ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি কি কি? ন্যাটো দেশের তালিকা

ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি কি কি এ সম্পর্কে আপনি জানেন কি? ন্যাটোকে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় সামরিক জোট হিসেবে বিবেচনা করা হয় বর্তমান সময়ে। আজকের আর্টিকেলে আমরা ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি কি কি এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবো।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামরিক জোট হলো ন্যাটো। ন্যাটোর অন্তর্ভুক্ত দেশগুলোর কোনটি যদি বহির্বিশ্বের কোনো দেশ দ্বারা আক্রমনের স্বীকার হয়। তাহলে ন্যাটো সম্মিলিতভাবে সেই আক্রমন প্রতিহত করবে। 

ন্যাটো কি? NATO Full form? বাংলায় Nato এর পূর্ণরূপ কি?

ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি কি কি
বিশ্বব্যাপী ন্যাটোর ভূমিকা কি

NATO Full form is “The North Atlantic Treaty Organization”। Nato meaning in bengali বা ন্যাটো বাংলা অর্থ হচ্ছে উত্তর আটলান্টিক চুক্তি সংস্থা। ন্যাটো ১৯৪৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

এটি ইউরোপ এবং উত্তর আমেরিকার ৩০ টি দেশের একটি গ্রুপ যা এর সদস্যদের জনগণ এবং অঞ্চল রক্ষার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। 

এই জোটটি সম্মিলিত প্রতিরক্ষা নীতির উপর প্রতিষ্ঠিত, যার অর্থ যদি একটি ন্যাটো মিত্র দেশকে আক্রমণ করা হয়, তবে সমস্ত ন্যাটো মিত্রদের আক্রমণ করা হয়।

উদাহরণস্বরূপ, ২০০১ সালে যখন সন্ত্রাসীরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আক্রমণ করেছিল, তখন সমস্ত ন্যাটো মিত্ররা আমেরিকার পাশে দাঁড়িয়েছিল যেন তাদেরও আক্রমণ করেছিল।

২০১৪ সাল থেকে, ন্যাটো শীতল যুদ্ধের পর থেকে তার যৌথ প্রতিরক্ষায় সবচেয়ে বড় বৃদ্ধি বাস্তবায়ন করেছে।

তাদের উদ্দেশ্য সংঘাত উস্কে দেওয়া নয়, বরং প্রতিরোধ করা। তবে কিছু ক্ষেত্রে তাদের আচরণ ভিন্ন বলে মনে হচ্ছে। যেমন, ফিলিস্তান ও বর্মা ইস্যু।

আরও পড়ুনঃ

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি ও গাইডলাইন

Robi Minute Bundle Offer

মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

বিশ্বব্যাপী ন্যাটোর ভূমিকা কি?

আমাদের আশেপাশে স্থিতিশীলতা প্রচার করা এবং বাড়িতে আমাদের লোকেদের রক্ষা করার অর্থ কখনও কখনও আরও দূরে পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে। ৯০ এর দশকে ন্যাটো বসনিয়া এবং কসোভোতে রক্তপাত বন্ধ করে দেয়। 

২০০৩ সাল থেকে ন্যাটো আফগানিস্তান যে আর আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর নিরাপদ আশ্রয়স্থল নয় তা নিশ্চিত করতে সাহায্য করেছে। ন্যাটো হর্ন অফ আফ্রিকা থেকে জলদস্যুতা প্রতিরোধে সহায়তা করেছে।

২০১৬ সাল থেকে ইউরোপে শরণার্থী এবং অভিবাসী সংকট মোকাবেলায় সহায়তা করেছে।

সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ন্যাটো একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আফগানিস্তানে স্থানীয় বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দিতে ১৩০০০ টিরও বেশি ন্যাটো সৈন্য অবদান রাখে। 

আরও পড়ুনঃ

ই পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে 

Jonmo Nibondhon online check

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো?

ন্যাটো পরিকল্পনা

NATO এছাড়াও IS কে পরাজিত করার জন্য গ্লোবাল কোয়ালিশনের পূর্ণ সদস্য এবং আমাদের AWACS নজরদারি বিমান কোয়ালিশনকে সমর্থন করে চলেছে। আইএসআইএসের বিরুদ্ধে আরও ভালোভাবে লড়াই করার জন্য ন্যাটো ইরাকি বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে।

কারণ সন্ত্রাস, জলদস্যুতা এবং সাইবার যুদ্ধের মতো হুমকি কোনো সীমানা জানা থাকে না। তাই ন্যাটো তার বৈশ্বিক অংশীদারদের সাথে সহযোগিতা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এই কারণেই নানা স্থিতিশীলতা এবং নিরাপত্তা ছড়িয়ে দিতে বিশ্বজুড়ে ৩০ টি অংশীদার দেশ একসাথে কাজ করে থাকে।

