বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে?

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে? আপনাদের অনেকের মনে হয়তো এ বিষয়টি নিয়ে অনেক দিনের প্রশ্ন জমে আছে। বাংলাদেশ তো একটি স্বাধীন দেশ সার্বভৌম দেশ।  তেমনি দেশের পতাকা ও স্বাধীন এই পতাকার ডিজাইনটি কার দ্বারা তৈরি। এ বিষয়টি নিয়ে সকলের মনে কৌতুহল থাকাটাই স্বাভাবিক। 

প্রিয় পাঠক আজকের এয়ারটেল এর মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইন কে করেছেন সে বিষয়ে আপনাদের কে সম্পূর্ণ বিস্তারিত জানাবো। আমাদের এই সুন্দর পতাকাটি যা সারা বিশ্বে আমাদের দেশের পরিচয় বহন করছে তা কে ডিজাইন করেছে তা জানা আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমরা এটিকে আমাদের সাধারন জ্ঞান হিসেবে ধরতে পারি। 

জাতীয় শোক দিবসের সংক্ষিপ্ত বক্তব্য

নানান ধরনের পরীক্ষায় এ বিষয়ে নানান ধরনের প্রশ্ন আসতে পারে। অনেক সময় চাকরির পরীক্ষা দিতে গেল এ ধরনের প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়। আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়লে এ বিষয় নিয়ে কোনো ধরনের সমস্যায় পড়তে হবে না।

জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে

জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে
জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে

প্রতিটি দেশের পতাকায় তাদের নিজেদের দেশের পরিচয় বহন করে থাকে। 

একেক দেশের পতাকা একেক ধরনের হয়ে থাকে। ডিজাইনের দিক থেকে কালারের দিক থেকে সকল দেশের পতাকায় ভিন্ন। 

আমাদের আজকের প্রশ্ন হলো বাংলাদেশের পতাকার ডিজাইনার কে?

 বাংলাদেশের পতাকার ডিজাইনার হচ্ছেন কামরুল হাসান। 

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার সবুজ আয়তক্ষেত্রের মধ্যে লাল বৃত্ত। সবুজ রং বাংলাদেশের পরিবেশ প্রাকৃতিক সবুজ সজীবতার পরিচয় বহন করে এবং এর মাঝে লাল রং উজ্জ্বল স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মোৎসর্গকারীদের রক্তের প্রতীক।

আমাদের বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার এই রুপটি সরকারীভাবে গৃহীত হয় ১৯৭২ সালের ১৭ জানুয়ারি।

১৯৭২ সালে শেখ মুজিবুর রহমানের সরকার সর্বপ্রথম শিবনারায়ণ দাসের ডিজাইনকৃত পতাকার মাঝে যে মানচিত্র ছিল সেই মানচিত্র বাদ দিয়ে পতাকার মাপ ও তার ব্যাখ্যা সম্বলিত একটি প্রতিবেদন দিতে বলেন কামরুল হাসানকে।

কামরুল হাসান দ্বারা নতুনত্ব পরিমার্জিত করে যে রূপটি বর্তমান বাংলাদেশের পতাকার  রয়েছে এটি হল বর্তমান বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা।

তবে সর্বপ্রথম বাংলাদেশের পতাকার লাল বৃত্তের মাঝে যে মানচিত্র সহকারে পতাকাটি ছিল সেটি ডিজাইনার ছিলেন শিবনারায়ণ দাশ।

মূলত তার ডিজাইনকৃত পতাকাকে নতুনত্ব প্রদান করেছে কামরুল হাসান।

১৫ অগাস্ট বাংলাদেশ – শোক দিবস।

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা 

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকাটি আমাদের দেশের জাতি এবং রাষ্ট্রের জাতীয় পরিচয় এর প্রতীক। গারো সবুজ বর্ণের আয়তক্ষেত্রের মাঝখানে একটা ভরাট রক্তিম বৃত্ত নিয়ে এটা তৈরি হয়েছে।

বর্তমানে বাংলাদেশের পতাকার দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ এর অনুপাত ১০ঃ৬।

পতাকার মাঝখানে যে লাল বৃত্তটি রয়েছে তার ব্যাসার্ধ হবে পতাকার দৈর্ঘ্যের পাঁচ ভাগের এক ভাগ।

আরও পড়ুনঃ

পৃথিবীতে কয়টি মুসলিম দেশ আছে?

আমরা পৃথিবীর কোথায় বাস করি?

পৃথিবীর সবচেয়ে জ্ঞানী ব্যক্তি কে?

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে FAQS

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে?

বর্তমান বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার হলেন কামরুল হাসান।

সর্বপ্রথম বাংলাদেশের পতাকার ডিজাইন কে করেছেন?

সর্বপ্রথম বাংলাদেশের পতাকার ডিজাইন করেছেন শিবনারায়ণ দাস।

বাংলাদেশের পতাকার মাপ কত?

বাংলাদেশের পতাকার মাপ দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ এর অনুপাত ১০ঃ৬। লাল বৃত্তের ব্যাসার্ধ পতাকার দৈর্ঘ্যের ৫ ভাগের ১ ভাগ।

উপসংহার 

আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে এবং বাংলাদেশের পতাকা সম্পর্কে জেনেছি।

মূলত আমাদের এই পতাকাটি আমাদের দেশের বাঙালি জাতির পরিচয় বহন করে।

আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগেছে। 

আপনাদের যদি এই বিষয়ে কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকে তাহলে আমাদেরকে কমেন্টের মাধ্যমে শেয়ার করবেন। 

অনলাইন থেকে ঘরে বসে টাকা আয় এবং নানান ধরনের শিক্ষামূলক আর্টিকেল সম্বন্ধে পড়তে এবং জানতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। 

আমাদের ওয়েবসাইটে অনলাইন থেকে কিভাবে আপনি আপনার নিজের ক্যারিয়ার তৈরি করতে পারেন সে সম্পর্কে ইতিমধ্যে অনেকগুলো আর্টিকেল প্রদান করা হয়েছে। 

আমাদের সম্পর্কিত সকল আপডেট পেতে ভিজিট করুন আমাদের ফেসবুক পেজটি। 

ধন্যবাদ। 

Leave a Comment

17 + 17 =