সার্চ ইঞ্জিন কি? গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে | সেরা ১০টি সার্চ ইঞ্জিন

আপনি কি জানেন সার্চ ইঞ্জিন কি এবং কিভাবে কাজ করে? আমি আজকে এই পোস্টে আপনাকে বাংলা ভাষায় সার্চ ইঞ্জিন সম্পর্কে কিছু তথ্য দিতে যাচ্ছি। বর্তমান যুগ ও সামনের দিন গুলিতে ইন্টারনেটের এবং ইন্টারনেট তথ্য ছাড়া কিছুই নয়। যখনই আপনার মনে কোন প্রশ্ন আসে,বা অন্যকোন কারো মনে প্রশ্ন আসে  এই একবিংশ শতাব্দীতে, কোন মানুষ আশেপাশের মানুষ বা তাদের শিক্ষকদের জিজ্ঞাসা করে না। সে সরাসরি তার মোবাইল বের করে তার মনে যা প্রশ্ন আসে তা লিখে দেয় সার্চ ইঞ্জিনের কাছে। সার্চ ইঞ্জিনে তারা কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে উত্তর পেয়ে যায়।

যখনই কোনো প্রশ্ন নিয়ে বন্ধুদের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক হয় বা কথা কাটাকাটি হয়, তখন তার উত্তর খুঁজে ইন্টারনেটে।

আপনি গুগল, ইয়াহু, বিং-এর মতো যেকোনো সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করেন। কিন্তু যদি আমরা 1990 এর কথা বলি, তাহলে এমন কোন ধারণা ছিল না যেখানে আপনি কিছু অনুসন্ধান করেন এবং অবিলম্বে পেয়ে যান। সে যুগে ইন্টারনেট ছিল না।

চলুন আজ কথা বলি, মানুষের মনে হাজারো প্রশ্ন আসে এবং সবাই বলে যে আপনি ইন্টারনেটে সার্চ করলেই পেয়ে যাবেন।

তাই এখন তরুণ প্রজন্ম একে বলে গুগল কর বা গুগল সার্চ কর ভাই। এটি সেই সার্চ ইঞ্জিন যা আজ আমরা এই নিবন্ধে আমাদের পাঠকদের বলব।

আমরা এই নিবন্ধে Google, Yahoo এবং Bing সম্পর্কে তথ্য দেব, তাই চলুন শুরু করা যাক। 

সার্চ ইঞ্জিন কি? – What is Search Engine in Bangla 

সার্চ ইঞ্জিন কি? গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে | সেরা ১০টি সার্চ ইঞ্জিন
What is Search Engine in Bangla – সার্চ ইঞ্জিন কি

সার্চ ইঞ্জিন হচ্ছে একটি প্রোগ্রাম। অথবা, একটি সার্চ ইঞ্জিন হচ্ছে এমন একটি ওয়েব অনসন্ধান ইঞ্জিন বা সফট্‌ওয়্যার প্রোগ্রাম যা ইন্টারনেটের সীমাহীন ডাটাবেস থেকে ব্যবহারকারীর প্রশ্ন (একটি কীওয়ার্ড বলা হয়) অনুসন্ধান করে এবং অনুসন্ধানে পাওয়া তথ্য ফলাফল পৃষ্ঠায় সার্চকারীদের দেখায়। যেমন আমরা যখন কোন প্রশ্ন গুগল করে থাকি গুগল আমাদের প্রতিটি প্রশ্ন অনুসন্ধান করে ওয়েব থেকে সেরা কিছু ওয়েব পৃষ্ঠা আমাদের সামনে প্রদর্শন করে।

ইন্টারনেটে যে তথ্য সার্চ করা হোক না কেন, একটি সার্চ ইঞ্জিন কাজ করে সার্চকারীদের সঠিক ফলাফল দেখানোর।

ইন্টারনেটে চলমান কিছু জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিনের নাম “গুগল, ইয়াহু, বিং”। 

চলুন একটি উদাহরণ দিয়ে আপনাকে বিষয়টি ব্যাখ্যা করা যাক, যখনই আপনার মনে কোন প্রশ্ন আসে তখন আপনার আশেপাশে কাউকে জিজ্ঞাসা করার পূর্বে আপনি অবিলম্বে গুগলে অনুসন্ধান করছেন যা একটি সার্চ ইঞ্জিন। 

