নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন

আপনি কি নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে চাচ্ছেন বা পল্লী বিদ্যুতের নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন? 

তাই আপনি যদি পল্লী বিদ্যুতের নতুন মিটার অনলাইনে আবেদন পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে চান তাহলে এই আর্টিকেলে আপনাকে স্বাগতম।

বাংলাদেশ সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী বিদ্যুতায়ন এর কার্যক্রম শতভাগ এগিয়ে নেওয়ার জন্য বর্তমানে অনলাইনে বিদ্যুতের নতুন মিটারের জন্য আবেদন করা যাচ্ছে। 

আজকের আর্টিকেলে পড়ে আপনি Apply online for new meter কিভাবে করতে হয় তা জানতে পারবেন।

আবেদন করার জন্য প্রয়জনীয় কাগজপত্র কি কি প্রয়োজন, অনলাইনে আবেদন করার পদ্ধতি, মিটার পাবার জন্য অনলাইনে আবেদন করার নিয়মাবলী নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

পল্লী বিদ্যুৎ নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করার পদ্ধতি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র– 

আপনি যদি শতভাগ বিদ্যুৎ এর আওতায় এখনো আসতে ব্যর্থ হয়ে থাকেন তাহলে এখনি অনলাইনে পল্লী বিদ্যুতের নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে পারেন।

আশা করা যায় আবেদন করার ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে আপনার বাসায় পল্লী বিদ্যুৎ নতুন সংযোগ পেয়ে যাবেন।

তবে পল্লী বিদ্যুতের নতুন মিটার আবেদন পদ্ধতিতে আপনাকে কোন প্রকার তৃতীয় পক্ষের দ্বারস্থ হতে হবে না।

আপনি সরাসরি আপনার নিকটস্থ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি তে যোগাযোগ করে অথবা নিজেই নতুন মিটার নিতে অনলাইনে আবেদন করে নিজের বাড়িতে পল্লী বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে পারবেন।

কিন্তু কিভাবে পল্লী বিদ্যুৎ নতুন সংযোগের আবেদন করব? সেটাই হচ্ছে মূলত জানার বিষয়।

আমরা এই আটিকেলে পল্লী বিদ্যুতের নতুন মিটার আবেদন পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরব এবং কত টাকা লাগবে কি কি কাজ করতে হবে তার সবগুলোই ধারাবাহিকভাবে বর্ণনা করা হবে। 

আরও পড়ুনঃ

সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম 2022

বাবাকে নিয়ে স্ট্যাটাস পিক । মা বাবাকে নিয়ে স্ট্যাটাস

আবাসিক এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের নতুন মিটার আবেদন এর ক্ষেত্রে যা যা লাগবে– 

  • আবেদনকারীর নাম ও মোবাইল নাম্বার।
  • আবেদনের সময় “৫” ফুট সাইজের ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি ও খারিজের স্ক্যান কপি অবশ্যই সংযুক্ত করতে হবে। 
  • বিদ্যুৎ সংযোগ স্থান থেকে সার্ভিস খুঁটির দূরত্ব অবশ্যই 130 ফিটের মধ্যে থাকতে হবে।
  • খুঁটির সাথে সংযোগের দূরত্ব ভালো করে মেপে সঠিকভাবে তথ্য দিতে হবে। কোনো প্রকার মিথ্যা তথ্য দেওয়া যাবে না। 
  • অনলাইনে আবেদন করার পর প্রয়োজনীয় ফি যেমন: আবেদন ফি, মেম্বারশিপ ফি ও নিরাপত্তা জনিত তথ্যসহ যাবতীয় ফি এসএমএসের মাধ্যমে আপনার মোবাইল নাম্বারে জানিয়ে দেওয়া হবে।
  • আবেদন ফরমে লাল তারকা চিহ্নিত ক্ষেত্রগুলো অবশ্যই ভালোভাবে পূরণ করতে হবে।
  • আবেদনপত্রে গ্রাহকের ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বার প্রদান করতে হবে এসএমএস পাওয়ার জন্য।
  • ভালোভাবে আবেদন করার পর প্রাপ্ত ট্রাকিং আইডি এবং পিন নাম্বার অবশ্যই সংরক্ষণ করে রাখতে হবে।
  • সংযোগের অথবা প্রদানকৃত ফি ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং (রকেট) এর মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে।
  • ডাচবাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে ফি পরিশোধ করার জন্য নিচের নিয়মাবলী অনুসরণ করুন। 
নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন
নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন

