ইন্টারনেট কি? ইন্টারনেট কাকে বলে | What is Internet In Bangla

ইন্টারনেট কি? ইন্টারনেট কাকে বলে এই বিষয় সম্পর্কে এখন অনেকেই জানতে চান। ইন্টারনেটকে কখনও কখনও সহজভাবে বলা হয় “দ্য নেট”, কম্পিউটার নেটওয়ার্কের একটি বিশ্বব্যাপী সিস্টেম। এটি এমন একটি নেটওয়ার্ক যেখানে এক কম্পিউটারের ব্যবহারকারীদের অনুমতি থাকলে ( সরাসরি কথা বলা ও দেখাও সম্বভ) অন্য কম্পিউটার থেকে তথ্য অ্যাক্সেস করতে পারে।

এটি 1969 সালে মার্কিন সরকারের মিলিটারি অ্যাডভান্সড রিসার্চ প্রজেক্টস এজেন্সি (এআরপিএ) দ্বারা কল্পনা করা হয়েছিল এবং এটি প্রথমে আরপানেট নামে পরিচিত ছিল। ইন্টারনেট তখন থেকে বিশ্বব্যাপী লক্ষ লক্ষ লোক এবং একাধিক কম্পিউটার সিস্টেমকে সংযুক্ত করে একটি বিশ্বব্যাপী নেটওয়ার্কে পরিণত হয়েছে।

ইন্টারনেট “ব্যাকবোন” নামে পরিচিত অনেক ছোট নেটওয়ার্ক নিয়ে গঠিত। ব্যাকবোন হল বড় চ্যানেল যার মাধ্যমে তথ্য T1 লাইন এবং ফাইবার অপটিক তারের মাধ্যমে প্রবাহিত হয়। এই ব্যাকবোনে, কম্পিউটারগুলি সংযুক্ত থাকে এবং তথ্য এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে প্রেরণ করা যায়। কম ট্রাফিক সহ ছোট নেটওয়ার্কগুলি ব্যাকবোনের সাথেও লিঙ্ক করতে পারে। এই ছোট নেটওয়ার্কগুলিকে “অ্যাক্সেস প্রদানকারী” বা “ISPs” বলা হয়৷

ইন্টারনেট কি? – What is Internet In Bangla

ইন্টারনেট কি? ইন্টারনেট কাকে বলে
ইন্টারনেট কি? ইন্টারনেট কাকে বলে

সর্বোপরি ইন্টারনেট হচ্ছে একটি ইন্টারকানেক্টেড নেট্ওয়ার্কের (interconnected network) সংক্ষিপ্ত রূপ। এটা বিশেষ গেটওয়ে বা রাউটারের মাধ্যমে কম্পিউটার নেটওয়ার্ক গুলোকে একে-অপরের সাথে সংযোগ করার মাধ্যমে গঠিত হয়ে থাকে। ইন্টারনেটকে অনেকে শর্ট করে “নেট” বলা হয়ে থাকে।

তবে মনে রাখবেন ইন্টারনেট নিজেই একটি একক নেটওয়ার্ক নয়। পৃথক কম্পিউটার এবং লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (LAN) টেলিফোন লাইন বা রেডিও তরঙ্গ বা উচ্চ-গতির তারের মাধ্যমে সংযুক্ত থাকে ইন্টারনেট।

আড়ও পড়ুনঃ

বিকাশ থেকে লোন নেওয়ার উপায়

Happy Valentines Day SMS Bangla

বিদ্যুৎ বিল হিসাব করার নিয়ম কি?

