অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম | কিভাবে অনলাইন ব্যবসা করবেন

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে আজকে আপনাদের বলবো। বর্তমানে অনলাইনে শপিং ব্যবসার ব্যাপক প্রসার হচ্ছে বাংলাদেশে। আপনিও কি জানতে চান কিভাবে অনলাইন ব্যবসা করবেন।

বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক অনলাইন ব্যবসা সেটা হতে পারে শপিং থেকে শুরু করে যে কোন ব্যবসা। এখন একজন লোক চাইলেই অনলাইনে নিজের ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

কিভাবে অনলাইন ব্যবসা করবেন এই বিষয়ে আমেদের দেশে বেশ কিছু মত পার্থক্য রয়েছে। একেক জন একেক কথা বলে থাকেন।

এমনও লোক রয়েছেন যারা অনলাইন ব্যবসা হালাল কি হারাম না হালাল এই সম্পর্কেও প্রশ্ন তুলেছেন।

অথচ তারা নিজেরাই জানেনা তারা প্রতিদিন কি পরিমান হালাল Or হারাম কাজ করে ছলেছেন।

মনে রাখবেন ব্যবসা সবসময় হালাল যদি আপনি সৎ ভাবে ব্যবসা করেন সেটা হতে পারে অনলাইনে কিংবা অফলাইন ব্যবসা।  

যাই হোক কে কি বলে তা দেখার প্রয়োজন নাই। কেননা এখন সকলেই তাদের ব্যবসা অনলাইনে নিয়ে আসার চেষ্টা করছে।

আপনি কি আপনার অনলাইনে করতে চাচ্ছেন। তাহলে আমাদের সাথে থাকুন এবং জেনে নিন অনলাইনে ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে।

অনলাইনে ব্যবসা প্রসারের মূল কারণ হচ্ছে ইন্টারনেট ব্যাবহার। কেননা বর্তমানে সমগ্র বিশ্বে ইন্টারনেটর ব্যাবহার দিনে দিনে বেড়ে চলেছে। সেই সাথে বাড়ছে অনলাইনে শপিং করার প্রবণতা।

তাই এখেন আপনাকে অনলাইনে ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে জানানো হল।

এখন গুগল অনলাইন ব্যবসা বাড়ানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে। গুগল অনলাইনে ব্যবসা করার জন্য লোকজনকে ট্রেনিং দিচ্ছে। আপনি চাইলে Google online business course join করতে পারেন। 

Contents hide

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম | কিভাবে অনলাইন ব্যবসা করবেন

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম  কিভাবে অনলাইন ব্যবসা করবেন 
অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম

বন্ধুরা বর্তমানে বাংলাদেশের 40 লাখের মতো বেকার যুবক রয়েছে। অনেকে অফলাইনে ব্যবসা করে সফলতা পাচ্ছেন না অথবা তারা কিভাবে অনলাইন ব্যবসা করবেন এই বিষয়ে জানতে আগ্রহী।   

তারা অনলাইনে ব্যবসা করার নিয়ম পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে চাচ্ছে, আবার অনেকে টাকা লিগিয়ে প্রতারিত হচ্ছে। এমন কথা শুনা যাচ্ছে প্রায়ি। 

আবার অনলাইনে ব্যবসা করে নিজেকে ভালো অবস্থানে নিয়ে গেছে এমন উদাহরনও রয়েছে।

অনলাইনে কিংবা অফলাইনে ব্যবসা পরিচালনার করতে গেলে অনেক বাধার সম্মুখীন হতে হয় একজন উদ্যোক্তাকে। 

অনলাইনে ব্যবসা করার ক্ষেত্রে অনেকেই তাদের জ্ঞানকে কাজে লাগাননা, অন্যের কথায় তারা টাকা invest করে থাকেন। নিজেকে অন্ধকারে দেখতে পান তাই জানুন কিভাবে অনলাইন ব্যবসা শুরু করবেন। 

তার মূল কারন হচ্ছে অনলাইনে ব্যবসা সম্পর্কে সঠিক দিক নির্দেশনা এবং সঠিক জ্ঞানের অভাব।

অনলাইনে ব্যবসা বা অনলাইনে আয় সম্পর্কে এখন দেশে অনেক অসাধু লোক রয়েছেন যারা আমাদের ভুল পদ্দতি সম্পর্কে জানান দেন। 