অনলাইনে নতুন মিটারের জন্য আবেদন করার নিয়মাবলী – 

আপনার কাছে যদি একটি স্মার্টফোন বা কম্পিউটার থাকে তাহলে আপনি খুব সহজেই পল্লী বিদ্যুৎ Apply online for new meter করতে পারবেন।

সর্বপ্রথম আপনি যে এলাকায় বসবাস করে থাকেন ওই এলাকার আঞ্চলিক পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

উল্লেখিত ফর্মে সঠিকভাবে তথ্য গুলো পূরণ করে সেটি সাবমিট করতে পারলেই আপনার আবেদন প্রক্রিয়া শেষ।

  • সর্বপ্রথম আপনার আঞ্চলিক পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ওয়েবসাইটটি সংগ্রহ করতে হবে। তারপর আপনার মোবাইলে ইন্টারনেট ব্রাউজার এর মাধ্যমে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন।
  • ওয়েবসাইটে ঢোকার পর আপনার কম্পিউটার এর উপরের দিকে একটা আবেদন লেখা দেখতে পাবেন এবং সেই আবেদন লেখাটিতে ক্লিক করুন।
  • আপনি ক্লিক করার পর একটি ফরম চলে আসবে সেখানে আপনার এলাকার বিদ্যুৎ অফিসের নাম, আপনার জোনের নাম, সংযোগ টোরিফ ইত্যাদি এসব তথ্য পূরণ করতে হবে।
  • তাছাড়া আবেদনকারীর যাবতীয় ত তথ্য যেমন: আবেদনকারীর নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, এনআইডি নম্বর মোবাইল নম্বর ও আপনার ঠিকানা সহ সমস্ত তথ্য ভালো করে পূরণ করুন। তারপর প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে পোর্টাল বা ফরম পূরণ করতে হবে। যা ইতোমধ্যে আলোচনা করা হয়েছে। মনে রাখবেন যে তথ্যগুলো আপনি ফর্মে পূরণ করবেন সেগুলো যেন নির্ভুল ভাবে হয়ে থাকে।

আরও পড়ুনঃ

জিপিএফ হিসাব দেখার নিয়ম । GPF Balance check calculations

টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো | How to make a Tiktok video

সোনালী ব্যাংক লোন নেওয়ার নিয়ম | Sonali Bank Loan Rules

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করার নিয়ম?

ঘরে বসে নতুন মিটারের জন্য অনলাইন আবেদন করতে আপনার কাছে ভোটার আইডি কার্ড থাকতে হবে। সেই সাথে উপরে উল্লেখিত নিয়মাবলী সঠিক ভাবে পালন করতে হবে।

নতুন মিটারের আবেদন ফি কত টাকা?

বাড়ি/বাণিজ্যিক/দাতব্য প্রতিষ্ঠানে নতুন বিদ্যুৎ মিটারের জন্য আবেদন ফিঃ ১০০-২০০০ টাকা সমীক্ষা ফি জমা দিতে হবে। সেচ সংযোগের/মিটারের ক্ষেত্রে আবেদনের সাথে ২৫০ টাকা সমীক্ষা ফি জমা দিতে হবে।

শেষ কথা 

আপনি যদি আমাদের নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করার উপরের প্রক্রিয়াগুলো অনুসরণ করে থাকেন, তাহলে অবশ্যই আপনি নতুন মিটার সংযোগ খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে পেয়ে যাবেন।

এছাড়াও অনলাইনে আবেদন করার পর তাদের কাছে আপনি যদি সাহায্য না পেয়ে যান।

তাহলে আঞ্চলিক পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে জেনারেল অফিসারের কাছে অভিযোগ জানাতে পারেন। 

আপনার যাবতীয় মতামত আমাদের ওয়েবসাইটের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাবেন।

সব বিষয়ে নিত্য নতুন আর্টিকেল পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট। চোখ রাখুন আমাদের ফেসবুক পেজে। 

ধন্যবাদ।

Leave a Comment

20 − two =