তাছাড়াও জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, অর্গানাইজেশন ফর সিকিউরিটি অ্যান্ড কোঅপারেশন ইন ইউরোপ (OSCE) এবং আফ্রিকান ইউনিয়নের মতো সংস্থাগুলি একসাথে কাজ করে থাকে। 

যখনই ন্যাটো একটি মিশন পরিচালনা করে, তখন স্বতন্ত্র মিত্ররা একীভূত ন্যাটো কমান্ডের অধীনে সৈন্য ও সরঞ্জাম স্থাপনের প্রতিশ্রুতি দেয়। এগুলো “ন্যাটো বাহিনী” নামে পরিচিত। ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি কি কি তা খানিকক্ষণ পর আলোচনা করা হবে। 

ন্যাটোর মালিকানাধীন একমাত্র সামরিক সরঞ্জাম হল AWACS (এয়ারবর্ন ওয়ার্নিং অ্যান্ড কন্ট্রোল) নজরদারি বিমানের একটি বহর। ন্যাটো গ্লোবাল নজরদারি ড্রোনের জন্যও একটি সক্ষমতা তৈরি করছে।

প্রতিটি ন্যাটো দেশ জোট পরিচালনার খরচে অবদান রাখে। এখন পর্যন্ত মিত্রদের সবচেয়ে বড় অবদান আসে ন্যাটো-নেতৃত্বাধীন মিশন এবং অপারেশনগুলিতে অংশ নেওয়ার আকারে। 

উদাহরণস্বরূপ, একটি দেশ ফাইটার জেট সরবরাহ করতে পারে, যখন অন্য দেশ জাহাজ, সরঞ্জাম বা সৈন্য সরবরাহ করে।

ন্যাটো মিত্ররা ন্যাটোর কর্মীদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা, এর কমান্ড স্ট্রাকচার এবং AWACS বিমানের মতো যৌথ মালিকানাধীন সরঞ্জামের খরচ মেটাতে ন্যাটোকে সরাসরি তহবিল সরবরাহ করে।

২০১৪ সালে ওয়েলস সামিটে, ন্যাটো মিত্ররা প্রতিরক্ষায় আরও ভালো বিনিয়োগ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। ২০২৪ সালের মধ্যে ন্যটো অন্তর্ভুক্ত দেশগুলো প্রতিরক্ষা খাতে জিডিপির 2% ব্যয় করার দিকে অগ্রসর হবে এবং এর 20% প্রধান সরঞ্জামগুলিতে ব্যয় করবে।

গত তিন বছরে ইউরোপীয় মিত্র ও কানাডা প্রতিরক্ষা খাতে প্রায় ৪৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি খরচ করেছে।

ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি কি কি? What are the member countries of NATO?

বর্তমান ন্য্যাটোর সদস্য দেশ হলো ৩০ টি। এর মধ্যে ২৮ টি ইউরোপের আর ২ টি উত্তর আমেরিকার। ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি কি কি তার নাম নিচে দেওয়া হলোঃ 

ন্যাটোর সদস্য দেশের সংখ্যা ৩০ টি।

  1. বেলজিয়াম, 
  2. কানাডা,
  3.  ডেনমার্ক,
  4.  ফ্রান্স,
  5.  আইসল্যান্ড,
  6.  ইতালি,
  7.  লুক্সেমবার্গ,
  8.  নেদারল্যান্ডস,
  9.  নরওয়ে,
  10.  পর্তুগাল,
  11.  যুক্তরাজ্য
  12.  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
  13.  গ্রীস
  14.  তুর্কি (1952),
  15.  জার্মানি (1955),
  16.  স্পেন (1982),
  17. চেক প্রজাতন্ত্র,
  18.  হাঙ্গেরি 
  19. পোল্যান্ড (1999),
  20.  বুলগেরিয়া,
  21.  এস্তোনিয়া,
  22.  লাটভিয়া,
  23.  লিথুয়ানিয়া,
  24.  রোমানিয়া,
  25.  স্লোভাকিয়া
  26.  স্লোভেনিয়া (2004) , 
  27.  আলবেনিয়া 
  28. ক্রোয়েশিয়া (2009),
  29.  মন্টিনিগ্রো (2017)
  30.  উত্তর মেসিডোনিয়া (2020)।

