কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো | ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো এই সম্পর্কে এখন অনেকেই জানতে চান। বন্ধুরা আপনারা নিশ্চয়ই জানেন যে পৃথিবীর সেরা ভিডিও প্ল্যাটফরম হচ্ছে ইউটিউব। এখন অনেকেই একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে লক্ষ্য টাকা আয় করছেন। এখন আমাদের দেশেও অনেকে ইউটিউবিং করে টাকা আয় করছেন। 

যে কোন ভিডিও কারো সাথে শেয়ার করার জন্য ইউটিউব সেরা প্ল্যাটফরম। শুধু ইউটিউব থেকে টাকা আয় ছাড়ও আপনি আপনার জ্ঞান শেয়ার করতে পারেন বিশ্বব্যাপী।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো? 

আর ভিডিও চ্যানেল বললে ইউটিউব এখন পর্যন্ত বিশ্ব সেরা ভিডিও প্লাটফর্ম। ইউটিউব গুগলেরি একটি সার্ভিস বা সেবা।

এখন কোন বিষয় যদি লেখা না (text content) থেকে তবে গুগল তার ভিজিটরদের ইউটিউব ভিডিও দেখিয়ে থাকে।

তাই আপনি নিশ্চয়ই বুজতে পেরেছেন যে কেন ইউটিউব এত বেশি জনপ্রিয়। কেননা বর্তমানে মোবাইল দিয়ে কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলা যায় এবং এক কথায় বললে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা যায়।

তবে এখন আপনাকে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে হলে কি কি করতে হবে ভাবছেন।

বন্ধুরা ইউটিউব থকে টাকা আয় করতে হলে আপনাকে কিভাবে একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম জানতে হবে।

কেননা ইউটিউব এখন আর আগের মতো নেই, ইউটিউব এখন বেশি প্রতিযোগিতা রয়েছে ইউটিউবে যে কোন সময়ের তুলনায়।

এখন আপনি যদি ইউটিউবকে আপনার প্রপেশান হিসাবে নিতে তবে আপনাকে একটি প্রফেশনাল youtube চ্যানেল খুলতে হবে এবং এই সম্পর্কে জানা অত্যন্ত জরুরী।

Contents hide

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো ২০২২ – মোবাইল দিয়ে কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো
কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো

বন্ধুরা কিভাবে একটি youtube চ্যানেল খুলতে হয় তা অনেকেই জানেন। আমি মূলত আপনাকে এই পোস্টে কিভাবে প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল খুলবেন সেই বিষয়ে জানাবো।

এখান যে সকল নতুন ভাই ও বোনেরা মোবাইল দিয়ে কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো সার্চ করছেন তাদের জন্য সেরা একটি পোস্ট।

সেই সাথে একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল খুলার পূর্বে কোন কোন বিষয়ে লক্ষ্য রাখবেন সেই বিষয় গুলি সম্পর্কে বলবো।

ইউটিউব চ্যানেল খুলতে আপনার একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট থাকলেই আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারবেন।

বন্ধুরা নিশ্চয়ই বুজতে পেরেছেন ইউটিউব চ্যানেল খোলা কতটা সহজ। বন্ধুরা একটি বেক্তিগত ইউটিউব চ্যানেল ও একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেলের মধ্যে তেমন কোন পার্থক্য নেই। এক হিসাবে উভয় ইউটিউব চ্যানেল একই। 

Blog meaning in Bengali

আপনার যদি ইতিমধ্যে একটি জিমেইল ( Gmail) অ্যাকাউন্ট থাকে তবে আসুন জেনে নেওয়া যাক ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম।

একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে, নীচের দেওয়া ধাপগুলি অনুসরণ করুন।তবে তার পূর্বে জেনেনিন যে আপনি মোবাইল এবং কম্পিউটার উভয় ডিভাইজ ব্যাবহার করে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে পারেন।

মোবাইল দিয়ে কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো

মোবাইল দিয়ে কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো

আপনি মোবাইলে  থেকে Chrome Browser এ গিয়ে www.youtube.com লিখে সার্চ করুন এবং তারপর: ইউটিউব ওপেন হলে Right Hand Side এ ৩ টি ডট দেখতে পাবেন, এটিতে ক্লিক করে আপনাকে Desktop site ক্লিক করতে হবে এখন আপনি মোবাইল থেকে  Desktop মোডে যাবেন। ইউটিউব ডেস্কটপে যা থাকবে  আপনার মোবাইলে ও সেরকম দেখতে পাবেন। আর আপনি যদি PC থেকে খুলতে চান তবে ,আপনি 1 ধাপের নীচে দেওয়া সমস্ত ধাপ গুলি অনুসরণ করুন।

