কিডনির ব্যথা কোথায় হয় | কিভাবে কিডনির রোগ ভালো করবেন

প্রিয় পাঠকগণ কিডনির ব্যথা কোথায় হয় এ সম্পর্কে জানার জন্য আপনারা অনেকেই প্রশ্ন করেছেন। আজকের এই আর্টিকেলে ঠিক কোন কারণে অথবা কিডনির সমস্যা হলে আপনার ঠিক কোথায় আপনি ব্যথা অনুভব করবেন সে বিষয়ে বিস্তারিত আপনাদেরকে জানানো হবে।

এছাড়াও কিডনির সমস্যা থেকে আপনারা বাঁচার জন্য কোন কাজ গুলো বেশি বেশি করবেন সেটিও আজকের এই আর্টিকেলে বলা হয়। আমরা সকলে জানে কিডনি আমাদের শরীরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি জায়গা।

এই কিডনির ব্যথা আপনার শরীরের নানান ধরনের ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলতে পারে সেগুলো আপনারা আজকের এই আর্টিকেল থেকে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

কিডনির ব্যথা কেমন

কিডনির ব্যথা কেমন
কিডনির ব্যথা কেমন

আপনার যদি কিডনিতে সমস্যা হয় তাহলে কোমরের পিছন দিকে আপনার হালকা চিনচিন ব্যথা করবে। একথাটি আমরা প্রায় সময়ে শুনি।

আপনারা এমন উপসর্গ নিয়ে অনেকেই আতঙ্কিত হয়ে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন।

আপনাদের প্রশ্ন থাকে আমার কিডনি কি খারাপ হয়ে গেল? শুনেছি কিডনির সমস্যায় পেছনে ব্যথা হয়?

কোমরের ব্যথার বেশিরভাগ রোগীরাই মনে করেন যে তাদের কিডনিতে সমস্যা হয়েছে।

কিন্তু এই সকল কথাগুলোর ভিত্তি একেবারে নেই বললেই চলে।

কেননা সত্যি কথা বলতে কিডনিতে পাথর অথবা খারাপ ধরনের কোনো সংক্রমণ নাহলে আপনার ব্যথা করবে না।

এছাড়া আপনার কোমরের ব্যথা হয়ে থাকে সে ব্যথার নানান ধরনের কারণ এবং উৎস রয়েছে।

বেশিরভাগ কোমর ব্যথা হওয়ার কারণ হচ্ছে মাংসপেশি, মেরুদন্ডের হাড়, ডিস্ক, সন্ধি ও স্নায়ু সম্পর্কিত।

সাধারণত আপনার এই ব্যথাটি নির্দিষ্ট স্থানে জড়ো হয়ে থাকে। 

যেমন হতে পারে মেরুদণ্ডের নড়াচড়া, ওঠা বসা, সামনে ঝোঁকা, হাঁটা বা দাঁড়ানো, অনেকক্ষণ ধরে কাজ করা বা শুয়ে থাকার সঙ্গে এই ব্যথা বাড়ে-কমে।

আরও পড়ুনঃ

ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস প্রতিষ্ঠা করেন কে?

বাংলাদেশে বিভাগ কয়টি ও কি কি

চাকরির জন্য আবেদন পত্র

কিডনির ব্যথা কেন হয় | কিডনির ব্যথা কোথায় হয়

নানান বিশেষজ্ঞদের মতে কোন রকম ব্যথা বেদনা ছাড়াই কিডনি খারাপ হয়ে যেতে পারে।

সাধারণত আপনার কিডনির সমস্যার উপসর্গ দেরিতে দেখা দিতে পারে।

তাই যাদের পরিবারের কিডনির অসুখ আছে বিশেষ করে তাদের ক্ষেত্রে বেশি সচেতনতা অবলম্বন করা উচিত।

আর সাধারণ কোমরব্যথায় সাধারণত জ্বর হয় না (তবে টিউমার, টিবি ইত্যাদি ছাড়া)।

আপনার শরীরের দুর্বলতা, রক্ত শূন্যতা, অরুচি বমির ভাব ইত্যাদি আনুষঙ্গিক সমস্যা সাধারণত থাকবে না।

বিশ্রাম ও ব্যথানাশক ঔষধ সেবন করলে আপনার জন্য ভালো হবে কিন্তু বন্ধ করলে ব্যথা আবার ফিরে আসবে।