তাই আপনার মনে প্রশ্ন আসতেই পারে সার্চ ইঞ্জিন কি এবং এটি কিভাবে কাজ করে। 

প্রধান সার্চ ইঞ্জিনের নাম – সার্চ ইঞ্জিন লিস্ট 

Serial No:NameName In Bangla
1Googleগুগল
2Bingবিং
3Yahooইয়াহু
4Ask.com আস্ক ডট কম
5AOL.comঅল ডট কম
6Baiduবিদ্দু
7WolframalphaWolfram আলফা
8DuckDuckGoডাকডাকগো
9Internet Archiveইন্টারনেট আর্কাইভ
10Yandex.ruইয়ানডেক্স.ru
Search Engine list – বাংলায় সার্চ ইঞ্জিনের নাম

আড়ও পড়ুনঃ

বাংলা সার্চ ইঞ্জিনের নাম কি? কয়েকটি বাংলা সার্চ ইঞ্জিনের নাম

বাংলাদেশের কি কোন সার্চ ইঞ্জিন আছে? যেখানে নানা দেশে সার্চ ইঞ্জিন আছে সেখানে আমাদের দেশ পিছিয়ে কিভাবে থাকতে পারে।

হা আমাদের বাংলাদেশেরও সার্চ ইঞ্জিন আছে। বাংলা সার্চ ইঞ্জিনের একটি তালিকা তৈরি করেছি। এই সার্চ ইঞ্জিনে গুলি ততটা জনপ্রিয় নয়, কিন্তু তারা কিছু পরিমাণে ভাল কাজ করেছে।

বাংলা ৩ টি সার্চ ইঞ্জিনের নাম হচ্ছে –

  • https://www.pipilika.com
  • http://www.chorki.com
  • http://bdamar.com

সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে – How Search Engine Works in Bangla 

আপনাকে এই পোস্টে প্রথমেই বলা হয়েছে যে, আপনার ব্রাউজারের সার্চ ইঞ্জিন অনুসন্ধান বক্সে যে প্রশ্ন, টেক্সট, শব্দ লিখে আপনি সার্চ করে থাকেন, তাকে কীওয়ার্ড বলা হয়। আপনি যদি গুগলে বাংলায় লিখেন ” সার্চ ইঞ্জিন কী”, তবে এটি কীওয়ার্ড। এই কীওয়ার্ডটি ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবে মানে ইন্টারনেটে পাওয়া যাবে। যখন এই কীওয়ার্ডটি কোনো ওয়েবসাইটের শিরোনাম বা পোস্টের বিষয়বস্তুর সাথে মিলে যায় এবং ট্যাগের সাথে মিলে যায়, তখন এটি সার্চ ইঞ্জিন অনুসন্ধান ফলাফলে দেখায়। 

এটা ছিল সাধারণ মানুষের জন্য, একটু টেকনিক্যালি বুঝে নেওয়া যাক সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে। কেননা আমরা যারা গুগলে ব্লগ করে থাকি তাদের জন্য সার্চ ইঞ্জিন সম্পর্কে আরও ভালোভাবে জানা অনেক জরুরী। 

যে কোন সার্চ ইঞ্জিন তিনটি ধাপে কাজ করে। প্রথম ক্রলিং, ইন্ডেক্সিং, রেংকিং এবং পুনরুদ্ধার

আসুন এই তিনটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানি। 

What is Crawling – সার্চ ইঞ্জিন ক্রলিং কি? 

Crawling বা ক্রলিং করা মানে খুঁজে পাওয়া। আরো ভালোভাবে বলে একটি ওয়েবসাইটের সমস্ত তথ্য বা ডাটা অর্জন করতে একটি ওয়েবসাইটকে স্ক্যান করা।

সহজ ভাবে বললে একটি ওয়েবসাইটকে স্ক্যান করে ওয়েবসাইটের পেজের শিরোনাম মানে হেডিং কিওয়ার্ড সম্পর্কে তথ্য, কনটেন্ট বা লেখা, ছবিগুলোর কিওয়ার্ড, কোন পেজের সাথে লিংকিং করা আছে সমস্ত বিষয় গুলোর তথ্য সংরক্ষন করা।