Step 1 : ইউটিউব চ্যানেল খোলার পদ্দতি 

প্রথমেই আপনার মোবাইল বা PC থেকে www.youtube.com সাইটে যান। 

Step 2 : Sign In

  1. পূর্বে থেকে আপনার জিমেইল লগইন করা থাকলে ঠিক আছে। অন্যথায় Sign In বাটনে Click করুন। 
  2. এখন আপনি যে Gmail ID দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল খুলতে চান তা দিয়ে Login করুন।

Step 3 : একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করুন 

এখন ব্রাউজারের ডানদিকে আপনার জিমেইল Profile Photo দেখতে পাবেন, এটিতে Click করুন। 

তারপর আপনার সামনে একটি লিস্ট মেনু ওপেন হবে, আপনি একটি চ্যানেল তৈরি করতে Create a channel বাটনে ক্লিক করুন।

  • এখন আপনার সামনে একটি নতুন উইন্ডো চলে আসবে, আপনাকে গেট স্টার্টে ক্লিক করতে হবে।

Step 4 : চ্যানেল নাম/ A Custom Name

এখন আপনি দুইটি SELECT অপশান দেখতে পাবেন, একটি হচ্ছে Use Your Name আর অন্যটি হচ্ছে Use A Custom Name. 
  • Use Your Name : আপনার জিমেইল আইডিতে দেয়া নাম আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে ব্যাবহার করতে পারনে। এই ক্ষেত্রে আপনি প্রথম SELECT বাটনে ট্যাব করুন।Use A Custom Name: আপনি যদি নিজের ইউটিউব চ্যানেল নাম দিতে চান তবে Use A Custom Name ডান দিকে থাকে, তাই ডান দিকের অপ শান SELECT করুন। 

Step 5 : কিভাবে একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল খুলবেন

বন্ধুরা কিভাবে একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল খুলতে আপনাকে একটি ভালো ও সুন্দর এবং আপনার বিষয়ের সাথে সামঞ্জস্য রেখে রাখতে হবে। কথা হচ্ছে আপনি ভিডিও দিবেন রান্না সম্পর্কে, আপনি যদি চ্যানেল নাম রাখেন টেকনোলজি সম্পর্কিত, তবে বিষয়টি বে মানান। তাই একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল খুলতে আপনি একটি প্রফেশনাল নাম নির্বাচন করুন। 

Step 6 : প্রোফাইল ছবি আপলোড করুন

আপনার youtube চ্যানেল প্রফেশনাল লুক দিতে ভালো মানের একটি profile picture upload দিন। 

এরপর আপনার টপিক অনুযায়ী youtube চ্যানেল DISCRIPTION লিখুন।কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো তা জানা হল, এখন চ্যানেলটিকে আরও প্রফেশনাল বানাতে ব্যানার তৈরি করন। 

ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম ২০২২

ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম
ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

বন্ধুরা আপনারা এতক্ষণে নিশ্চয়ই জেনে গেছেন কিভাবে একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হয়। 

প্রিয় পাঠক ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার নিয়ম খুবি সহজ কোন রকেট সাইন্স নয়।

তবে একটি ইউটিউব চ্যানেল কে গ্রো করা এবং ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করা, সেইসাথে ইউটিউব কে নিজের ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে চাইলে আপনাকে কিছু নিয়ম অনুসরণ করতে হবে।

কেননা লোকেরা আপনার ভিডিও কেন দেখবে, যেহেতু ইন্টারনেটে আরো অনেক ভালমানের ভিডিও রয়েছে।

তাই আপনাকে ভালো মানের ভিডিও তৈরি করতে হবে। সেই সাথে নিয়মিতভাবে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড ও পাবলিস্ট করতে হবে।

ইউজার এক্সপেরিয়েন্স ও কনটেন্ট এর মান ভালো হলে ইউটিউব অ্যালগরিদম আপনার ভিডিওকে আরো বেশি লোকের কাছে প্রচার করবে।

আপনি কোন ধরনের প্রমোশন ছাড়াই ইউটিউব থেকে প্রচুর পরিমাণ ভিউ পাবেন।

তবে অনেক নতুন ইউটিউবার রয়েছেন যারা ইউটিউব থেকে ভিউ নিয়ে খুব বেশি চিন্তিত হয়ে পড়েন এবং ভিডিওর কনটেন্ট এবং কোয়ালিটিতে ততো বেশি নজর দেন না।

আমি আপনাদের বলবো আপনারা সপ্তাহে দুটি ভিডিও আপলোড দিন এবং আপনার ভিডিও কোয়ালিটি ভালো রাখার চেষ্টা করুন। 

