নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম | নতুন ভোটার নিবন্ধন ২০২১

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম সম্পর্কে আপনি কি জানতে চান। আপনার বয়স যদি 16 হয়ে থাকে, তবে এখনই আপনি জাতীয় পরিচয় পত্র বা বাংলাদেশের নতুন ভোটার নিবন্ধন ২০২১ রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। অনলাইনে নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম সম্পর্কে এখানে আপনাদের বিস্তারিত জানানো হবে।

সেই সাথে শুধু জাতীয় পরিচয়পত্র নয় আপনি বাংলাদেশের ভোটার হতে পারবেন এই পদ্ধতি অবলম্বন করে।

NID BD Helpline Number

এখানে আপনাদের দেখাবো, অনলাইনে কিভাবে ভোটার হওয়া যায় কিভাবে, আপনি নিজেই এখন মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্যাবহার করে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য নিবন্ধন (NID Online Registration) করবেন।

অনলাইনে নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

নতুন ভোটার নিবন্ধন
নতুন ভোটার নিবন্ধন

মনে রাখবেন ভোটার তালিকা হালনাগাদ একটি চলমান প্রক্রিয়া। বাংলাদেশে জন্ম গ্রহণকারী যে কেউ বাংলাদেশের নাগরিক।

আপনি বাংলাদেশের কোন এলাকায় বসবাস করছেন, কিন্তু এখনও ভোটার হিসেবে নিবন্ধিত হননি এবং আপনার বয়স যদি ১৬ বছর হয়ে থাকে, তাহলে আপনি আপনার বসবাসকারী সংশ্লিষ্ট উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসে যোগাযোগ করে আপনার এলাকার সিডিউল মোতাবেক ভোটার আইডি ফরম পূরণ করে ভোটার হতে পারবেন।

বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয় পত্র তৈরি করতে আপনি অনলাইনে যেকোনো সময় আইডি কার্ড নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে পারেন।

এখন অনলাইনে ফর্মটি পূরণ করে নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম রয়েছে এবং সরসরি নিজ এলাকায় জেলা/উপজেলা অফিসে উপস্থিত হয়ে আবেদন করতে  পারবেন।

How to add bkash priyo number 

জন্ম নিবন্ধন যাচাই

বাংলাদেশের নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম ও তৈরি করার যোগ্যতা

  • আপনাকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • আপনার বর্তমান বয়স এখন ১০ বছরের কম নয়।
  • পূর্বে জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য নিবন্ধন করা হয়নি।

বাংলাদেশের ভোটার হওয়ার সময় আপনার কিছু কাগজপত্র সংযুক্ত করার প্রয়োজন হবে, যা নিন্মরুপ-

  • এস.এস.সি সনদ – (বয়স প্রমানের সনদ)
  • জন্ম নিবন্ধন -(বয়স প্রমানের সনদ)
  • পাসপোর্ট / ড্রাইভিং লাইসেন্স / টি.আই.এন -(বয়স প্রমানের সনদ)
  • ইউটিলিটি( বিদ্যুৎ/গ্যাস/পানি) বিলের কপি/বাড়ী ভাড়ার রশিদ/হোল্ডিং ট্যাক্স রশিদ – (ঐ এলাকায় সচরাচর বসবাস করেন এরুপ কোন প্রমান)
  • নাগরিকত্বের সনদ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)
  • আপনার নিজের জন্ম নিবন্ধন
  • বাবা, মা, স্বামী/স্ত্রীর আই.ডি কার্ডের কপি(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

এখানে উল্লেখিত সকল সনদ আপনার কাছে থাকতে হবে তা বাধ্যতামূলক নয়। তবে জন্ম নিবন্ধন ও মা/বাবার ভোটার আইডি থাকতে হবে।

উপরোক্ত সনদ সমূহের মধ্যে আপনার যদি বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের এস.এস.সি পাস করা সনদ থাকলেও চলবে।

BD Votar ID Card Online NID Registration

এমন প্রশ্ন এখন অনেকের মনে আমি নিজের জন্য ভোটার আইডি কার্ড কিভাবে বানাবো?

