সিসি ক্যামেরা কেনার পূর্বে যে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো জানতে হবে

নিজের, পরিবার, ব্যবসা এর নিরাপত্তার জন্য সিসিটিভি ক্যামেরা অপরিহার্য একটা বস্তু হয়ে উঠছে দিন কে দিন। তবে যে কোনো জিনিসের মতন সিসিটিভি ও কেনার আগে জানতে হবে কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, যা আপনাকে আপনার প্রয়োজন মতন পছন্দের ডিভাইস টি পেতে সাহায্য করবে। না জেনে না বুঝে কেনার ফলে কিছু দিন পর ই যেমন ডিভাইসটি নষ্ট হয়ে যেতে পারে তেমনি ভাবে ঠিক ভাবে প্রয়োজন না মেটানোর উপকরণ না থাকার কারনে টাকা টাও জলে যেতে পারে।

প্রয়োজন ভেদে সিসিটিভির ফিচার এর পার্থক্য থাকলেও বেসিক কিছু বিষয় আছে যা গুরুত্বপূর্ণ এবং কেনার আগে জানা জরুরি। চলুন জেনে নেওয়া যাক

সঠিক সেন্সর নির্বাচন

সিসি ক্যামেরা ভেদে সেন্সর গুলো সাধারণত আলাদা হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে আপনি দুটি বিষয়ের উপর খেয়াল রাখতে পারেন তা হল সেন্সর টাইপ ও সেন্সর সাইজ।

সিএমওএস অথবা সিসিডি সেন্সর সাধারণত বেশি দেখা যায়। সিএমওএসের কর্মক্ষমতা ও সংবেদনশীলতা দুটোই সিসিডি থেকে অপেক্ষাকৃত কম হওয়ার কারনে এটি পরিষ্কার ইমেজ ধারন করতে পারেনা। তাই পরিচয় শনাক্তকরণের ক্ষেত্রে সিএমওএস ব্যবহার না করা ই ভালো। যদি এর দাম কম সিসিডি থেকে।

আউটপুট রেজুলেশন নির্বাচন

সিসিটিভি ক্যামেরার রেঞ্জ ৭০০টিভিএল পর্যন্ত হয়ে থাকে। ৩৮০টিভিএল ও ৫৪০টিভিএলেরও বিভিন্ন ক্যামেরা পাওয়া যায়। তবে লেন্স এবং সেন্সর যদি আউটপুট রেজোলিউশানের  সাথে ম্যাচ করতে না পারে তাহলে আপনি কাঙ্ক্ষিত ফলটি পাবেন না।

তাই সিসিটিভি কেনার সময় খেয়াল করবেন যাতে হাই রেজুলেশন এর হয় এতে করে ক্যামেরায় ধারণকৃত ইমেজ স্পষ্টভাবে প্রদর্শিত হবে। ফলে যে কোনো প্রয়োজন এবং দুর্ঘটনায় সহজেই অপরাধী কে সনাক্ত করতেও সহজ হবে এবং দ্রুত হবে।

লেন্স সম্পর্কে ধারনা রাখা

মূলতো সিসিটিভির মাধ্যমে আপনি যা দেখবেন তা সব ই লেন্স এর মাধ্যমে রেকর্ড হবে, লেন্সের ফোকাসের মাধ্যমেই আপনি দূরে জিনিস বা কাছের জিনিস স্পষ্ট / ঘোলা দেখবেন।

তবে জুম লেন্সের মাধ্যমেও জুম করে দেখার সুবিধা পাবেন, যদিও বর্তমান সিসিটিভি ক্যামেরা গুলোতে ডিজিটাল অথবা অপটিক্যাল জুম থেকে থাকে।  তবে আপনার অপটিক্যাল জুমকে ডিজিটাল জুমের থেকে গুরুত্ব দেয়া উচিত।

প্যান/ টিনট

এইটি আধুনিক সিসিটিভি ক্যামেরার নতুন ফিচার। এর মাধ্যমে আপনি চারপাশে ভালো করে দেখতে পারবেন। ভালো ক্যামেরা গুলো ৩৫৫ ডিগ্রি প্যান আর ৯০ ডিগ্রী পর্যন্ত টিন্ট থাকে৷ সাধারণ সিসিটিভি ক্যামেরা তাদের রিমোট এরিয়া থেকেই ঘূর্ণয়মান হতে পারে।