আপনি ভাল মানের কনটেন্ট সহ ভিডিও তৈরি করতে পারলে এক সময় আপনার ভিডিওতে ভিউ আসবে।

একজন জনপ্রিয় ভারতীয় ইউটিউবার এর ভাষ্যমতে তিনি এক বছরে 300 ভিডিও তৈরি করেছেন,কিন্তু তার তৈরি করা 300 ভিডিও পর্যন্ত তিনি ইউটিউব থেকে তেমন ভিউ পেতেন না।

তবে তিনি তার ইউটিউব ভিডিও তৈরি করে গেছেন এবং 301 নম্বর ভিডিওটি তার ভাইরাল হয়েছে এবং তার চ্যানেল এতটাই গ্রো হয়েছে যে পরবর্তীতে তাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

তাই আপনারা যারা ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে চান তাদের কাছে আমার অনুরোধ রইল ধৈর্য ধরে নিয়মিত ভাবে ভিডিও তৈরি করুন এবং ভালোমানের ভিডিও কনটেন্ট দিন।

নিয়মিতভাবে আপনার ইউটিউব চ্যানেলে ভালো মানের কনটেন্ট পাবলিস্ট করলে আপনার ইউটিউবে সাবস্ক্রাইবার বাড়বে এবং আপনি ধীরে ধীরে ভিউ পেতে থাকবেন।

তাই আমার মতে ২০২২ সালে ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম হচ্ছে একটি নির্দিষ্ট ক্যাটাগরিতে নিয়ম মেনে ভিডিও তৈরি করা ও ধৈর্য ধারণ করা।

আরও পড়ুনঃ

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো

অনলাইন থেকে আয় করার উপায়

বাংলালিংক নাম্বার চেক করার কোড 

ইউটিউব চ্যানেল ক্যাটাগরি নির্ধারণ

তবে মনে রাখবেন আপনার ইউটিউব ভিডিও তৈরির ক্যাটাগরি আপনাকে সহায়তা করে থাকে। 

আপনার যদি ফানি বা এন্টারটেইনমেন্ট ক্যাটাগরি হয় তবে আপনার এই ক্যাটাগরিতে ইউটিউব চ্যানেলে প্রথম থেকেই আপনি প্রচুর পরিমান সাবস্ক্রাইবার পাবেন এবং ভিউ পাবেন।

মনে রাখবেন টেক ইউটিউব চ্যানেল গুলোতেও প্রচুর পরিমাণে সাবস্ক্রাইবার এবং ভিউ পাওয়া যায়। 

যদি আপনি শিক্ষণীয় চ্যানেল তৈরি করেন, তবে আপনার ভিউ ও সাবস্ক্রাইবার পেতে কষ্ট হবে।

কিন্তু একবার আপনার চ্যানেলটি গ্রো হলে অন্যান্য যে কোন চ্যালেনে তুলনায় আপনার আয়ের সম্ভাবনা বেশি থাকে।

তাই শিক্ষাবিষয়ক ইউটিউব চ্যানেল গুলো গ্রো করতে সময় লাগে তাদের ধৈর্য ধারণ করতে হবে বেশি।

ইউটিউব চ্যানেলের সুন্দর নাম

ব্যক্তি থেকে শুরু করে প্রতিষ্ঠান, প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে বর্তমানে ইউটিউব চ্যানেলের সুন্দর একটি নাম আপনার ব্রান্ডিংয়ের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

শুধু ব্রান্ডিং নয় ক্যাটাগরি সাথে মিল রেখে ইউটিউব চ্যানেলের নাম রাখা অত্যন্ত জরুরী।

যেন লোকেরা ইউটিউব চ্যানেলটি ভিজিট করলে সহজেই বুঝতে পারে এই চ্যানেলে কি বিষয়ে ভিডিও দেওয়া হয়।

কেননা মিক্স ক্যাটাগরির ইউটিউব চ্যানেল গুলোতে ইউজার এক্সপেরিয়েন্স ভালো থাকে না তাই পরবর্তীতে আয়ের এর সম্ভাবনা কমে যায়।

তাই ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার সময় আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন-পরবর্তী ক্যাটাগরির অনুযায়ী একটি ভালো নাম নির্বাচন করুন। 

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো এই বিষয়ে জানার পর 

বন্ধুরা এখন একটি ইউটিউব চ্যানেল আপনার আগামি দিনকে আরও বেশি সুন্দর করতে পারে।

আপনি কি ইউটিউবকে নিজের ক্যারিয়ার হিসাবে দেখতে চান তবে আপনার পছন্দের বিষয়ে আজি কাজ শুরু করে দিন। 

কেননা আপনি না আপনার সেরাটা দিতে পারলে পেয়ে যাবেন অনেক কিছু যা আপনি কখনো কল্পনা করনি।