আরও পড়ুনঃ

বিটকয়েন কি

How to add bkash priyo number

CPA Marketing Bangla Meaning

ন্যাটোর নীতি – ওপেন ডোর পলিসি 

এটি হল ন্যাটোর একটি প্রতিষ্ঠাতা নীতি এবং এর অর্থ হল ইউরো-আটলান্টিক অঞ্চলের যেকোনো দেশ ন্যাটোতে যোগদান করতে স্বাধীন যদি তারা সদস্যতার মান ও বাধ্যবাধকতাগুলি পূরণ করতে প্রস্তুত হয়।

জোটের নিরাপত্তায় অবদান রাখে এবং ন্যাটোকে ভাগ করে নেয়। এটি গণতন্ত্র, সংস্কার এবং আইনের শাসনের মূল্যবোধের উপর প্রতিষ্ঠিত। ১৯৪৯ সাল থেকে, ন্যাটোর সদস্য সংখ্যা 12 থেকে 30 টি দেশে উন্নীত হয়েছে।

2020 সালে ন্যাটো জোটের 30 তম সদস্য হিসাবে উত্তর মেসিডোনিয়াকে স্বাগত জানিয়েছি।

সাইবার-আক্রমণগুলি আরও সাধারণ, পরিশীলিত এবং ক্ষতিকারক হয়ে উঠছে, সাইবার প্রতিরক্ষাকে ন্যাটোর জন্য একটি শীর্ষ অগ্রাধিকারে পরিণত হয়েছে।

প্রকৃতপক্ষে, ন্যাটো এখন সাইবারস্পেসকে একটি ‘অপারেশনাল ডোমেইন’ হিসাবে স্বীকৃতি দেয় – ঠিক যেমন স্থল, সমুদ্র বা বায়ু। 

NATO হুমকি সম্বন্ধে তথ্য আদান-প্রদান, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণে বিনিয়োগ এবং অনুশীলনের মাধ্যমে তাদের সাইবার প্রতিরক্ষা বাড়াতে মিত্রদের সাহায্য করে।

ন্যাটোর সাইবার প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞও রয়েছে, যারা আক্রমণের শিকার মিত্রদের সাহায্য করার জন্য পাঠায়। 

আরও পড়ুনঃ

বিটকয়েন কি

How to add bkash priyo number

CPA Marketing Bangla Meaning

ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি কি কি

ন্যাটো কি? What is NATO?

ন্যাটো হচ্ছে উত্তর আটলান্টিক নিরাপত্তা জোট। NATO Full form is North Atlantic Treaty Organization. এই সামরিক জোট ১৯৪৯ সালের ৪ এপ্রিল প্রতিষ্ঠিত একটি সামরিক সহযোগিতার জোট।

ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি?

বর্তমানে ন্যাটোর সদস্য দেশ ৩০ টি। একটি ইউরোপীয় এবং উত্তর আমেরিকার ২৯ টি দেশের একটি গ্রুপ হচ্ছে ন্যাটো।

ন্যাটো ভুক্ত দেশ কয়টি?

ন্যাটো ভুক্ত দেশ ৩০ টি। সর্বশেষ ন্যাটো ভুক্ত দেশ হিয়াবে ন্যাটোতে যুক্ত হয়েছে উত্তর মেসিডোনিয়া।

ন্যাটোর মুসলিম সদস্য দেশ কয়টি?

ন্যাটোর মুসলিম সদস্য দেশ ২ টি। মুসলিম ন্যাটোর সদস্য দেশ হচ্ছে আলবেনিয়া ও তুরস্ক।

কোনটি ন্যাটোর সর্বশেষ সদস্য রাষ্ট্র?

ন্যাটোর সর্বশেষ সদস্য রাষ্ট্র হচ্ছে উত্তর মেসিডোনিয়া।

ন্যাটো কোন ধরনের জোট?

ন্যাটো একটি সামরিক জোট।

শেষ কথা 

আশা করছি ন্যাটোর সদস্য দেশ কয়টি কি কি আরটিকেলটি শেষ পর্যন্ত পরেছেন। যদি পরে থাকেন তাহলে আপনার এই বিষয়ে আর কোনো প্রশ্ন থাকার কথা না। 

তারপরও যদি আপনার কোনো মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করবেন। 

অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম ও সব বিষয়ে নিত্য নতুন আর্টিকেল পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট।

চোখ রাখুন আমাদের ফেসবুক পেজে।

আরও পড়ুনঃ

বেতন মওকুফের জন্য আবেদন পত্র লেখার নিয়ম?

বেতন বৃদ্ধির জন্য আবেদন পত্র কিভাবে লিখতে হয়?

ইউটিউব ডাউনলোড করব কিভাবে?

পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব কত কিলোমিটার? 

জাতিসংঘের প্রথম মহাসচিব কে?

Leave a Comment

6 − three =