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়মের প্রথম পদক্ষেপ

অনলাইন ব্যবসার নাম
অনলাইন ব্যবসার নাম

প্রথমে আপনাকে নির্ধারণ করতে হবে আপনি অনলাইনে কি ধরণের ব্যবসা করতে চাচ্ছেন।

কেননা আপনি যে ব্যবসাই করেন না কেন আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী থাকবে অনলাইনে।

যেমন Online Shopping, Online Result, Online Texi Booking, Online Recharge ইত্যাদি সকল ব্যবসাই এখন অনলাইনে হচ্ছে।

আপনি 2 ধরণের অনলাইন ব্যবসা পদ্দতি নির্ধারণ করতে পারেন। একটি হল আন্তর্জাতিক মার্কেট এবং একটি হল আপনার দেশের মধ্যে।

প্রথেকে আপনাকে যা করতে হবে-

  • কি ধরণের ব্যবসা করবেন তা নির্ধারণ ও তথ্য সংগ্রহ করা।
  • যে ব্যবসা আপনি করবেন সেই ব্যবসায় বর্তমানে যারা রয়েছেন তাদের সম্পর্কে জানুন। তারপর আপনার ব্যবসাইয়িক পরিকল্পনা অনুসারে কাজ করুন।
  • আপনারা ব্যবসাকে প্রমোট করতে কি ধরণের কাজ করতে হবে তার ধারনা অর্জন করুন।

প্রথম পর্বঃ অনলাইন ব্যবসায় পণ্য বা সার্ভিস নির্ধারণ 

আপনাকে প্রথমেই বলে রাখি একটি অনলাইন ব্যবসা আপনি সারা বিশ্বে পরিচালনা করতে পারবেন এবং ব্যবসা ঠিকভাবে পরিচালনা করতে পারলে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

এবং অনলাইন ব্যবসা কররা ক্ষেত্রে আপনার অনেক সমস্যা আসতে পারে।

আপনি অনলাইনে যেকোন পণ্য বিক্রি করেন না-কেন আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী থাকবেই। তাই অনলাইন ব্যবসা করার গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম হচ্ছে সঠিক পণ্য নির্বাচন করা।

আপনাকে এমন পণ্য সেল করার দিকে নজর দিতে হবে যে সকল পণ্য বা সেবায় প্রতিযোগিতা কম।

এজন্য আপনাকে আগেই বলেছি আপনাকে ইন্টারনেটে আপনার পণ্য সম্পর্কে আপনাকে অনেক তথ্য সংগ্রহ করতে সেই সকল বিষয়ে জানতে হবে।

আশা করি উপরোক্ত আলোচনা থেকে নিশ্চয়ই বুজতে পেরেছেন যে আপনাকে অনলাইন ব্যবসা করতে যে পণ্য বা সেবার প্রতিযোগিতা কম এবং সেল পাওয়া যাবে এমন পণ্য নির্বাচন করতে হবে।

দ্বিতীয় পর্বঃ নিজের অনলাইন ব্যবসা রেজিস্টার করা

এমন অনেক ক্ষুদ্র অনলাইন ব্যবসা রয়েছে যে ব্যবসা রেজিস্টার করা ছাড়ও চলে।

অনেকেই একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করে অনলাইন ব্যবসা পরিচালনা করছেন।

এমন অনলাইন ব্যবসাকে অনেকেই ভরশা করেন না। তাই সফলতার সংগে অনলাইন ব্যবসা পরিচালনা করতে আপনাকে রেজিস্টার করতে হবে।

তবে আমি বলছি না আপনি ব্যবসা শুরু করবেন রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করে।

তবে আপনি রেজিস্ট্রেশন করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে সঠিক সেবা প্রদান করার মাধ্যমে এগোতে থাকেন, যখন আপনার কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ স্কোপ আপনার ব্যবসায় আছে বলে মনে হবে, তখন আপনার ব্যবসা আপনার জন্য লাভজনক হচ্ছে।

তখন আপনি আপনার ব্যবসার দিকে রেজিস্টার করেন এতে করে আপনার গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে এবং সেবার মান নিয়েও লোকেদের মধ্যে খুব বেশি দ্বিধা কাজ করবে না।

আর অনলাইন ব্যবসা রেজিস্টার করার পূর্বে ভালকরে প্লানিং করে নিন।

আমাদের দেশে দারাজ, ফডপান্ডা রেজিস্টার করেই অনলাইন ব্যবসা করছে। তাই সামনের দিন গুলিতে আপনার পণ্যের প্রসারে এবং সফল ব্যবসা করতে আপনাকে এই কাজটি করতে হবে।