ইউটিউব এখন অনেক বেকার যুবকের ক্যারিয়ার গড়ে দিয়েছে। 

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করা যায়

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করা যায়
কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করা যায়

ঘরে বসে টাকা আয় করার একটি সহজ উপায় হচ্ছে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করা এবং নিয়মিত ইউটিউবে ভিডিও পাবলিস্ট করা।

তবে বর্তমানে অনেকেই কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করা যায় বিষয়ে জানতে চাচ্ছেন। 

  • গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করা যায়। 
  • এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করা যায়। 
  • পেইড প্রমোশন এর মাধ্যমে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করা যায়। 
  • চ্যানেল কোলাবরেশন এর মাধ্যমে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করা যায়।
  • ব্র্যান্ডিংয়ের মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করা যায়।

বর্তমানে বাংলাদেশের বেশিরভাগ ইউটিউব চ্যানেল গলি গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে টাকা আয় করে থাকে।  

তবে বাংলাদেশ এফিলিয়েট মারকেটিং মাধ্যমে বাংলাদেশের চ্যানেলগুলোতে এখনো ততটা আই এর সম্ভাবনা তৈরি হয়নি।

তবে আপনি যদি ইংলিশ চ্যানেল খুলতে পারেন তবে আপনার জন্য এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে ইউটিউব থেকে প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জেলা কোনটি

ফাইজার কোন দেশের টিকা, উপকারিতা ও অপকারিতা

স্পন্সর ভিডিও থেকে টাকা আয়

আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি যত বড় সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা নিয়ে গঠিত হবে আপনার প্রমোশনাল ভিডিও করার সম্ভাবনা তত বেশি পাবে এবং আপনি প্রমোশন থেকে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

এমন অনেক ইউটিউবার রয়েছেন যারা গুগল অ্যাডসেন্স থেকে দুই থেকে তিনগুণ বেশি টাকা আয় করেন পেইড প্রমোশন করার মাধ্যমে। 

এটাকে মূলত স্পন্সর ভিডিও বলা হয়ে থাকে। ইউটিউব চ্যানেলের মালিক তার তৈরি করা ভিডিওতে ৩০ সেকেন্ড থেকে 1 মিনিট সময় ভিডিওর  একটি অংশে স্পনসর করা কোম্পানির পণ্য বা সেবা সম্পর্কে আলোচনা করেন। 

এবং বিনিময়ে তাকে অর্থ প্রদান করা হবে। 

চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার যত বেশি এবং চ্যানেলে ভিউ পরিমাণ যত বেশি তার ওপর ভিত্তি করে টাকা চার্জ করা হয়ে থাকে স্পন্সর ভিডিওর জন্য।

নতুন ইউটিউবারদের ইউটিউব চ্যানেল বিষয়ে পরামর্শ

ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম কি? কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো?

বর্তমানে ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম হচ্ছে আপনার কাছে জিইমেইল আইডি থাকা, ব্যবহার করা জিমেইল আইডি দিয়ে ইউটিউবে লগইন করে মোবাইল ও কম্পিউটার থেকেই সহজে ইউটিউব চ্যানেল খোলা যায়।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করবেন?

আপনার মোবাইল নাম্বার দিয়ে আপনার ইমেইল আইডি ভেরিফাই করা থাকলে সহজেই আপনার ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করা সম্বভ। তথাপিও আপনি যদি ইউটিউব থেকে চ্যানেল ভেরিফাই করার মেইল পেয়ে থাকেন তবে আপনি তাদের ভোটার আইডি কার্ড স্ক্যান করে মেইল করলেই ভেরিফাই হয়ে যাবে। 

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায়?

ইতিমধ্যে এই পোস্টে আপনাদের ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায় সম্পর্কে জানানো হয়েছে। ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় গুলি হচ্ছে গুগল এডসেন্স, এফিলিয়েট মার্কেটিং, স্পন্সর পোস্ট ইত্যাদি।

আরও পড়ুনঃ 

অনলাইন থেকে আয় করার উপায়

ডিজিটাল মার্কেটিং কি?

SEO meaning Bangla

Hosting meaning in Bengali

ডোমেইন নেম কি?

উপসংহার

একটি কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো ! আশা করি আপনি বুজতে পেরেছেন।

কিভাবে একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল খুলবেন এবং মোবাইল দিয়ে কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো এই বিষয় গুলি সম্পর্কে আপনাদের জানানো হল। 

এখন ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করা সম্পর্কে আপনার আরও কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করুন।

আমি আপনার সাহায্য করার চেষ্টা করবো। ভালো থাকুন জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। 

Leave a Comment

10 + six =