আপনি জেনে রাখুন এখন অনলাইনে বাংলাদেশর জাতীয় পরিচয়পত্র বা নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার আবেদন অত্যন্ত সহজ এবং সংক্ষিপ্ত একটি সহজ প্রক্রিয়া।

সহজে এবং নির্ভুল জাতীয় পরিচয় পত্র পেতে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য গুলি অনলাইনে দিয়ে আবেদন করুন এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আপনার নিকটস্থ নির্বাচন অফিসে জমা দিন।

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক আপনার আবেদনটি ভেরিফিকেশন শেষে আপনাকে ছবি ও আঙ্গুলের ছাপ দেয়ার জন্য ডাকা হবে এবং একই সাথে আপনাকে একটি ভোটার নিবন্ধন স্লিপ দেয়া হবে।

এরপর দশ থেকে পনের দিনের ( ১০-১৫ দিন) মধ্যেই আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের আবেদনটি অনুমোদিত হবে এবং আপনার করা আবেদন সম্পন্ন হলে আপনি অনলাইন থেকে পরিচয়পত্র ডাউনলোড করতে পারবেন।

জিপি মিনিট অফার

রবি মিনিট দেখার কোড

অনলাইনে নতুন ভোটার নিবন্ধন প্রক্রিয়া

প্রিয় বাংলাদেশি নাগরিক অনলাইনে নতুন জাতীয় পরিচয়পত্র ও ভোটার নিবন্ধন প্রক্রিয়া অনেক সহজ। তবে আপনাকে কিছু পদ্দতি অবলম্বন করতে হবে।

  1. NID Application System এ আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।
  2. ভোটার পার্থী কে ব্যক্তিগত তথ্য প্রদান করতে হবে।
  3. অনলাইনে আবেদন জমা দিতে হবে।
  4. সঠিক তথ্য দিয়ে আবেদন ভেরিফিকেশন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।
  5. সময় মত বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশান প্রদান (Biometric Information- Picture, Fingerprint)
  6. অতঃপর জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড/ সংগ্রহ

স্টেপ ১# অনলাইনে নতুন ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন

জাতীয় নির্বাচন কমিশন কর্তৃক প্রদত্ত ওয়েবসাইটে আপনি আপনার মোবাইল অথবা কম্পিউটার থেকে সহজেই আপনার ভোটার আইডি কার্ডের জন্য অনলাইন রেজিস্ট্রেশন করতে পারেন।

আপনার মোবাইলে পর্যাপ্ত ইন্টারনেট ডাটা থাকলে NID Online Registration  আপনার জন্য খুবই সহজ এবং নির্ভুল একটি পদ্ধতি।

বাংলাদেশের ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন নিবন্ধন তথ্য ভুল হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই কম.

কেননা এখানে সমস্ত তথ্য আপনি নিজের হাতে পূরণ করতে পারেন।  আপনার প্রদান করা তথ্য গুলোর উপর ভিত্তি করে পরবর্তীতে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র প্রদান করা হবে।

তাই অনলাইনে নতুন জাতীয় পরিচয় পত্র করার নিয়ম সমূহ ভালো ভাবে অনুসরণ করুন এবং আপনি সহজেই আপনার জন্য জাতীয় পরিচয় পত্রের  আবেদন করে নিতে পারবেন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম জনতে নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

১. নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম অনুসরনে একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

সরাসরি বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে এখানে Bangladesh NID Application System ক্লিক করুন।

নিচের ছবিতে দেখানো এমন একটি পেজ আপনি দেখতে পাবেন।

Bangladesh NID Application System
Bangladesh NID Application System

পূর্বে services.nidw.gov.bd সাইটে অ্যাকাউন্ট করা থাকলে নতুন ভোটার নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে করুন বাটনে ক্লিক করুন। অন্যথায় Account registration করে নিন।

রেজিস্ট্রেশন করতে আপনার নাম, জন্মতারিখ ও ক্যাপচা কোড সঠিক ভাবে লিখে বহাল(submit) বাটনে ক্লিক করুন।

তারপর আপনার মোবাইল নম্বর দিয়ে নাম্বারটি ভেরিফাই করুন। অবশ্যই আপনার কাছে বর্তমানে রয়েছে এমন মোবাইল নম্বরটি ব্যাবহার করবেন।

আপনাদের অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে আপনার মোবাইল নাম্বারটি প্রয়োজন হতে পারে তাই সব সময় চেষ্টা করুন নিউজ মোবাইল নাম্বারটি দিয়েই একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে।

এই পর্যায়ে আপনার প্রবেশ করানো মোবাইল নাম্বারটিতে ছয় সংখ্যার একটি ভেরিফিকেশন কোড চলে আসবে তা প্রদান করে বহাল (submit) বাটনে ক্লিক করুন।

অন্য সকলের থেকে ভিন্ন এবং একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড সেট করতে হবে আপনাকে। যে পাসওয়ার্ড এবং ইউজার নেম দিয়ে আপনি সেট করবেন তা মনে রাখুন ভবিষ্যতে লগ ইন করার জন্য।