তবে বর্তমান সময়ের আধুনিক ক্রলারগুলোতে ক্রলিং শেষে শেষ পর্যন্ত একটি ওয়েবসাইট পেজের সম্পূর্ণ ক্যাশে কপি তৈরি করতে পারে। এই ওয়েবসাইটে বৃদ্ধমান বর্তমান পেজের লেআউট, ওয়েবসাইট এর বিজ্ঞাপন কোন কোন অবস্থানে রয়েছে এবং কোন কোন পেজের সাথে লিঙ্ক করা সমস্ত বিষয়গুলো সংরক্ষণ করতে পারে।   

সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে ক্রল করে 

সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে ওয়েবসাইট ক্রল করে? একটি স্ব-চালিত বট রয়েছে যা প্রতিটি নতুন এবং পুরানো পৃষ্ঠা অনুসন্ধান করে যাকে ডিসকভারি বলা হয়।

বট গুলিকে মাকড়সাও বলা হয়, যা প্রতিদিন কোর পৃষ্ঠাগুলি পরিদর্শন করে। কিন্তু আমাদের মত না সার্চ ইঞ্জিনের কলার গুলো খুব দ্রুত কাজ করতে পারে। 

গুগলের মতে স্ব-চালিত বট, এটি প্রায় 1 সেকেন্ডে 100 থেকে 1000 পৃষ্ঠা পরিদর্শন করে।

যখন বট একটি নতুন পৃষ্ঠা পায়, তারা এটিকে ব্যাক-এন্ড প্রক্রিয়াকরণের জন্য পাঠায় (পৃষ্ঠার শিরোনাম, মেটা ট্যাগ, কীওয়ার্ড, ব্যাকলিংক, ছবি, ভিডিও)।

এবং তারপর পৃষ্ঠাটি একটি পূর্বের ক্রল করা কোন পৃষ্ঠার সাথে লিঙ্ক করা হয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করে। 

সার্চ ইঞ্জিন ক্রলার যখনই একটি নতুন যখন একটি নতুন পৃষ্ঠা পাওয়া যায়, তখন একই প্রক্রিয়া পুনরাবৃত্তি হয়। 

সার্চ ইঞ্জিন ফলাফল প্রদর্শনের জন্য ক্রলিং+ব্যাকএন্ড প্রসেসিং+ইনডেক্সিং কাজগুলো রেগুলার করে থাকে।

মূলত পেজ ইন্ডেক্সিং হয়, এটি ছাড়া গুগল সহ সকল সার্চ ইঞ্জিন কখনই সঠিক অনুসন্ধান ফলাফল দেখাতে পারে না।

Search Engine Indexing – ইনডেক্সিং 

সার্চ ইঞ্জিনের ইনডেক্সিং সম্পর্কে বোঝার জন্য আপনি খুব বেশি মাথার বুদ্ধি খরচ করবেন না। ইনডেক্সিং সম্পর্কে বুঝা খুবই সহজ। 

ইনডেক্সিং হল এমন একটি প্রক্রিয়া যেখানে সার্চ ইঞ্জিনের স্ব-চালিত বট ক্রল করার সময় যা কিছু ডেটা পাওয়া যায়, সেই সমস্ত ডেটা ডাটাবেসে রাখতে হবে। 

একটি উদাহরণ ধরুন, আপনার ওয়েবসাইটে ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম বিষয়ে একটি ব্লগ আছে।

এখন ক্রলার লেখকের নাম, ওয়েব ঠিকানার নাম, সেই ব্লগ বা ওয়েবসাইটে প্রতিটি পৃষ্ঠা পড়তে ক্রলিং করছে, এবং এই সমস্ত বিবরণের তালিকাটি সূচীকরণ করছে। এখন এই বিষয়টি বিবেচনা করুন, সার্চ ইঞ্জিন শুধুমাত্র একটি ওয়েবসাইট ক্রল করে না, এটি বিশ্বের সমস্ত ওয়েবসাইটকে ক্রল করে এবং সূচী করে।

গুগল সার্চ সম্মেলন অনুসারে, গুগল স্পাইডার প্রতিদিন ৩ ট্রিলিয়ন পেজ ক্রল করে। এর মানে হল যে Google এর কাছে বিশ্বের সমস্ত তথ্যের একটি লাইব্রেরি রয়েছে।

গুগল সার্চ ইঞ্জিন হল ডেটার একটি বিশাল সার্ভার। যেখানে হাজার হাজার, লক্ষ লক্ষ পেটাবাইট ড্রাইভে ডেটা জমা থাকে বা সংরক্ষণ হয়ে থাকে।