একটি ই-মেইল ইন্টারনেটের একটি প্রধান ব্যবহার হয়ে উঠেছে, যা মানুষকে প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে বার্তা পাঠাতে দেয়। 

আমেরিকা অনলাইন, আর্থলিঙ্ক এবং প্রডিজির মতো ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারীদের ওয়েবসাইটে বিনামূল্যে ই-মেইল অ্যাকাউন্ট সেট আপ করা যেতে পারে। 

একটি ই-মেইল ঠিকানা হল একটি একক শব্দ বা বাক্যাংশ যা প্রতিটি বার্তার শুরুতে “To” এবং “Cc” ক্ষেত্রে স্থাপন করা হয়। 1,000 অক্ষর পর্যন্ত বার্তা পাঠাতে ই-মেইল ঠিকানা ব্যবহার করা যেতে পারে। 

একটি সাধারণ ই-মেইল অ্যাকাউন্টের জন্য কোন খরচ হবে না, যার মধ্যে ইন্টারনেট অ্যাক্সেস এবং মাসিক বার্তা বরাদ্দ রয়েছে।

ইন্টারনেট ব্যবহারের অনেক সুবিধা রয়েছে।

এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে দ্রুত তথ্য স্থানান্তর করার ক্ষমতা একটি উদাহরণ। 

আড়ও পড়ুনঃ

নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার নিয়ম

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক

ইন্টারনেট ব্যবহার করে লোকেরা তাদের নিজস্ব ওয়েব পৃষ্ঠা তৈরি করতে পারে এবং এতে ফটো এবং ব্যক্তিগত তথ্য অন্তর্ভুক্ত করতে পারে, যেমন জন্মদিন এবং চিকিৎসা রেকর্ড। 

ওয়েব পৃষ্ঠাগুলি অন্যান্য ওয়েব পৃষ্ঠাগুলির সাথে লিঙ্ক করতে পারে এবং ব্যবহারকারীরা একটি সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে ইন্টারনেট অনুসন্ধান করতে পারে। 

সহজ শব্দে ইন্টারনেট কাকে বলে?

ইন্টারনেট হচ্ছে এমন একটি কম্পিউটার নেটওয়ার্ক যে নেটওয়ার্কে পৃথিবীর নানা তথ্য এক জায়গায় একটি বিশেষ মাধ্যমে একে অন্যের সাথে সম্পর্কিত হয়ে রয়েছে।

ইন্টারনেট হচ্ছে ইন্টার কানেক্টেড হয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বড় তথ্যভান্ডার। সেই সাথে সব থেকে বড়ো এবং ব্যস্ত একটি নেটওয়ার্ক।

সোজা ও সহজ ভাবে বললে, বিশ্বের সব কম্পিউটার গুলি যেই নেটওয়ার্ক দ্বারা একে আরেকটির সাথে সংযুক্ত হয়ে আছে, সেই নেটওয়ার্কটি হলো ইন্টারনেট।

যখনি আমরা, আমাদের মোবাইল বা কম্পিউটারে নেটওয়ার্কের সাথে সংযুক্ত হয়ে যাই, তখন আমরা ইন্টারনেট নেটওয়ার্কের একটি বিশাল তথ্য ভান্দারের সাথে সংযুক্ত হয়ে জাই। এবং একে “Global network” বলা হয়ে থাকে।

এখন, যেই Global network এর সাথে আমরা সংযুক্ত (connect) হয়ে আছি, তার সাথে কানেক্টেড (connected) যেকোনো কম্পিউটারে থাকা যেকোনো তথ্য আমরা আমাদের কম্পিউটার বা ডিভাইসে প্রাপ্ত করতে পারি।

তাই এখন ইন্টারনেট কি? ও ইন্টারনেট কাকে বলে বললে বলতে পারি, যে কোন ডিভাইসের মাধ্যমে ইন্টারনেট এর সাথে connect হয়ে, বিশ্বের অন্য অন্য তথ্য ভান্ডারে থাকা বিভিন্ন তথ্য, ফাইল বা ডকুমেন্ট গ্রহণ করার জন্য ব্যবহার করা কম্পিউটার নেটওয়ার্কটি হলো ইন্টারনেট।