মনে রাখবেন জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড সংশোধন ও অনলাইন আবেদন থেকে প্রায় অনেকগুলি কাজেই আপনি এই সাইটে রেজিস্ট্রেশন এর মাধ্যমে করতে পারবেন।

ইউজারনেম এবং পাসওয়ার্ড সবসময় ইংরেজিতে হবে। পাসওয়ার্ড সেট করার জন্য মিক্স সংখ্যা ও অক্ষর ব্যবহার করুন।  পাসওয়ার্ডটি সর্বনিম্ন সংখ্যার হতে।

যদি Username Already Exists মানে ইউজারনেম ইতোমধ্যে ব্যবহৃত হয়েছে এমন সমস্যা দেখায়, ইউজারনেম আংশিক পরিবর্তন করে পুনরায় চেষ্টা করুন।

মনে রাখবেন, আপনার দেয়া ইউজার নেম সকলের থেকে ভিন্ন হওয়া জরুরী, কেননা এক নাকে অনেকেই থাকতে পারেন।

তবে আপনি চাইলে আপনার নামের সাথে কিছু সংখ্যা যুক্ত করে একটি ভালো ইউজারনেম তৈরি করতে পারেন।

২. ব্যক্তিগত তথ্য প্রদান – নতুন ভোটার নিবন্ধন করতে আবেদন

জাতীয় পরিচয় পত্র নিবন্ধনের জন্য উল্লিখিত ওয়েব সাইটে রেজিস্ট্রেশন সফলভাবে সম্পন্ন হলে আপনার সামনে একটি ড্যাশবোর্ড চলে আসবে।

যদি না আসে তবে আপনি আপনার নির্বাচন করা ইউজারনেম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে সহজেই লগ-ইন করে নিন।

এখন আপনি আপনার  ব্যক্তিগত সকল তথ্যগুলো প্রদান করে নতুন একটি ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন এখান থেকে।

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

আবেদনটি অনুমোদিত হলে, আপনার দেয়া মোবাইল নম্বরে মেসেজ পাবেন এবং নির্বাচন কমিশন থেকে আবেদনটি অনুমোদিত হয়েছে এই সম্পর্কে আপনি এসএমএস পাবেন।

আপনার আবেদনটির সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে আপনি জানতে পারবেন NID Application System এর ড্যাশবোর্ড থেকে।

সফলভাবে আইডি কার্ডের আবেদনটি অনুমোদিত হলে, NID BD website ড্যাশবোর্ড এর ডান পাশ থেকে ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করে নতুন জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন।

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

আপনি যদি ইতিপূর্বে বাংলাদেশের ভোটার হয়ে থাকেন এবং বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক প্রদত্ত জাতীয় পরিচয় পত্র আপনাকে প্রদান করা হয়ে থাকে তবে আপনি একজন নাগরিক।

আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র যদি কোন ধরনের সমস্যা থাকে তবে অবশ্যই আপনি তা সংশোধন করতে পারবেন।

জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন করার জন্য আপনি অনলাইনে এবং অফলাইনে আপনি নিজস্ব এলাকায় থানা ও উপজেলা পর্যায়ে যোগাযোগের মাধ্যমে তা সহজেই করতে পারবেন।

তবে লোকেদের হয়রানি কমাতেই বর্তমানে অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন পদ্ধতি চালু রয়েছে.

আপনি চাইলে এই সংক্রান্ত তথ্যের জন্য ভিজিট করতে পারেন নির্বাচন কমিশন প্রদত্ত অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে।

উপসংহারে

আশা করি আপনি নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

আপনি যদি বাংলাদেশের নাগরিক হয়ে থাকেন এবং উপরোক্ত তথ্যাদি আপনার কাছে থাকে তবে নতুন ভোটার নিবন্ধন ২০২১ পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনি সহজেই ভোটার আইডি কার্ড তৈরি করতে পারবেন অনলাইন থেকে।

আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে আপনাদের জন্য টেলিকম অফার, মোবাইল ব্যাংকিং সেবা ও ইন্টারনেট সম্পর্কে নানা তথ্য শেয়ার করে থাকি.

ভালো লাগলে আমাদের পোস্টে লাইক ও শেয়ার করবেন।

অনলাইন দুনিয়া খবরা-খবার জানতে জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

GP ইন্টারনেট offer

Robi bundle offer

Airtel internet offer

1 thought on “নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম | নতুন ভোটার নিবন্ধন ২০২১”

Leave a Comment

5 − 1 =