয়মগুলো মেনে চললে আজীবন না গেলেও বেশ কিছুদিন মনের শান্তিতে ব্যাটারির সার্ভিস ভালো পাবেন স্বাধের মোবাইলটিতে আর মোবাইলটিও থাকবে নতুনের মতো।

কেন মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় গুলি অবলম্বন করবেন

মোবাইল ফোন বর্তমানে আমাদের প্রতিদিনের নিত্যসঙ্গী। 

একটি নতুন মোবাইল ফোন ক্রয় করার সময় আমরা যেমন ব্যাটারির শক্তি বিবেচনা করে থাকি, সেইসাথে ক্রয় পরবর্তী আমাদের ব্যাটারি আয়ু বৃদ্ধি করা যায় এ সম্পর্কে সচেতন থাকা উচিত।

আমি মনে করি আপনার মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়  সম্পর্কিত পোস্ট টি পড়ার পরে আপনার এই বিষয়ে আর কোন সমস্যা হওয়ার কথা নয়।

সঠিক নিয়মে মোবাইল চার্জ করলে এবং মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করলে আপনার মোবাইল ফোনের ব্যাটারির আয়ু বৃদ্ধি পাবে যা হান্ডেট পার্সেন্ট প্রমাণিত।

মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় সম্পর্কে কিছু প্রশ্ন?

কিভাবে মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখা যায়?

সঠিক নিয়মে চার্জ দেওয়া। সম্পূর্ণ চার্জ শেষ হওয়ার পূর্বে পুনরায় মোবাইল চার্জে দিলে আপনার ব্যাটারির আয়ু বৃদ্ধি পাবে এবং ব্যাটারি টাইমিং ও ভালো পাওয়া যাবে।

মোবাইলের ব্যাটারি ফুলে গেলে কি করতে হবে?

যদি কোন কারণে আপনার মোবাইলের ব্যাটারি ফুলে যায় তবে আপনার করণীয় তেমন কিছুই নেই। আপনার মোবাইল কে ভালো রাখার স্বার্থে আপনাকে ব্যাটারিটি পরিবর্তন করা উচিত।

ব্যাটারি চার্জ ফুল করতে কি করতে হবে?

যদি কোন কারণে আপনার মোবাইলের ব্যাটারি ফুল চার্জ না হয় তবে আপনাকে আপনার চার্জার পরিবর্তন করতে হবে অথবা ব্যাটারি পরীক্ষা করাতে হবে। ব্যাটারি ঠিক থাকলে সঠিক চার্জার যারা চার্জ করলে ব্যাটারি চার্জ অবশ্যই ফুল হবে।

নতুন ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার নিয়ম

যদি আপনি একটি নতুন মোবাইল ক্রয় করে থাকেন তখন অবশ্যই আপনার মোবাইলের ব্যাটারিটি নতুন থাকে। 

এছাড়াও যখন আপনি আপনার জন্য একটি নতুন ব্যাটারি ক্রয় করেন তখন আপনার উচিত ব্যাটারিটি কে সঠিক উপায়ে চার্জ করা।

 নতুন ব্যাটারি কে প্রথমে 100% চার্জ হওয়ার জন্য সময় দিতে হবে। 

প্রথম অবস্থায় দুই থেকে তিনবার মোবাইলের ব্যাটারি 100% চার্জ দিবেন।  

এরপর আপনার ব্যাটারি শিক্ষানীতিতে আপনাকে আমাদের দেখানো “মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়” পদ্ধতি গুলো মেনে চলা উচিত।

আরও পড়ুনঃ

কম্পিউটার কি? কম্পিউটার কাকে বলে | Computer কে আবিষ্কার করেন

অঙ্গীকারনামা লেখার নিয়ম | অঙ্গীকারনামা চুক্তি পত্রের নমুনা

জন্ম সনদ যাচাই করণ পদ্ধতি 2022 | জন্ম সনদ তথ্য যাচাই ও ডাউনলো

উপসংহারঃ

আজকের আর্টিকেল জুড়ে জানাতে চেষ্টা করেছি কিভাবে মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখা যায়।

এখানে দেখানো “মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়” বিষয়গুলি মেনে চললেই আপনার মোবাইলের ব্যাটারির সার্ভিস কয়েক গুন বেড়ে যাবে।

আশা করছি, এরপর আর আপনাদের মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখা সম্পর্কে অন্য কোনো আর্টিকেল পড়তে হবে না।

আমাদের সাথে থাকতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন এবং চোখ রাখুন আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে।

Leave a Comment

fifteen + 17 =