কিডনি রোগের উপসর্গ 

সাধারণত কিডনির যে ব্যথা রয়েছে সেটি মেরুদণ্ড থেকে একটু দূরে ডান অথবা বাম পাশে হয়ে থাকে।

আপনারা এটির পেছনের পাঁজরের নিচের অংশে অনুভব পেতে পারেন।

এ ব্যথা নড়াচড়ার কারণে আপনার কোমরের দুই পাশে যেতে পারে। এই ব্যথাটি কিছুদিন পর পর আবার নতুন মাত্রায় আসতে পারে।

আপনি এই ব্যথা থেকে শোয়া-বসা অথবা কোন কিছুতেই আপনার আরাম মিলবে না।

  • কিডনি সমস্যায় ব্যথা মূল উপসর্গ নয়, এতে শরীরে পানি আসা, দুর্বলতা, অরুচি, বমির ভাব দেখা দেয়।
  • সংক্রমণ হলে জ্বর হতে পারে এই ব্যথার সঙ্গে।
  • প্রস্রাব ঘোলাটে হয়, দুর্গন্ধ বা রক্ত থাকতে পারে।
  • প্রস্রাবের পরিমাণ কম-বেশি হয়। রক্তশূন্যতা থাকতে পারে।

আরও পড়ুনঃ

আর্থিক অনুদানের জন্য আবেদন পত্র 

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দেশ কোনটি?

সততার জন্য সদিচ্ছা

কিডনি রোগের ঝুঁকি | কিডনির ব্যথা কোথায় হয়

কিডনি রোগের ঝুঁকি
কিডনি রোগের ঝুঁকি

আপনার দীর্ঘদিন যাবত অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, সংক্রমণ, ব্যথানাশক বড়ি খাওয়া ইত্যাদি এছাড়াও পরিবারের কারও কিডনির অসুখ হওয়ার ইতিহাস, আপনার হার্টের সমস্যা, স্ট্রোক করলে, অতিরিক্ত ওজন অথবা ধূমপান। 

এসব ঝুঁকির মধ্যে যারা আছেন তাদের নিয়মিত ভাবে কিডনির পরীক্ষা করা উচিত অথবা কোন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের কাছে পরামর্শ গ্রহণ করা উচিত।

কিডনি রোগের জন্য পানির উপকারিতা 

সাধারণত একজন মানুষের শরীরের জন্য কতটুকু পানি খাওয়া উচিত সেটি নির্ভর করে তার কাজের ধরনের ওপর, দেহের আকার, পরিবেশ, আবহাওয়া ইত্যাদি।

আপনি যদি পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করেন তাহলে অবশ্যই পানি আপনার কিডনিকে ভালো রাখতে সাহায্য করবে। 

তবে আপনার এই বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে যে অতিরিক্ত পানি পান করলে আপনার কিডনির ওপর চাপ পড়ে, যার কারনে আপনার ক্ষতিও হতে পারে। 

আপনার স্বাভাবিকভাবে যখন আবহাওয়া ঠিকঠাক থাকবে তখন দৈনিক ৮ গ্লাস পানি পানই যথেষ্ট।

তবে আপনি যদি কষ্টসাধ্য কাজ করেন এবং আপনার শরীর থেকে অতিরিক্ত পরিমাণে ঘাম বের হয় তাহলে অবশ্যই আপনাকে বেশি পরিমাণে পানি পান করতে হবে।

আপনার যদি পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি খান তাহলে আপনার কিডনিতে পাথর হবে না এবং এটি স্বাভাবিক কার্যক্রম সঠিকভাবে পরিচালিত হবে।

আরও পড়ুনঃ

পুলিশের চাকরির জন্য কত টাকা লাগে?

চাকরি থেকে অব্যাহতির জন্য আবেদন

অনুপস্থিতির জন্য ছুটির আবেদন

কিডনির ব্যথা কোথায় হয় FAQS

কিডনির ব্যথা কোথায় হয়?

মূলত অনেকেই বলে যে কিডনির সমস্যা হয় তাহলে কোমরের পিছন দিকে আপনার হালকা চিনচিন ব্যথা করবে। কিন্তু বিষয়টি এমন নয়, কিডনির সমস্যার ব্যথা এমনিতেই শুরু হবে না। এটি অনেক দেরি করে ঘটে থাকে।

কিডনি অসুখ কি বিরল এবং শুধু কি বড়দের হয়?