Note: সঠিক প্লান না থাকলে আপনি কখনোই ব্যবসা করে সফল হতে পারবেন না।

তৃতীয় পর্বঃ ব্যবসায়ীক ডোমেন নেম রেজিস্ট্রেশন 

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম হচ্ছে আপনার কোন ওয়েবসাইট থাকবে, সেখানে আপনার পণ্য সম্পর্কে বিবরণ থাকবে। গ্রাহক কিভাবে পণ্য ক্রয় করতে পারেন, কিভাবে পেমেন্ট করবেন ইত্যাদি বর্ণনা করা থাকবে।

এই সকল কাজ করতে হলে আপনার পণ্য বা সেবার সাথে মিল রেখে একটি ব্যবসায়ীক ডোমেন নেম রেজিস্টার করতে হবে।

এবং লক্ষ্য রাখতে হবে লোক যাতে আপনার ডোমেন নেম সহজে মনে রাখতে পারে। আপনি দেশের অথবা বিদেশি যে কোন কোম্পানি থেকে ডোমেন ক্রয় করতে পারনে।

চতুর্থ পর্বঃ ওয়েব হোস্টিং ক্রয়

ইন্টারনেটে আপনার ওয়েবসাইট সেটাপ করতে হলে আপনাকে অবশ্যই কোন ভালো হোস্টিং কোম্পানি থেকে হোস্টিং ক্রয় করতে হবে।

বর্তমানে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস বা অন্য কোন CMS সিস্টেম দিয়ে আপনার ওয়েবসাইট সাজাতে পারেন।

ইন্টারনেট খুজলে আপনি অনেক ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি খুঁজে পাবেন। আমি আপনাকে বলবো আপনি Hostgator বা Bluehost ব্যাবহার করতে পারনে।

পঞ্চম পর্বঃ কিভাবে কিভাবে অনলাইন ব্যবসা করতে অনলাইন স্টোর তৈরি করবেন

গ্রাহকদের আকৃষ্ট করতে আপনাকে গুড-লুকিং এবং প্রফেশনাল একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে।

এটা জরুরী না আপনি কোন ধরণের CMS ব্যাবহার করছেন, আপনার সাইট professional website টের মতো দেখতে হবে।

professional website তৈরি করতে আপনি ভালো ওয়েব ডেভেলপারের সাহায্য নিতে পারেন।

বর্তমান সময়ে বেশিরভাগ লোক মোবাইল থেকে অনলাইনে কেনা কাটা করে থাকে।

তাই আপনাকে professional মোবাইল Friendly ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে এবং লক্ষ্য রাখতে হবে যাতে আপনার সাইটটি ইউজার সহজে নেভি-গেট করতে পারে।

ষষ্ঠ পর্বঃ অনলাইন ব্যবসায় পেমেন্ট পদ্দতি

অনলাইন ব্যবসা করতে আপনাকে নির্দিষ্ট কোন পেমেন্ট পদ্দতি নিতে হবে।

যদি আপনার অনলাইন ব্যবসা আন্তর্জাতিক মার্কেট প্লেসে হয় তবে paypal marcent নিতে পারেন।

আপনি বাংলাদেশে অনলাইন ব্যবসা করতে হলে দেশীয় পেমেন্ট পদ্দতি গ্রহণ করতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ 

সপ্তম পর্বঃ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জয়েন

প্রিয় পাঠক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আপনার অনলাইন ব্যবসা করার ক্ষেত্রে বর্তমানে ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করতে পারে।

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম হচ্ছে আপনি যত বেশি সম্ভব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপনার ব্যবসার প্রচার করতে পারেন, আপনার ব্যবসাইয়িক গ্রোথ বেশি হবে।

অষ্টম পর্বঃ অনলাইন ব্যবসায় Website SEO

অনলাইন ব্যবসায় করার নিয়ম
অনলাইন ব্যবসায় করার নিয়ম

কিভাবে অনলাইন ব্যবসা করবেন এবং আরও বেশি লোকেদের কাছে পৌঁছাবেন আপনার পণ্য বা সেবা এমন প্রশ্ন অনেকেরি।

