২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস? | ২১ শে ফেব্রুয়ারি ইতিহাস

সুপ্রিয় পাঠক ২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস সেই সম্পর্কে জানতে আপনারা অনেকেই গুগল সার্চ করে থাকেন। আজ আমরা এই গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাদের জানাবো ২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস এবং একুশে ফেব্রুয়ারি সম্পর্কে সকল বিস্তারিত তথ্যগুলো।

বাঙালি জাতির জন্য অন্যান্য সকল ইতিহাস গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি ইতিহাস হচ্ছে একুশে ফেব্রুয়ারীর ইতিহাস। আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন ২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস এবং এর পাশাপাশি বাঙালি জাতির জন্য এ দিবসটি কতটা গুরুত্বপূর্ণ।

বাংলাদেশ দেশটি জন্মের পূর্বে কতই না সাধনা এবং রক্ত দিতে হয়েছিল এদেশের মানুষকে। সেই সকল ইতিহাস গুলোর সঙ্গে সরাসরি ভাবে জড়িত একুশে ফেব্রুয়ারি তে পালিত দিবসটি।

২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস সে সম্পর্কে জানতে হলে আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ার অনুরোধ রইল। 

২১ শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস
একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

প্রিয় পাঠক আপনারা হয়তোবা ইতিমধ্যে জেনে গিয়েছেন ২১ শে ফেব্রুয়ারি হচ্ছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস সেটি হয়তো আপনারা জেনে গিয়েছেন।

এ দিবসকে কেন্দ্র করে বাঙালি জাতির রয়েছে ঐতিহ্য এবং নানান ধরনের ইতিহাস।

এই সকল ইতিহাস গুলোর মধ্যে অন্যতম ১৯৫২ সালের একুশে ফেব্রুয়ারির সেই ঘটনাটি।

সেদিন রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে রাস্তায় আন্দোলনে নেমেছিল রফিক, বরকত, জব্বার, শফিউরসহ নাম না জানা আরো হাজারো তরুণ তরুণী।

সে সময় যখন পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীরা দোষ জুলুম করে এই বাংলায় উর্দু ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চেয়েছিল।

ঠিক সেই সময় আন্দোলনে নেমেছিল বাংলার দামাল এই সৈনিকরা এবং রাষ্ট্রভাষা বাংলা করার দাবিতে সেদিন ১৪৪ ধারা জারি করার সত্বেও রাস্তায় নেমেছিল তারা।

সেদিনের পুলিশের গুলিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে মুখ থুবড়ে পড়েছিল বাংলার দামাল ছেলেদের লাশ।

তবে হার মেনে যায়নি বাঙালিরা একের পর এক আন্দোলন পাকিস্তানিদের করে তুলেছে ছন্নছাড়া।

তারা বাধ্য হয়ে এদেশের রাষ্ট্রভাষাকে বাংলা করতে বাধ্য হয়েছিল। সেদিন বাঙালি পেয়েছিল এক অনন্য উচ্চতার দাবিদার।

আজ পর্যন্ত ভাষার জন্য কোন দেশ রক্ত দেয়নি একমাত্র বাংলাদেশ ছাড়া।

এদেশের মানুষ বাংলাকে ভালোবেসে বাংলা ভাষাকে ভালবেসে রক্ত দিয়ে নিজের জীবনকে উজাড় করে দিয়েছে।

আজ সেই বাংলা ভাষায় আমাদের দেশে আমরা রাষ্ট্রভাষা হিসেবে কথা বলি বই লিখি।

ডিসকাউন্টে সকল সিমের মিনিট, ইন্টারনেট ও বান্ডেল অফার
ক্রয় করতে DESH OFFER সাইটে ভিজিট করুন।

সেদিন যদি তারা আমাদের জন্য এই আত্মত্যাগ না করতো তাহলে হয়তো আমরা কখনোই বাংলা ভাষা কিংবা আমাদের মায়ের ভাষাকে নিজেদের রাষ্ট্রভাষা হিসেবে পেতাম না।

১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর জাতিসংঘ থেকে ২১ শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পায়।

অর্থাৎ এই একুশে ফেব্রুয়ারি কে কেন্দ্র করে পুরো পৃথিবী জুড়েই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়ে থাকে।

বাংলাদেশের পাশাপাশি অন্যান্য দেশগুলোতেও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়। 

২১ শে ফেব্রুয়ারি নিয়ে কিছু কথা | ২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস

২১ শে ফেব্রুয়ারি নিয়ে কিছু কথা
২১ শে ফেব্রুয়ারি নিয়ে কিছু কথা

ইতিমধ্যেই আপনারা জানতে পেরেছেন ২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস।

একুশে ফেব্রুয়ারি হচ্ছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস এবং নিজের দেশের ভাষাকে এই দিনটিতে সম্মান দিয়ে সকলেই এই দিবসটি পালন করে থাকে।

শুধু বাংলাদেশেই নয় বর্তমানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে গিয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের শুভেচ্ছা এবং সকল কার্যক্রম গুলো পুরো বিশ্বে করা হয়ে থাকে।

এই দিনটিতে সকলেই সকলের মায়ের ভাষাকে সম্মান জানায় শ্রদ্ধা জানাই এবং বাঙ্গালীদের প্রতি সকলেই একটি বড় স্যালুট জানায়।

ডিসকাউন্টে সকল সিমের মিনিট, ইন্টারনেট ও বান্ডেল অফার
ক্রয় করতে DESH OFFER সাইটে ভিজিট করুন।

