ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমণের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বন্ধুকে চিঠি লিখার সহজ নিয়ম

প্রিয় পাঠকগণ ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমণের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বন্ধুকে চিঠি কিভাবে লিখতে হয় এ বিষয়টি সম্পর্কে আমরা অনেকেই জিজ্ঞাসা করেছি। আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদেরকে জানাবো কিভাবে আপনারা যে কোন ভ্রমণ সম্পর্কে আপনার বন্ধু কিংবা আপনার কাছের কোন মানুষ কে জানাবেন কিভাবে সেই সম্পর্কে। 

মূলত আমরা বাংলা দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষার সময় এ ধরনের চিঠি লিখতে প্রশ্নে উল্লেখ করা হয়ে থাকে। আপনারা যখন পরীক্ষার খাতায় চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই আপনাকে সঠিক নিয়মে চিঠি লিখতে হবে।

চিঠিতে কি কি ব্যবহার করতে হয় কোথায় কিভাবে চিঠি লিখতে হবে সেটি আজকে নমুনা করে আপনাদেরকে দেখাবো।

ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমণের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বন্ধুকে পত্র

ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমণের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বন্ধুকে পত্র
ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমণের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বন্ধুকে পত্র

প্রিয় পাঠকগণ কিভাবে আপনারা বন্ধুদের উদ্দেশ্যে পত্র লিখবেন সেটি নিচে নমুনা করে দেখানো হলো –

৬ রুপগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ 

১৫ই সেপ্টেম্বর, ২০২২

প্রিয় ওয়াসিম,

প্রীতি ও শুভেচ্ছা রইল। আশা করি তোমার আব্বা, আম্মা ও ভাই- বোনদেরকে নিয়ে ভালো আছ। গতকাল তোমার চিঠি পেয়ে তোমার বর্তমান অবস্থা বিস্তারিত জানতে পারলাম। 

গত চিঠিতে তোমাকে লিখেছিলাম শরৎকালীন ছুটিতে ভাই-ভাবির সঙ্গে বেড়াতে যাব। কিন্তু বেড়ানোর জায়গাটি যে এত চমৎকার হবে তা ভাবতে পারিনি।

গতকাল আমরা ইতিহাসপ্রসিদ্ধ সোনারগাঁও দেখে এসেছি। ছোটবেলায় বইপুস্তকে পড়েছি বাংলার প্রখ্যাত বারো ভূঁইয়াদের কাহিনি।

তাদের একজন স্বনামধন্য স্বাধীনচেতা বীর ছিলেন ঈশা খাঁ। তাঁরই অমর কীর্তিময় রাজধানী সোনারগাঁও।

এর প্রাকৃতিক শোভা, প্রাচীন স্থাপত্য নিদর্শনের বিমোহিত চিত্র চিঠিতে লিখে তোমাকে আমি ঠিক বোঝাতে পারব কিনা জানি না।

তবুও কিছুটা হলেও সেই সৌন্দর্যের চিত্র তুলে ধরতে চেষ্টা করব। 

সকাল সাতটায় খাওয়াদাওয়া সেরে আমরা সোনারগাঁওয়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা করলাম। সকাল নটায় সেখানে পৌঁছলাম।

রাস্তার পাশে ভগ্নপ্রায় বিরাট দ্বিতল ইমারত, সামনে মস্ত পুকুরের পাশে গাছের সারি।

শান বাঁধানো ঘাটে ঘোড়ার পিঠে বীরযোদ্ধার পাথরের খোদাই করা গর্বিত প্রতিমূর্তি স্মরণ করিয়ে দেয় বাংলার অবলুপ্ত শৌর্য-বীর্যের কথা।

আর একটু এগিয়ে যেতেই দেখলাম শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনের প্রচেষ্টায় নির্মিত বাংলার লোকশিল্প ও কারুশিল্প জাদুঘর।

এখান থেকে শুরু ঈশা খাঁর রাজধানীর মূল ভবন। রাস্তার দুপাশে রয়েছে অনেক পুরোনো অট্টালিকা।

প্রতিটি অট্টালিকায় রয়েছে প্রাচীন যুগের স্থাপত্য নিদর্শন।

বাংলাদেশ সরকার পুরাকীর্তি সংরক্ষণ বিভাগের অধীনে সোনারগাঁওয়ের ধ্বংসপ্রায় প্রাসাদসমূহকে সংস্কার ও সংরক্ষণের আওতায় এনেছে। 

উত্থান-পতনের ধারা বেয়ে আজকের ধ্বংসপ্রায় সোনারগাঁও হয়তো একদিন বিলীন হয়ে যাবে। কিন্তু সোনারগাঁওয়ের স্মৃতি আমার মানসপটে চিরদিনই অমলিন থাকবে। সময় পেলে তুমিও বাংলার ইতিহাসপ্রসিদ্ধ স্থান সোনারগাঁও দেখে এসো। 

আমি ভালো আছি। তোমার পড়াশোনা কেমন চলছে জানাবে। তোমার আব্বা-আম্মাকে আমার সালাম জানাবে। 

ইতি—

তোমার প্রীতিমুগ্ধ

সজীব

আরও পড়ুনঃ

ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস প্রতিষ্ঠা করেন কে?

চাকরির জন্য আবেদন পত্র

আর্থিক অনুদানের জন্য আবেদন পত্র

ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমণের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বন্ধুকে চিঠি FAQS

ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমণের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বন্ধুকে চিঠি কিভাবে লিখতে হয়?

আপনি যখন আপনার বন্ধুকে কোন বিষয়ে লিখবেন তখন মনে রাখতে হবে কোন ভাবে যেন বেশি কাটাকাটি না হয়। আপনার লেখার লাইন গুলো যেন সোজা থাকে।

উপসংহার 

প্রিয় পাঠকগণ আজকের এই আর্টিকেলে ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমণের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বন্ধুকে চিঠি কিভাবে আপনারা লিখবেন তার নমুনা আপনাদেরকে প্রদান করা হয়েছে।

আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভাল লেগেছে এবং আজকের এই আর্টিকেল থেকে আপনারা চিঠি লেখার সঠিক ফরমেটটি পেয়ে গিয়েছেন।

আপনারা অবশ্যই এ বিষয়ে আপনাদের কোন প্রশ্ন অথবা মতামত যদি থাকে তাহলে কমেন্ট এর মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না।

আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে কাজ করার জন্য অনেকেই আগ্রহ প্রকাশ করে থাকেন। 

কিন্তু কিভাবে আপনারা অনলাইনে কাজ করবেন সে সম্পর্কে আপনাদের তেমন কোন ধারণা নেই। 

আপনার যদি ইচ্ছা থাকে আপনি অনলাইনে কাজ করবেন তাহলে আপনার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে অনেকগুলো আর্টিকেল রয়েছে যে গুলো পড়লে আপনারা অনলাইন কার সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে যাবেন।

তাই অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করে অনলাইন কাজগুলো সম্পর্কে জেনে নিন।

এছাড়াও আমাদের রয়েছে সংক্রান্ত সকল আপডেট গুলো সবার আগে পেতে আমাদের এছাড়াও আমাদের রয়েছে সংক্রান্ত সকল আপডেট গুলো সবার আগে পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে ফলো করে রাখুন।

Leave a Comment

five × one =