এই কাজটি করতে হলে আপনাকে SEO ( Search Engine Optimization) করতে হবে।

এসইও করেই আপনি আরও বেশি লোকেদের কাছে আপনার পণ্য পৌছাতে পারবেন।

কেননা এসইও করে গুগল রেঙ্কিং পেলে আপনি অরগানিক ভিজিটর পাবেন।

নবম পর্বঃ Website টের Advertisement করেন 

বন্ধুরা আপনি যদি অরগানিক ভাবে আপনার পণ্য বা সেবা সাধারণ মানুষের কাছে পৌছাতে না পারেন তবে আপনার Website টের Advertisement কতে পারেন। 

এতে আপনার কিছু টাকা খরচ হবে তবে লোক আপনার পণ্য সম্পর্কে জানতে পারবে।

কিছু কথা অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে আপনি এতক্ষণে যতটুক জেনেছেন এর সবগুলো পদক্ষেপই আপনাকে অনুসরণ করতে হবে। 

সেই সাথে অনলাইনে ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য আপনাকে প্রচুর ধৈর্য ধারণ করতে হবে।  কেননা প্রাথমিক ব্যবসা প্রসারের লক্ষ্যে আপনাকে সময় ও অর্থ ব্যয় করা জরুরি হবে।

যখন আপনি আপনার ব্যবসা থেকে সেল করতে পারবেন তখন আপনি আপনার খরচ পুষিয়ে নিতে পারবেন।

দশম পর্বঃ অনলাইন ব্যবসাকরতে ধৈর্য ধারন করা

বন্ধুরা আপনাদের অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে ৯ টি গুরুত্বপূর্ণ পর্ব সম্পর্কে বলেছি।

যদিও কথাটি আপনাকে আরও আগে বলার প্রয়োজন ছিল কিন্তু বলা হয়নি।

কেননা আপনাকে আগে জানতে হবে যে আপনি কোন কোন স্টেপ মানবেন, কেননা ব্যবসা যেখানেই করেন না কেন আপনাকে ব্যবসায় ধৈর্য ধারন করতে হবে।

ধৈর্য হারালে চলবেনা, কেননা আপনার পণ্য বা সেবার মান ভালো হলে সময় লাগতে পারে কিন্তু ব্যবসায় চলবেই।

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম সুবিধা সম্পর্কে

বন্ধুরা অনলাইন ব্যবসা করার শুবিধা সমূহের মধ্যে হচ্ছে কম সময়ে সারা বিশ্বের লোকের কাছে নিজের পণ্য পৌঁছে দেয়া এবং বেশি মুনাফা অর্জন করা।

সেই সাথে এমন অনেক অনলাইন লাভজনক ব্যবসা রয়েছে যেখানে আপনাকে পণ্য মজুদ ও ইনভেস্ট করার কোন প্রয়োজন পড়বে না। 

আপনি শুধু এডভার্টাইজিং এর মাধ্যমে অন্যের পণ্য সেল করবেন এবং টাকা আয় করবেন। এভাবে অনেকেই অনলাইন ব্যবসা করে থাকেন। 

এই ক্ষেত্রে আপনার কোনো ধরনের টেনশন নেই বললেই চলে শুধু আপনি আপনার টেকনিক ব্যবহার করে অনলাইনে ব্যবসা করে যাবেন।

আরও পড়ুনঃ 

বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক অনলাইন ব্যবসা

বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা
বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে অনেকে জানার পর চিন্তা করছেন বর্তমানে বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা কোনটি।

বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা সম্পর্কে জানার পূর্বে আপনাকে জানা জরুরী যে আপনি কোন বিষয়ে ভালো জানেন ঐ বিষয়ের উপরে আপনি কতটুকু দক্ষ এবং ওই বিষয়ে আপনার আশেপাশে কি ধরনের পণ্য সেল করার উপযুক্ত রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে ধারণা নেওয়া।

বাংলাদেশে বেশ কিছু জনপ্রিয় অনলাইন শপিং প্লাটফর্ম রয়েছে। আপনি চাইলে সে সকল অনলাইন প্লাটফর্ম গুলো ভিজিট করে আপনার পছন্দের পণ্যটি নির্বাচন করতে পারেন।

তবে আপনি নিজে যদি কোনো সেবা প্রদানের মাধ্যমে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে চানতবে আপনার উচিত হবে কোনো সেবা চালু করা।

