ইন্টারনেট কে আবিষ্কার করেন? ইন্টারনেট এর জনক কে?

ইন্টারনেট কে আবিষ্কার করেন? প্রশ্ন এখন অনেক ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর মনে। Vint Cerf এবং Bob Khan সম্পূর্ণ নাম (Robert Elliot Kahn) নামের দুজন ব্যক্তি বিশ্বে প্রথমবারের মতো ইন্টারনেট আবিষ্কার করেন। অতএব এই দুই ব্যক্তিকে ইন্টারনেটের জনক হিসেবে মনে করা হয়। এই দুই ব্যক্তির সম্মিলিত প্রচেষ্টায় প্রথমবারের মতো একটি নেটওয়ার্ক কাজ শুরু করে, যাকে বর্তমান সময়ে আমরা ইন্টারনেট বলে সম্মোধন করছি।

1978 সালে, এই দুজনের সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে ট্রান্সমিশন কন্ট্রোল প্রোটোকল ( Transmission Control Protocol ) এবং ইন্টারনেট প্রোটোকল ( Internet Protocol ) তৈরি করেন, যা বর্তমানে TCP/IP নামেও পরিচিত। 

সুতরাং আপনি যদি বর্তমান ইন্টারনেট এর জনক কে? এই সম্পর্কে জানতে চান কিছু, তাহলে আপনি অবশ্যই internet ke abiskar koren এই নিবন্ধটি সম্পূর্ণ ভালোভাবে পড়তে পারেন।

মূলত ইন্টারনেটে কি আছে? 

আমাদের বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ইন্টারনেট সম্পর্কে কিছু ভুল ধারণা রয়েছে। মূলত লোকেদের এই ধারণাগুলো থেকে বের হতে হলে প্রথমে এ বিষয়ে জানা প্রয়োজন। ইন্টারনেট কোন মেঘ বৃষ্টি অলৌকিক ঘটনা নয়। যা আপনার বুঝতে সমস্যা হবে। 

তাহলে এই ইন্টারনেট কি? 

ইন্টারনেটের কল্যানে অনেক কিছুই এখন হাতের মুঠোয় চলে এসেছে, যে ( ইন্টারনেট ) এখন আমাদের হাতের মুঠোয়। এই কারণে হয়তো আমরা ইন্টারনেট কে খুব বেশি গুরুত্ব দেইনা।

তবে এ কথাটি আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে ইন্টারনেট অনেকগুলো প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পরে, আমরা আমাদের হাতের মুঠোয় সহজেই ইন্টারনেট সুবিধা ব্যবহার করতে পারি। 

তাহলে ইন্টারনেট কে আবিষ্কার করেন এবং ইন্টারনেট এর জনক কে? জানার পর জেনে নেই ইন্টারনেট কি?  

ইন্টারনেট এর জনক কে
ইন্টারনেট এর জনক কে

সহজ ভাবে বললে  আমি বলব ইন্টার্নেট ইন্টারনেট মূলত একটি তার বা একগুচ্ছ তারের সমষ্টি। সত্যি কথা বলতে, এমন অনেক তার রয়েছে যা সারা বিশ্বে কম্পিউটারের সাথে সংযুক্ত করেই আমাদের ইন্টারনেট সুবিধা দিয়ে থাকে।

আপনি ইন্টারনেটকে একটি শক্তিশালী অবকাঠামো বা অবকাঠামো হিসেবে মনে করতে পারেন। এটি একটি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক ( global network ), এবং ইন্টারনেটের সাহায্যে interconnected computers একটি বিশ্বব্যাপী নেটওয়ার্ক।

সেটাও নির্দিষ্ট সেটিং প্রোটোকল অনুযায়ী মানসম্মত পদ্ধতিতে, যা একে অপরের সাথে সংযুক্ত এবং একসাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছে করছে।

ইন্টারনেট সম্পর্কে জানতে এবং ইন্টারনেটের জনক কে এই বিষয়ে জানতে গিয়ে একটি বিষয় পরিষ্কার হয়েছে, যে লোকজন তার সমস্যা থেকে কিছু না কিছু আবিষ্কার করেছেন।

সমস্যার সমাধান খুঁজতে গিয়েই সম্ভবত উদ্বোধন হয়েছে ইন্টারনেট প্রযুক্তির।  বর্তমানে অনেক সমস্যার সমাধান করছে নিজেই ( ইন্টারনেট)। 

ইন্টারনেটের ইতিহাস?