আড়ও পড়ুনঃ

ব্লগ লিখে আয় করার উপায় | প্রতিদিন পেমেন্ট

কিভাবে ব্লগার হওয়া যায়

তাহলে, আমারা বলতে পারি আপনি জানতে পেরেছেন ইন্টারনেট কি ও কাকে বলে।

ইন্টারনেট মানে কি” কি এই সম্পর্কে আপনার জন্য আরও কিছু তথ্য এখন হয়েছে।

ইন্টারনেটের কী কী উপকারিতা

ব্যবহারকারীদের খবর, তথ্য এবং বিনোদন (সঙ্গীত, চলচ্চিত্র, টেলিভিশন, গেম) তাত্ক্ষণিক অ্যাক্সেস আছে।

লোকেরা অনেকগুলি অনলাইন স্টোরের মধ্যে থেকে একটিতে গিয়ে ইন্টারনেটে কেনাকাটা করতে পারেন।

অনলাইন শপিং 24-ঘন্টা পরিষেবা এবং খুব প্রতিযোগিতামূলক মূল্য অফার করে গ্রাহকদের জন্য কোন ফিজিক্যাল সপ ছাড়াই।

বর্তমানে ইন্টারনেট থেকে লোকেরা ঘরে বসে প্রচুর পরিমাণ অর্থ আয় করতে পারছেন.

এই ইন্টারনেট ব্যাবহার করে লোকেরা তাদের জীবনে লাইফ স্টাইল পরিবর্তন করতে পারছেন এবং ইন্টারনেট ব্যবহার করে সহজেই নিজেদের আরো অনেক বেশি উচ্চতায় নিয়ে যাচ্ছেন।

নিজেদের সফলতাকে দুনিয়ার সামনে প্রকাশ করছেন এবং নিজেরা জানাচ্ছেন যে কি করেন এবং অন্যরা কি করলে তাদের এই প্রতিষ্ঠানে পড়তে পারবেন।

ইন্টারনেট অপকারিতা কি?

যে কোন বস্তুর উপকার এবং অপকার উভায় দিক রয়েছে। ইন্টারনেটও এই জায়গাতে ব্যতিক্রম নয়। 

সঠিকভাবে ব্যবহার করলে কোন কিছুরই অপকারী দিক নিয়ে ভাবার প্রয়োজন নেই।

তবে নিজেকে সজাগ ও সবসময় সঠিক পদ্ধতি অনুসরণ করলে ইন্টারনেটের অপকারিতার থেকে উপকারী দিক লোকেদের জন্য বেশি হয়ে থাকে।

এই নিবন্ধটি আপনাকে কীভাবে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হয় এবং এটি ব্যবহারের সুবিধাগুলি কী তা দেখাবো।

বর্তমান অর্থনৈতিক ব্যবস্থা ও চিকিৎসা ব্যবস্থা ও মানুষের দূরদর্শিতাকে কাজে লাগিয়ে ইন্টারনেট দিয়ে লোকেরা নানা ধরনের যুগোপযোগী কাজ করছে এবং একটি জাতিগত উন্নতির জন্য বর্তমানে ইন্টারনেটের বিকল্প নেই।

বাংলাদেশ সরকার ২০১২ সাল থেকে বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে বর্তমানে কাজ করে যাচ্ছে।

সেই ধারাবাহিকতায় আপনারা দেখতে পাচ্ছেন বাংলাদেশে অনেক কিছু ডিজিটাল হচ্ছে জন্ম নিবন্ধন থেকে ভোটার আইডি কার্ড ডিজিটাল বাংলাদেশের অংশ।

নেতিবাচক দিক থেকে, মানুষের পক্ষে ইন্টারনেটে অন্যদের ছদ্মবেশ ধারণ করা এবং পরিষেবা বা অর্থ চুরি করাও সহজ।

মানুষের ক্রেডিট কার্ড নম্বর বা অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য পেতে ইন্টারনেটে ই-মেইল বা যোগাযোগের অন্যান্য ফর্ম ব্যবহার করে এমন অসংখ্য স্ক্যাম রয়েছে।

এই ক্ষেত্রে, ইন্টারনেট মূলত একটি বিশাল লাইব্রেরি যার তথ্য বিশ্বের সকলের কাছে বিনামূল্যে পাওয়া যায়।

ইন্টারনেট বেবহারের প্র্যজনিয়তা? 

