বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক কে?

বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক কে? আপনি কি জানেন। আজকে পোষ্টের মাধ্যমে আমরা জানবো বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক কে এবং সংবিধানের রক্ষক সম্পর্কিত সকল তথ্য।

বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার দেশ। বাংলাদেশ প্রায় সকল ক্ষেত্র বর্তমানে নানান ধরনের আইন দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। বাংলাদেশকে ডিজিটাল করতে বাংলাদেশ সরকার প্রদত্ত আইন গুলো কে সঠিকভাবে প্রয়োগ লক্ষ্যে স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা এবং সঠিক সংবিধানের বিকল্প কিছুই নেই।

সামাজিক এবং রাজনৈতিক দিক থেকে বাংলাদেশে বর্তমানে ধীরে ধীরে উন্নতি সাধন করছে।

বর্তমানে বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক কে

বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক হলো সুপ্রিম কোর্ট। বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট হলো বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত। বাংলাদেশের সংবিধান রয়েছে সংবিধানের ষষ্ঠ অধ্যায়ঃ সুপ্রিম কোর্ট প্রতিষ্ঠিত সম্পর্কে আইনি বিধান রয়েছে।

সংবিধান ধারা ১০০ অনুযায়ী বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরের রমনায় সুপ্রিমকোর্ট অবস্থিত রয়েছে।

বাংলাদেশের সচরাচর এটিকে হাইকোর্ট নামে সকলেই চিনে।

কারণ ১৯৭১ সালের পূর্বে এই ভবনের পূর্ব পাকিস্তানের উচ্চ আদালতের কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছিল।

আরও পড়ুনঃ

ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড | কিভাবে ছবি এডিট করতে হয়

রাউটারের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করার নিয়ম জানুন

ভারতে প্রথম মুদ্রা প্রবর্তন করেন কে?

সুপ্রিম কোর্টের কাঠামো | বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক কে

সুপ্রিম কোর্টের কাঠামো
সুপ্রিম কোর্টের কাঠামো

বাংলাদেশের যে সংবিধান প্রণীত হয়েছে সে সংবিধানের ষষ্ঠ অধ্যায়ের ৯৪ ধারায় সুপ্রিম কোর্ট প্রতিষ্ঠা আইন সম্পর্কে সর্বোচ্চ বিধান ব্যক্ত করা হয়েছে।

এ ধারার  একটি অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে যে, “বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট” নামক বাংলাদেশ একটি সর্বোচ্চ আদালত থাকবে এবং আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগ লইয়া তাহা গঠিত হইবে।

এ ধারার (১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে যে, প্রধান বিচারপতি এবং প্রত্যেক বিভাগে আসন গ্রহণের জন্য রাষ্ট্রপতি সংখ্যা বিচারক নিয়োগের প্রয়োজন বোধ করবেন সেইরূপ সংখ্যক অন্যান্য বিচারকরা সুপ্রিম কোর্ট গঠিত হইবে।

আরও বলা হয়, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি নামে অভিহিত হইবে।

এসকল বিষয় মানা এবং গুরুত্বারোপ করা অত্যন্ত জরুরি।

পরবর্তী অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে যে, প্রধান বিচারপতি এবং আপিল বিভাগে নিযুক্ত বিচারকগণ কেবল উক্ত বিভাগ এবং অন্যান্য বিচারক কেবল হাইকোর্ট বিভাগে আসন গ্রহণ করিবেন।

এবং চতুর্থ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে যে, সংবিধানের বিধানাবলী-সাপেক্ষে প্রধান বিচারপতি এবং অন্যান্য বিচারক বিচার কার্যক্রম পালনের দিক থেকে সম্পূর্ণ স্বাধীন থাকিবেন।

সংবিধানের ১০০বিধান অনুযায়ী বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরের সুপ্রিম কোর্ট স্থায়ী অবস্থান হবে এটি উল্লেখ রয়েছে।

তবে বিধান আছে যে রাস্ট্রপতির অনুমোদনক্রমে প্রধান বিচারপতির সময়ে সময়ে যে স্থান বা স্থানসমূহ নির্ধারণ করবেন সেই স্থানে হাইকোর্ট বিভাগের অধিবেশন অনুষ্ঠিত হতে পারে কিংবা পারবে।

সুপ্রিম কোর্টের এখতিয়ার

সংবিধানের বিধান অনুযায়ী বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের দুইটি ভাগ বা বিভাগ রয়েছে। সেগুলো হলোঃ আপিল বিভাগ এবং হাইকোর্ট বিভাগ।

সংবিধানের ১০১ ধারায় হাই কোর্টের এখতিয়ার বর্ণিত রয়েছে।

এছাড়াও ১০৩ দাঁড়ায় আপিল বিভাগের এখতিয়ার বর্ণিত আছে।

হাইকোর্ট বিভাগ নিম্ন আদালত এবং ট্রাইবুনাল থেকে আপিল শুনানি করে থাকে।

এছাড়াও বাংলাদেশের সংবিধানের ধারা ১০২ এর অধীনে রিট আবেদন এবং কোম্পানি এবং সেনাবিভাগ বিষয় হিসেবে নির্দিষ্ট সীমিত ক্ষেত্রে মূল এখতিয়ার আছে।

আপিল বিভাগের হাইকোর্ট বিভাগ থেকে আপিল শুনানির এখতিয়ার রয়েছে।

সুপ্রিম কোর্ট হল নির্বাহী শাখা হতে স্বাধীন এবং রাজনৈতিকভাবে বিতর্কিত ক্ষেত্রে সরকারের বিরুদ্ধে আদেশ প্রধান করতে পারে।

মূলত সুপ্রিমকোর্ট হলো সম্পূর্ণ স্বাধীন তারা চাইলে যে কারও বিরুদ্ধেই আদেশ প্রদান করতে পারে। 

সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ গঠন

প্রধান বিচারপতি চাইলে এক বা একাধিক বিচারকের সমন্বয়ে সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ গঠন করতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ

How to add bkash priyo number | বিকাশ প্রিয় নাম্বার সেট করার নিয়ম

প্রত্যাশিত আয় তত্ত্ব কে প্রবর্তন করেন । প্রত্যাশিত আয় তত্ত্ব কি

বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক কে FAQS

বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক কে?

সুপ্রিম কোর্ট হল বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক।

সুপ্রিম কোর্টকে বিচার বিভাগ করা হয়েছে কেন?

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টকে বিচার বিভাগ করা হয়েছে কারণ, ১৯৭১ সালের  পূর্বে এ ভবনের পূর্ব পাকিস্তানের উচ্চ আদালতের কার্যক্রম পরিচালিত হতো।

উপসংহার

আমাদের বাংলাদেশের সংবিধান সম্পর্কে অবগত হওয়া আমাদের অত্যন্ত জরুরী।

বাংলাদেশের সংবিধানের রক্ষক কে আশা করছি আমাদের এই আর্টিকেলটি পড়ার পর আপনারা সঠিক উত্তরটি পেয়ে গেছেন।

আপনাদের যদি এই সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন কিংবা মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন।

আমরা প্রতিদিনই নতুন নতুন বিষয়ক এবং শিক্ষামূলক আর্টিকেল আমাদের ওয়েবসাইটটিতে পাবলিস্ট করছি।

আপনারা চাইলে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন।

সেই সাথে আমাদের ওয়েবসাইট সম্পর্কিত সকল তথ্য পাওয়ার জন্য আমাদের  ফেসবুক পেজ টি ফলো করে রাখতে পারেন।

ধন্যবাদ

Leave a Comment

nine + 10 =