তবে বর্তমান সময়ে আমরা নিজের দেশের ভাষার থেকে অন্যান্য দেশের ভাষা গুলোকে প্রাধান্য বেশি দিয়ে থাকি।

বিশেষ করে ইংরেজি ভাষাকে প্রাধান্য দেই যেটি আমাদেরকে ইন্টারন্যাশনাল ভাষা বলা হয়ে থাকে।

আমরা ইন্টারন্যাশনাল ভাষাগুলোকে প্রাধান্য দিতে গিয়ে নিজেদের ভাষার মর্যাদাকে ওই সকল ভাষার থেকে নিম্নে রাখে।

মাঝে মাঝে কিছু কিছু জায়গায় আমরা দেখতে পাই যে নিজেদের মায়ের মুখের ভাষাটি বলতে আমাদের দ্বিধাবোধ করতে হয়।

আমরা মনে করি হয়তোবা এই জায়গাটি আমাদের মায়ের ভাষায়  কথা বলার জায়গা নয়। তবে আসলেই কি তাই।

আমরা কি মন খুলে আমাদের মায়ের ভাষা থেকে কারো সামনে বলতে পারব না।

না একজন বাঙালি হিসেবে অবশ্যই আমাদের মায়ের ভাষাটিকে সর্বোচ্চ স্থান দিয়ে সকল জায়গায় বলতে হবে।

আজ যদি আমরা ইন্টারন্যাশনাল ভাষা গুলোকে ব্যবহার না করে নিজেদের মায়ের ভাষাকে ব্যবহার করি তাহলে কেমন হয়।

ইন্টারন্যাশনাল ভাষার অবশ্যই প্রয়োজনীয়তা রয়েছে তবে সেটি যেখানে প্রয়োজন ঠিক সেখানেই ব্যবহার করতে হবে।

এটি হলে কেমন হয়?

আমরা চাইবো অবশ্যই আমাদের মায়ের ভাষাটিকে আমাদের মাতৃভাষাটিকে সর্বোচ্চ স্থানে রেখে শ্রদ্ধার সঙ্গে সকলের সামনে যেন আমরা বলতে পারি।

আরও পড়ুনঃ

ব্যবহারের দিক দিয়ে বাংলা ভাষার অবস্থান কত?

বাংলা ভাষা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস কবে স্বীকৃতি পায়?

রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদ কবে গঠিত হয়?

২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস FAQS

২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস?

একুশে ফেব্রুয়ারি হচ্ছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস।

কত সালে ভাষা আন্দোলন হয়?

১৯৫২ সালের ২১ শে ফেব্রুয়ারি ভাষা আন্দোলন হয়।

২১ শে ফেব্রুয়ারিকে কবে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণা করা হয়?

১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর জাতিসংঘ থেকে ২১ শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পায়।

উপসংহার 

২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস? সে সম্পর্কে আমরা সকল তথ্য আপনাদের জানিয়েছি।

যে ভাষার জন্য বাঙালি জাতের অন্যতম মেধাবী শিক্ষার্থীগুলো কিংবা বাঙালি জাতীয় জীবনের বিশেষ কিছু মানুষ জীবন দিয়েছেন সে ভাষাকে কি আমরা প্রাধান্য দেব না?

২১ শে ফেব্রুয়ারি কি দিবস কি দিবস সেটি যদি এখনো পর্যন্ত আপনারা না জেনে থাকেন আমরা আশা করব আজকের এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন করার মাধ্যমে আপনারা বুঝতে পেরেছেন।

শুধুমাত্র ২১ শে ফেব্রুয়ারি তে আমরা নিজেদের মাতৃভাষার কথা মনে করব না।

প্রতিটি দিনেই যেন নিজেদের মাতৃভাষার কথা নিজেদের মাতৃভাষা পাওয়ার জন্য বাঙালি জাতির অবদানের কথা আমাদের মনে থাকে সে বিষয়ে খেয়াল রাখা আমাদের প্রত্যেকের উচিত।

আশা করছি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আপনাদের সকলেরই ভালো কাটবে।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়ে আজকের এই আর্টিকেলটি এখানেই শেষ করছি।

আশা করব আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগেছে এবং আপনারা খুব সহজেই জেনে গিয়েছেন যে একুশে ফেব্রুয়ারি হচ্ছে আমাদের মাতৃভাষা দিবস।

আপনাদের যদি এ বিষয়ে আরো কোন প্রশ্ন কিংবা মতামত থাকে তাহলে সেটি আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাবেন।

এছাড়াও আপনারা যারা আরও গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলগুলো পড়তে চাইছেন তারা অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন।

আমাদের ওয়েবসাইটের সকল তথ্যগুলো সবার আগে পেয়ে যেতে চোখ রাখতে পারেন আমাদের ফেসবুক পেইজে

ধন্যবাদ।

আরও পড়ুনঃ

ভাষা শহীদদের সম্পর্কে ১০টি বাক্য

নিপাতনে সিদ্ধ সন্ধি কোনটি?

বাক্যের ক্ষুদ্রতম একক কোনটি?

কমদামে মিনিট, ইন্টারনেট ও বান্ডেল অফার কিনতে ভিজিট করুনঃ এখানে ক্লিক করুন
ডিজিটাল টাচ ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ এই পেজ ভিজিট করুন
ডিজিটাল টাচ সাইটে বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে যোগাযোগ করুনঃ এই লিংকে
অনলাইনে টাকা ইনকাম সম্পর্কে জানতে ভিজিট করুনঃ www.digitaltuch.com সাইট ।

Leave a Comment