ইন্টারনেট আমাদের জীবনে বিপ্লব ঘটিয়েছে।

আমরা কীভাবে যোগাযোগ করি, আমরা কীভাবে কেনাকাটা করি এবং কীভাবে আমরা বন্ধু এবং পরিবারের সাথে যোগাযোগ রাখি।

Therefore, ইন্টারনেট হল আবিষ্কারের চূড়ান্ত হাতিয়ার এবং এটি সারা বিশ্বের মানুষের জন্য অনেক সম্ভাবনার দ্বার উন্মুক্ত করেছে।

ইন্টারনেট আমাদের জীবনকে আরও ভালো করে তোলার কিছু উপায় অন্বেষণ করি।

Above all, ইন্টারনেট আমাদের জীবনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

যখন আমাদের কারো সাথে তথ্য খোঁজার বা যোগাযোগের প্রয়োজন হয়, ইন্টারনেট আমাদের সাহায্য করে।

ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম

কীভাবে ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম করা যায় এমন একটি প্রশ্ন যা অনেকে ইন্টারনেট ব্যাবহারকারীর মনে।

তবে ইন্টারনেট কি পোস্টে আপনাকে বলছি এই বিষয়ে ইন্টারনেটই আপনাকে সাহায্য করতে পারে সব থেকে বেশি, আপনাকে শুধু নিজের জন্য উত্তর সঠিক উত্তর খুজে নিতে হবে।

ইন্টারনেট আপনার জন্য একটি খুব লাভজনক মাধ্যম হতে পারে যদি আপনি এটি ব্যবহার করতে জানেন।

বর্তমানে ইন্টারনেট টাকা ইনকাম করার জন্য প্রচুর সুযোগ দেয়, তবে এটি নিশ্চিত করাও খুব গুরুত্বপূর্ণ যে আপনি ভুল ওয়েবসাইটে আপনার সময় নষ্ট করবেন না।

আরও পড়ুনঃ

মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

CPA Marketing Bangla Meaning

ইন্টারনেট কি? কাকে বলে

সর্বোপরি, ইন্টারনেট হচ্ছে বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেটওয়ার্কিং ব্যবস্থা যে ব্যবস্থার মাধ্যমে সারা বিশ্বের খবরা-খবর এবং নানাবিধ এই কর্মকাণ্ড নিমিষেই করা যায়।

ইন্টারনেট কি ধরনের নেটওয়ার্ক?

ইন্টারনেট হচ্ছে একটি ইন্টারকানেক্ট নেটওয়ার্কস। যেখানে বিশ্বের নানা প্রান্তের তথ্য ভান্ডার রয়েছে লোকেরা তাদের প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

উপসংহার,

আশা করি আপনি ইন্টারনেট কি? ইন্টারনেট কাকে বলে এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। 

ইন্টারনেটের ব্যাপক তথ্য ভাণ্ডার থেকে আপনি আপনার জ্ঞান কে সমৃদ্ধ করুন, সঠিক বিষয়টি শিখার মাধ্যমে।

বর্তমান যুবসমাজে এমন লোক রয়েছে যারা ইন্টারনেটের ব্যবহারের মাধ্যমে নিজেদের ক্ষতি করছেন, তাই আপনি এমনটা করবেন না ইন্টারনেটের সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে নিজেকে আরও বেশি যুগোপযোগী ও ডিজিটাল করে তুলুন।

সবশেষে বলব ইন্টারনেট কি সম্পর্কে পোস্টটি ভাল লাগলে আপনি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন।

এবং জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Leave a Comment

17 + 3 =