বাংলাদেশে অনলাইনে করা যায় এমন ব্যবসা গুলি হচ্ছে

  • এজেন্সি মডেল ব্যবসা।
  •  ড্রপ শিপিং ব্যবসা
  •  অনলাইনে কাপড়ের ব্যবসা

আরও পড়ুনঃ 

ফেসবুকে অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম

ফেসবুকে অনলাইন ব্যবসা
ফেসবুকে ব্যবসা করার নিয়ম

যতই দিন যাচ্ছে বিভিন্ন সোশ্যাল মার্কেটপ্লেস গুলো ব্যবহার করে লোকেরা অনলাইন ব্যবসা করে যাচ্ছেন। অনলাইন ব্যবসায় দ্রুত সেল পেতে আপনাকে সোশ্যাল মিডিয়া গুলো ব্যবহার করতে হবে।

কেননা বর্তমানে প্রায় প্রতিটি লোকে কোনো না কোনো সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করছে তাদের নিত্যদিনের সঙ্গী হিসেবে।

এখন আপনার অনলাইন ব্যবসার প্রসার করার লক্ষ্যে আপনাকে অবশ্যই আপনার টার্গেট অডিয়েন্স কোন সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশি সময় ব্যয় করে তা খুঁজে বের করতে হবে।

এখানে টার্গেট অডিয়েন্স হচ্ছে কোন কোন গ্রাহক আপনার পণ্য ক্রয় করতে পারে এমন লোককে খুঁজে বের করা।

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ফেসবুক অনলাইন ব্যবসা করার জন্য খুবই উপযুক্ত একটি প্ল্যাটফর্ম।  কেননা বাংলাদেশের লোকেরা প্রচুর সময় ফেসবুকে ব্যয় করে থাকে।

যেকোনো ক্ষুদ্র ব্যবসা খুবই সহজে আপনি ফেসবুকের মাধ্যমে প্রচার করতে পারবেন এবং গ্রাহক নিয়ে আসতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনাকে অনলাইনে ফেসবুকে ব্যবসা করার জন্য একটি ফেসবুক পেজ খুলতে হবে।  উক্ত ফেসবুক পেজে আপনি আপনার পণ্যের প্রচার প্রচারণা চালাবেন রেগুলার। 

রেগুলার আপনার পণ্যের প্রচার প্রচারণা চালালে লোকেরা আপনার পণ্যটি সম্পর্কে ধারণা পাবে এবং আপনার পণ্য ক্রয় আগ্রহী হবে।

এছাড়াও আপনি ফেসবুকের বুষ্টিং এর মাধ্যমে আপনি আপনার পেজকে সহজেই বুস্ট করতে পারবেন এবং যথেষ্ট পরিমাণ অডিয়েন্স আপনার ফেসবুকে নিয়ে আসতে পারবেন খুবই কম সময়ের মধ্যে এবং কম খরচে।

তাই বর্তমানে যতই দিন যাচ্ছে ধীরে ধীরে ফেসবুকে ব্যবসার প্রসার বাড়ছে এবং লোকেরা ফেসবুক ভিত্তিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলছে অনলাইনে।

আপনি কেন দেরি করছেন আপনি চাইলে এখনই আমাদের দেখানো পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করে নিজের অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন। 

আরও পড়ুনঃ 

উপসংহার 

আশা করি আপনি অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। কিভাবে অনলাইন ব্যবসা শুরু করবেন আশা করি এই সম্পর্কে আপনার আর কোন মন্তব্য থাকবে না।

বন্ধুরা অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম সম্পর্কে আরও কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করুন।

নতুন নতুন বিষয়ে নিয়মিত পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ জয়েন করুন।

বর্তমানে ২০২২ অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম ও প্রশ্ন 

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম কি?

অনলাইন ব্যবসা করার নিয়ম হচ্ছে সঠিক ক্যাটাগরিতে সঠিক পণ্য বা সেবা টি নির্বাচনের মাধ্যমে অনলাইনে প্রচার-প্রচারণা করা এবং আমাদের দেখানো পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করে নিজের অনলাইন ব্যবসাকে প্রতিষ্ঠিত করা।

কিভাবে অনলাইন ব্যবসা শুরু করব?

অনলাইন ব্যবসা শুরু করার জন্য প্রথমেই আপনাকে এই সম্পর্কে ধারণা নিতে হবে। প্রথমে আপনি আপনার ব্যবসার আইডিয়া বা ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন তারপর অন্যরা যেভাবে ব্যবসাটি পরিচালনা করছেন তা সম্পর্কে ধারনা নিয়ে আপনি আপনার অনলাইন ব্যবসা শুরু করুন।

Leave a Comment

10 − 4 =