পরীক্ষায় ভালো করার দোয়া? জানুন ভালো ফলাফল করুন

প্রিয় পাঠকগণ পরীক্ষায় ভালো করার দোয়া কি এ সম্পর্কে আপনারা অনেকেই বিভিন্ন ভাবে খুঁজে থাকেন। আপনাদের জন্য আজকের এই আর্টিকেলটি পরীক্ষায় ভালো করার দোয়া সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সহ উল্লেখ করা হলো।

আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ ভাবে পড়লে আপনারা পরীক্ষায় ভালো কোন দোয়া পড়লে করা যায় সে সম্পর্কে জানতে পারে।

প্রতিটি শিক্ষার্থী পরীক্ষায় ভালো করতে চায়। কেননা বর্তমান সময়ের প্রতিটি মানুষের শিক্ষাগত যোগ্যতার উপর তার ক্যারিয়ার নির্ভর করে। সে কোন পর্যায়ে যেতে পারবে তার তা রেজাল্টই বলে দেবে। পরীক্ষায় ভালো করার জন্য নিজের যেমন পরিশ্রম করা প্রয়োজন তেমনি আল্লাহ তাআলার সন্তুষ্টি অর্জন করার জন্য দোয়া পাঠ করে পরীক্ষা দেয়া উত্তম।

পরীক্ষায় ভালো করার দোয়া

পরীক্ষায় ভালো করার টিপস 
পরীক্ষায় ভালো করার টিপস 

পরীক্ষার সময় মনস্থির করে আল্লাহ তাআলার সাহায্য কামনা করলে ব্যবস্থা আল্লাহ তার কামনা পূরণ করেন।

লেখা শুরু করার পূর্বে সময়ে মধ্যে কিছু দোয়া পড়ে আল্লাহর সাহায্য কামনা করে নিতে পারেন। এতে আপনার বরকত হবে।  

যেমন : দরূদ শরীফ ‘রব্বী যিদনী ইলমা, রব্বীশরাহলী সদরী….এই আয়াতগুলো পড়ে তিনবার ও ‘আল্লাহুম্মা আল্লীমনী মা জাহিলতু ও যাকরনী মা নাসিতু’ এ দোয়াটি পড়ে বিসমিল্লাহ বলে লেখা আরম্ভ করবেন। 

পরীক্ষায় ভালো করার টিপস 

আপনি যদি পরীক্ষায় ভালো করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে সর্ব প্রথমে একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে।

সে বিষয়টি হচ্ছে কখনই নিজের আত্মবিশ্বাস বাড়ানো যাবে না। 

কখনো পরীক্ষার হলে ভয় পাবেন না। কারণ আপনি যে জিনিসগুলো পারেন আপনার ভয়ের কারণে যে জিনিস গুলো আপনি গুলিয়ে ফেলবেন। 

তাই নিজের প্রতি আস্থা এবং বিশ্বাস রেখে যতটুকু পারবেন ততটুকু সর্বপ্রথম পরীক্ষার খাতায় লিখে ফেলবেন। 

তারপর আপনি চিন্তা করবেন যে বিষয়গুলো আপনি পারেন না সেগুলোর মধ্যে কোন এমন বিষয় আছে  যেটি আপনি একটু হলেও জানেন। 

যদি থাকে তাহলে আপনিও এই প্রশ্নের উত্তরটি করবেন। 

সব সময় চেষ্টা করবেন ভুল হোক অথবা সঠিক পূর্ণ মার্কের এনসার করতে।

আর সবচেয়ে বড় ভরসা হলো আল্লাহর উপর ভরসা রাখা। তবে নিজের পরিশ্রম কখনো বিফলে যাবেনা। 

তাই আপনি যতটুকু সম্ভব ভালোভাবে পড়ার চেষ্টা করবেন।

উপসংহার

প্রিয় পাঠকগণ পরীক্ষায় ভালো করতে হলে অবশ্যই আপনাকে মনোযোগ সহকারে পড়াশোনা করতে হবে। 

আপনার পড়াশোনা আপনার কাছেই থাকবে এটি অন্য কাউকে দেয়া সম্ভব নয়। 

তাই নিজের ক্যারিয়ারকে নিজে তৈরি করার জন্য আপনার চেষ্টায় সবচেয়ে উত্তম। 

তার চেয়ে বড় কথা হলো বর্তমানে আপনি যে পড়াশোনা করছেন এটি আপনার ক্যারিয়ারের যেকোনো সময় কোন না কোন কাজে লাগবেই। 

সুতরাং পড়াশোনা আবশ্যক। আপনাদের যদি এই বিষয়ে কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকে তাহলে আমাদেরকে কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন।

অনলাইন থেকে ঘরে বসে টাকা আয় এবং শিক্ষামূলক নানান ধরনের আর্টিকেলগুলো করতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

সেই সাথে আমাদেরও সে সম্পর্কিত সকল আপডেট পেতে ভিজিট করুন আমাদের ফেসবুক পেইজে

Leave a Comment

ten + one =