বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার কে? Who is the first biographer of Bangabandhu?

বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার কে? আপনি জানেন কি? বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী কার্যত একটি ঐতিহাসিক আখ্যান। যেকোনো ঐতিহাসিক আখ্যানের দুটো দুর্বলতা থাকতে পারে।

প্রথমটি হলো সন্দেহজনক তথ্যের সন্নিবেশ, আর দ্বিতীয়টি হলো লেখকের বর্ণনায় তথ্য ও বিশ্নেষণের চেয়ে আবেগাশ্রয়ী মন্তব্যের প্রাধান্য।

বঙ্গবন্ধুর যেকোনো জীবনীগ্রন্থ পড়তে গেলে এই দুটি বিষয়ের প্রাসঙ্গিক ভাব গড়ে ওঠে।

বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার কে তা নিয়ে আজকের আর্টিকেলে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করব। 

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে লেখালেখির পরিমাণ কম নয়, তবুও যেন একটি পূর্ণাঙ্গ ও নির্ভরযোগ্য জীবনীগ্রন্থের অভাব দীর্ঘদিন যাবৎ অনুভূত হয়েছে। ২০০৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এস. এ. করিম তথা বাংলাদেশের ভূতপূর্ব পররাষ্ট্র সচিব সৈয়দ আনোয়ারুল করিমের লেখা ‘শেখ মুজিব ট্রায়াল্ফম্ফ অ্যান্ড ট্র্যাজেডি’ প্রকাশিত হলে সে অভাবের কিছুটা পূরণ হলো। সেটিই ছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রথম পূর্ণাঙ্গ জীবনী। 

তিনি ভয়েজ অব আমেরিকাকে বলেছিলেন, ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর তিনি এ গ্রন্থটি রচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন কিন্তু তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহের জন্য তাকে ৭-৮ বছর লাগাতার কাজ করতে হয়।

২০০৯ সালে বইটির সংশোধিত ও পরিবর্তিত সংস্করণ প্রকাশ পেয়েছিল।

বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার কে? – Who is the first biographer of Bangabandhu?

বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার হচ্ছেন অধ্যাপক ড. মযহারুল ইসলাম। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে তিনি প্রথম  জীবনীগ্রন্থ প্রকাশ করেন। প্রফেসর ড. মযহারুল ইসলাম (১ জুলাই ১৯২৯ – ১৪ নভেম্বর ২০০৩) ছিলেন বাংলাদেশের একজন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন লেখক, গবেষক, শিক্ষাবিদ, লোকতাত্ত্বিক, কবি-কথাশিল্পী-সংগঠক ও শিল্পপতি।

বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার কে
মহানায়ক বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার কে

তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং বাংলা একাডেমির প্রথম মহাপরিচালক হিসেবে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন। 

আরও পড়ুনঃ

Passport Medical Report Check Online Bangladesh

ঘরে মোবাইল নেটওয়ার্ক না থাকলে করনীয় কি?  

১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চ রাতে ‘অপারেশন সার্চলাইট’ এবং বঙ্গবন্ধুর গ্রেপ্তারের সময় নিয়ে লেখকদের মধ্যে সচেতনতার অভাব পরিলক্ষিত হয়েছে।

অনেকেই ‘২৫ মার্চ মধ্যরাতের পর’ লিখে দায় সারেন। মূল পরিকল্পনা অনুযায়ী ক্যান্টনমেন্ট থেকে সেনাবাহিনী রাত ১.১০ মিনিটে বের হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু কার্যত সেনাবাহিনী রাত সাড়ে এগারোটায় ক্যান্টনমেন্ট থেকে বেরিয়ে বিভিন্ন টার্গেট অভিমুখে আক্রমন শুরু করে।

ধানমন্ডি ৩২ নম্বর রোডে অভিযান পরিচালনা জন্য মেজর বেলালের নেতৃত্বে কমান্ডো বাহিনী নিয়োগ করা হয়েছিল যার নাম ছিল (৩ এসএসজি)।

ব্রিটিশ সাংবাদিক সাইমন ড্রিং ২৫শে মার্চ গণহত্যার একজন প্রত্যক্ষদর্শী। ধানমন্ডি ৩২ নম্বর রোডের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের বাসার একজন প্রতিবেশী তাকে জানিয়েছেন যে, রাত ১টা ১০ মিনিটে একটি ট্যাঙ্ক, একটি সাঁজোয়া গাড়ি এবং ট্রাকভর্তি সৈন্য বাড়িতে গোলাগুলি করতে করতে ঢুকে আসে।

বাড়ির সামনে নেমে একজন অফিসার ইংরেজিতে চেঁচিয়ে বলেন, “শেখ আপনারা নেমে আসুন।”

বেরিয়ে এসে শেখ মুজিবুর রহমান বললেন, “হ্যাঁ আমি প্রস্তুত। গোলাগুলির কোনো প্রয়োজন ছিল না।

তিনি আরও বলেন, তোমাদের উচিত ছিল আমাকে টেলিফোন করা, আমি চলে আসতাম।” অফিসার তারপর হেঁটে বাড়ির বাগানের ভিতর গেলেন এবং বললেন,”আপনাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।”

আরও পড়ুনঃ

স্কলারশিপ কিভাবে পাওয়া যায় । বিদেশে স্কলারশিপ পাওয়ার যোগ্যতা

ঘরে বসে ডাক্তারের পরামর্শ । অনলাইনে ডাক্তারের পরামর্শ 

বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার কে?

বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার হচ্ছেন অধ্যাপক ড. মযহারুল ইসলাম।

উপসংহার

আশা করি Who is the first biographer of Bangabandhu? বিষয়ে আপনি জানতে পেরেছেন।

বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার কে বিষয়ে ইতিহাস হলো তথ্য এবং বিশ্নেষণের সমন্বয়ে আলছনা করার চেষ্টা করেছি।

যার মূল উদ্দেশ্য অতীতকে বর্তমানের নিকট সঠিকভাবে উপস্থাপন করা। ইতিহাসকে পুনর্নিমাণ করা ঐতিহাসিকের কাজ নয়। তাই ভবিষ্যতের পাঠকের নিকট ইতিহাস লেখকের চূড়ান্ত দায়বদ্ধতা থেকে যায়।

ব্যক্তির জীবনীগ্রন্থ ইতিহাসের আলাদা একটি রূপ।

অন্যদিকে জীবনীগ্রন্থ রচনা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে যখন সংশ্নিষ্ট ব্যক্তি ইতিহাসের পাত্র কেবল নন, তিনি ইতিহাসের নির্মাতাও বটে। হ্যাঁ আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা বলছি।

আশা করি বঙ্গবন্ধুর প্রথম জীবনীকার কে এ সম্পর্কে আপনার ধারনা সুস্পষ্ট।

ইন্টারনেট থেকে টাকা আয় ও অনলাইনে খবরা-খবর জানতে রেগুলার ভিজিট করুন আমাদের ওয়ের সাইট এবং জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Leave a Comment

seventeen + 19 =