যেকোনো প্রযুক্তি  উদ্ভাবন একদিনে সম্ভব হয়নি। ইন্টারনেট ও তেমনি একটি প্রযুক্তি। অন্যান্য প্রযুক্তির থেকে ইন্টারনেট প্রযুক্তিতে পরিবর্তন ব্যাপকভাবে ত্বরান্বিত হচ্ছে।

তাই বর্তমান সময়ে বলা যায় ইন্টারনেট এমন একটি প্রযুক্তি যা কোন একক ব্যক্তির দ্বারা আবিষ্কার এবং উদ্ভাবন মোটেও সম্ভব নয়। 

ইন্টারনেট আবিষ্কার করতে অনেকেই তাদের মেধা এবং শ্রম খাটিয়েছেন, তাই বলা ইন্টারনেট আবিষ্কারের অনেকেরই হাত রয়েছে। 

বর্তমানে আমরা সহজেই যে ইন্টারনেট হাতের মুঠোয় পাচ্ছি, তা অনেক বিজ্ঞানীদের সম্মিলিত প্রচেষ্টার 40 বছরের ফসল।  ইন্টারনেট এমন একটি ক্ষেত্র, যা প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছে।

আপনি বলতে পারেন ইন্টারনেটে নতুন নতুন উদ্ভাবন এখনো চলতেছে, নৈতিক বৈশিষ্ট্য আনার জন্য অনেকেই উঠে পড়ে এখনো লেগে আছেন। 

তাই এখন আমরা বলতে পারি যে আমরা যে ইন্টারনেট ব্যবহার করছি এবং ইন্টারনেট সম্পর্কে জানি তা মূলত তাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফল।

যার সুফল আমরা বর্তমানে আমারা ভোগ করছি। যার ফলে ইন্টারনেট সমগ্র বিশ্বকে এক সুতোয় গেঁথে দিয়েছে, গড়েছে ইন্টারনেটের নেটওয়ার্ক।

ইন্টারনেট কে আবিষ্কার করেন? প্রশ্ন যদিও ইন্টারনেট নিয়ে মানুষের খোঁজ অনেক আগে থেকেই, তবে ভিন্ট সার্ফ এবং বব খান 1978 সালে  প্রথম একটি গ্রহণযোগ্য ধারণা প্রকাশ করেন বলে। 

অনেকেই এখনও 978 সাল কে ইন্টারনেট আবিষ্কারের সময় বলে মনে করেন।

ইন্টারনেট কে আবিষ্কার করেন এবং কখন?

কোন কিছু উদ্ভাবন করা বা তৈরি করা মোটেও সহজ ব্যাপার নয়, তাই আপনার ইন্টারনেট কে আবিষ্কার করেন এই প্রশ্নের সহজ কোনো উত্তর নেই।

তবে ইন্টারনেট বিষয়ে মূলত সত্য হচ্ছে, প্রায় 1960 সালের দিকে প্রাথমিক শুরু করে সামরিক বাহিনী, তারা অনেক কম্পিউটার প্রযুক্তি নিজেদের জন্য তৈরি করেছিল এবং একসাথে তারা বড় এবং বিশাল কম্পিউটারের মধ্যে প্রথম সংযোগের জন্য চেষ্টা করে এবং প্রচুর অর্থায়ন করেছিল এই বিষয়ে।

কিন্তু যদি আপনি পক্রিত ইন্টারনেট আবিষ্কারক সম্পর্কে জানতে চান, তাহলে এরা হলেন কান এবং সার্ফ, যারা ইন্টারনেটের সেই কাঠামো পদ্দতি আবিষ্কার করেছিলেন, যা আজও ব্যবহৃত হচ্ছে।

তারাই প্রথম ইন্টারনেট সম্পর্কিত নিয়মগুলি নির্ধারণ করেছিলেন এবং অদৃশ্য অবকাঠামো তৈরি করতে শুরু করেছিলেন, যার উপর বর্তমান ইন্টারনেট বিশ্বের সবাই নির্ভর করছি।

ইন্টারনেট জগতের আরও একটি নতুন আবিস্কার হচ্ছে 1989 সালে, বার্নার্স-লি ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব আবিষ্কার করেছিলেন। জি হ্যাঁ এই একই প্ল্যাটফর্ম যা আমরা আজও ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য ব্যবহার করছি।

অতএব, ইন্টারনেট আবিষ্কারের জন্য যে কোনও একজনকে সম্পূর্ণ কৃতিত্ব দেওয়া ঠিক হবে না, বরং আমাদের সকলের উচিত তাদের কাজের যথাযথ মর্যাদা দেওয়া। ইন্টারনেট আজ যেমন আছে, সবই সম্ভব এই মহান ব্যক্তিদের কঠোর পরিশ্রমের কারণে।

আরও পড়ুনঃ

উপায় মোবাইল ব্যাংকিং সম্পর্কে

How to buy skitto Mb without app?

Nagad account open offer

উপসংহার,

আশা করি আপনি জানতে পেরেছেন ইন্টারনেট কে আবিষ্কার করেন এবং ইন্টারনেট এর জনক কে। ব্লগিং, টেকনোলজি ও সিমের অফার সমূহ জানতে নিয়মিত আমাদের সাইটে ভিজিট করুন।  

পোস্টটি ভাল লাগলে ফেসবুকে শেয়ার করুন সেই সাথে আমাদের ফেইসবুক পেইজ লাইক করুন। ধন্যবাদ। 

Leave a Comment

seven + 1 =