সিসিটিভি তে অডিও সেন্সর

সম্প্রতি সময়ে সিসিটিভি ক্যামেরা তে মোশন সেন্সর সুবিধা সংযোগ করা হয়েছে। বর্তমানের সময়ে প্রযুক্তি যেমন দিন দিন উন্নত হয়ে তার ই একটি রূপ এই অডিও সিস্টেম কারণ পূর্বে এই সুবিধা টি ছিলো না। মোশন সেন্সর এর মাধ্যমে ভিডিও এর সাথে অডিও ও শুনতে পারবেন যা আপনার নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে কঠোর ভাবে।

ক্যামেরার মেমোরি

বর্তমানের সিসিটিভি ক্যামেরাতে ইন্টার্নাল মেমোরি কার্ড যুক্ত থাকে যা পূর্বে ছিলো না। সাধারণত ৩২ থেকে ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত মেমোরি হয়ে থাকে। ডাটা সংরক্ষণের জন্য সিসিটিভিতে সাধারণত এক্সটার্নাল মেমোরি এর প্রয়োজন হয় না।

নাইট ভিশন সিসি ক্যামেরা

ইনফ্রারেড প্রযুক্তি ব্যবহার করার কারনে রাতে বা কম আলোতেও আপনি দেখতে পারবেন। এই সিসি ক্যামেরা অল্প আলোতেও ভালো কোয়ালিটির ভিডিও ধারণে সক্ষম। দিনের আলোতে রঙিন এবং রাতে সাদাকালো ভিডিও ধারণ করে এই ক্যামেরা। সাধারণত সবময়ই সিসি ক্যামেরার প্রয়োজন এসব স্থানে এই ক্যামেরা বসাতে পারেন।

ওয়াটারপ্রুফ সিসিটিভি

বাসা বা রুমের বাইরে কোথাও, খোলা মাঠে বা রাস্তায় এসব যায়গা তে সিসিটিভি ক্যামেরা কেনার আগে সেটি ওয়াটারপ্রুফ কি না দেখে কিনুন। অনেক ক্যামেরা ই এখন এই সুবিধা টা আপনাকে দিবে, ফলে ঝড়-ঝঞ্ঝা নিয়ে আর টেনশন এ থাকতে হবে না। আর দ্রুত ক্যামেরা টি নষ্ট ও হবে না। তাই এই বিষয়টি ও মাথায় রাখতে পারেন।

মানের দিকে খেয়াল রাখা

টাকা বাঁচানোর জন্য সস্তা ও কমদামি ব্রান্ডের ক্যামেরা কিনার কথা চিন্তা করবেন না। কম দামি বা খারাপ মানের সিসিটিভি ক্যামেরা কিনলে যে কোনো সময় নষ্ট হয়ে যেতে পারে যা আপনার জন্য ই অলাভজনক।

ক্যামেরার ফিচার্স সম্পর্কে জানা

যে ক্যামেরাটি ক্রয় করতে যাচ্ছেন তার লেন্স, সেন্সর টাইপ, ওয়াইড এঙ্গেল, ক্যামেরার ফিল্ড অফ ভিশন, এছাড়াও ক্যামেরার সামনে ঠিক কতটুকু এরিয়া কভার করতে পারবে ক্যামেরার স্টোরেজ বা ফাইল ধারণ ক্ষমতা ইত্যাদি বেসিক ফিচার্সগুলো সম্পর্কে জানুন এতে করে আপনার জন্য কোনটি বেস্ট সেটা বুঝতে পারবেন।

টপ ব্রান্ড গুলো

বর্তমানে বাজারে বিভিন্ন বিভিন্ন ব্রান্ড দেখা যাচ্ছে যারা সর্বোচ্চ মান ও গুণাগুণ নিয়ে হাজির হচ্ছে। সাথে আছে নামকরা ব্রান্ড ও। তবে বাংলাদেশ সিসিটিভি এর জন্য কিছু জনপ্রিয় ব্রান্ড হলো Cp plus, Hikvision, Dahua, zebronics,  Tvt.

সিসিটিভি ক্যামেরার ওয়ারেন্টি ও মূল্য

সিসিটিভি ক্যামেরা গুলোতে এখন ব্রান্ড ভেদে বিভিন্ন মেয়াদি ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে।  তবে ভালো মানের সিসিটিভি ব্রান্ড গুলো ৬ মাস থেকে ৩ বছর ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে। অন্যদিকে সিসিটিভি ক্যামেরার মূল্য সঠিক ভাবে বলা কঠিন। তবে সর্বনিম্ন ১ হাজার থেকে ৫ লাখ পর্যন্ত হতে পারে।

আরও পড়ুনঃ

স্কলারশিপ কিভাবে পাওয়া যায়

ঘরে বসে ডাক্তারের পরামর্শ নেয়ার উপায়

Leave a Comment

12 − three =