কথাটি একেবারে সঠিক নয়। বরং এটি একটি খুব সাধারণ অসুখ। সব বয়সের হতে পারে। বিভিন্ন মাত্রায় উপসর্গহীনভাবে চলতে থাকে। শেষ অবস্থায় গিয়ে ধরা পড়ে। যখন হয়তো তেমন কিছু করার থাকে না।

কিডনি অসুখ হলেই কি তা জানতে পারি?

না, জানতে না-ও পারতে পারি। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই প্রাথমিক বা মাধ্যমিক মাত্রার অসুখ পর্যন্ত তেমন কোনো উপসর্গ প্রকাশ পায় না। দেখা যায়, শেষ অবস্থায় ধরা পড়ছে অসুখ।

কিডনি অসুখের ঝুঁকির মধ্যে থাকলে কি আগাম কিছুই করার নেই?

ঝুঁকির মধ্যে থাকলেও কিডনি অসুখ প্রতিরোধ করার যায়। সচেতন হলেই প্রতিরোধ সম্ভব। কিডনিবান্ধব স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ, নিয়মিত ব্যায়াম, ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ, ওজন নিয়ন্ত্রণ, ধূমপান পরিহার, অতিরিক্ত ব্যথার ওষুধ সেবন পরিহার করলেই ঝুঁকি সত্ত্বেও কিডনি অসুখ প্রতিরোধ সম্ভব।

কিডনি পরীক্ষা কি ব্যয়বহুল?

কিডনি পরীক্ষা মোটেও ব্যয়বহুল নয়। খুব সাধারণ দুটি পরীক্ষার মাধ্যমে অল্প খরচে, অতি সহজে দেশের সবখানেই জানা যেতে পারে কিডনির সর্বশেষ অবস্থা।

উপসংহার 

প্রিয় পাঠকগণ আজকের এই আর্টিকেলের কিডনির ব্যথা কোথায় হয় এ বিষয়টি সম্পর্কে আপনাদের সাথে আলোচনা করার জন্য তৈরি করা হয়েছে। 

আজকের এই আর্টিকেলে আমরা আপনাদেরকে কিডনি সমস্যা এবং এর প্রতিকার নিয়ে নানান ধরনের বিস্তারিত তথ্য জানিয়েছে। 

আশা করছি আপনারা সঠিক নিয়মে আপনাদের শরীরের পরিচর্যা করবেন এবং কিডনি আমাদের অমূল্য একটি সম্পদ এটি সঠিকভাবে ঠিক রাখতে গুরুত্বপূর্ণ কাজ করবেন। 

আপনার যদি কিডনিতে সমস্যা হয়ে থাকে তাহলে আপনারা বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের সাথে অবশ্যই অবশ্যই পরামর্শ করবেন। 

আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের যদি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন। 

এ ছাড়াও আপনাদের যদি কোন ধরনের প্রশ্ন অথবা মতামত থাকে তাহলে আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। 

আপনারা অনেকেই অনলাইন থেকে টাকা আয় করে নিজেদের স্বাবলম্বী করতে চান। 

তবে অনলাইন কাজের নানান দিক সম্পর্কে আপনাদের জানা থাকে না যার কারণে আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে কাজ করতে পারেন না। 

আবার অনেকের অনলাইন কাজ সম্পর্কে জানা সত্ত্বেও সঠিক প্লাটফর্ম খুঁজে না পেয়ে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন। 

আমাদের ওয়েবসাইটে কিভাবে আপনারা অনলাইনে কাজ শুরু করবেন এবং কোন প্লাটফর্মে আপনাদের জন্য কাজ করলে সবচেয়ে বেশি সুবিধা হবে এ সংক্রান্ত অনেকগুলো আর্টিকেল রয়েছে। 

কিভাবে আপনারা অনলাইনে কাজ করবেন সে সম্পর্কেও আমাদের ওয়েবসাইটে আর্টিকেল রয়েছে। 

তাই  অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন এবং সেই আর্টিকেলগুলো পড়ুন।

আমাদের ওয়েবসাইট সংক্রান্ত সকল আপডেট গুলো সবার আগে পেতে চোখ রাখুন আমাদের ফেসবুক পেইজে

Leave a Comment

3 + 20 =