Search Engine Ranking and Retrieval – সার্চ ইঞ্জিন রেংকিং এবং পুনরুদ্ধার

যেকোনো সার্চ ইঞ্জিনের শেষ ধাপ এটি,  তবে এই শেষ ধাপটি অনেক বেশি জটিল এবং গুরুত্বপূর্ণ। 

কারণ আপনি যখন গুগলে কোন বিষয়বস্তু সম্পর্কে সার্চ করেন,  তখন সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম কাজ হলো আপনি যে তথ্যটি সার্চ করেছেন ওই বিষয়ের সঠিক তথ্য সম্পর্কে আপনাকে জানানো। 

একটি সার্চ ইঞ্জিনকে লোকেরা তখনই বিশ্বাস করবে যখন ব্যবহারকারীরা তার  সার্চ করা প্রাসঙ্গিক বিষয়বস্তু  সম্পর্কে তথ্য খুঁজে পায় বা সার্চ ইঞ্জিন তাকে দেখায়। 

এর জন্য গুগোল সহ অন্যান্য সকল সার্চ ইঞ্জিনের কিছু অ্যালগরিদম কাজ করে।কোন অ্যালগরিদম নির্দিষ্ট প্যারামিটার অনুযায়ী কাজ করে থাকে। 

যার মধ্যে কিছু প্রধান বিষয়বস্তু হচ্ছে কীওয়ার্ড সার্চকারীর বয়স, বিষয়বস্তু এবং বিষয়বস্তুর শিরোনাম। 

বিশ্বের এক নম্বর সার্চ ইঞ্জিন গুগল এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে একটি ওয়েব পৃষ্ঠা বা আমাদের লেখা কোনো পোস্টকে রেংকিং দেওয়ার জন্য গুগলের ২০০ টি ফ্যাক্টর রয়েছে।

এই ফ্যাক্টরগুলোর মাধ্যমে নির্বাচন করা হয় গ্রাহকের সার্চ করা কি ওয়ার্ডের ফলাফল টি গুগলের হোমপেজের কোন অবস্থানে প্রদর্শিত হবে। 

কারণ আপনি যে পোস্টটি লিখেছেন এমন আরো 200 থেকে 400 লোক একই বিষয়ের উপর একটি পোস্ট লিখেছে।

এছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ের উপর এক বিলিয়ন ওয়েবপেজ রয়েছে যে বিষয়গুলো থেকে নির্বাচনের মাধ্যমে গুগোল প্রথম পেজে ফলাফল প্রদর্শন করে ইউজারদের। 

প্রথম র‍্যাঙ্কিং অনুমান করা হয়েছিল, পোস্টে কতবার কীওয়ার্ড ব্যবহার করা হয়েছে এবং কতগুলি ব্যাকলিংক রয়েছে, রিলেটেড কিওয়ার্ড কি কি কতটি ইমেজ ব্যবহার করা হয়েছে, সকল প্যারামিটার ভিত্তিতে সবচেয়ে সহজে সাইটটি র‌্যাঙ্ক করা হয়েছিল। 

এখন কয়েক বছর ধরে, গুগল রেংকিং ফ্যাক্টরগুলোকে গেজ করা খুবই কঠিন হয়ে পড়েছে। প্রতি বছর গুগল তার অ্যালগরিদম পরিবর্তন করছে। কারণ গুগল সেই সাইটগুলিকে প্রথমে আসার সুযোগ দেয় যেগুলি সত্যিই কঠোর পরিশ্রম করছে।

এই তিনটি ধাপে সার্চ ইঞ্জিন এভাবেই কাজ করে থাকে এবং সার্চ কারীদের সঠিক ফলাফল দেওয়ার চেষ্টা করে। 

সার্চ ইঞ্জিনের ইতিহাস – সার্চ ইঞ্জিন কবে আবিস্কার হয়? – History of Search Engine in Bangla 

সমস্ত সার্চ ইঞ্জিনের কাজ একই ছিল ইন্টারনেটে তথ্য অনুসন্ধান এবং প্রদর্শন করা। প্রথম দিকে, সার্চ ইঞ্জিন ফাইল ট্রান্সফার প্রোটোকলের সংগ্রহসালা ছাড়া কিছুই ছিল না। একে অপরের সাথে সংযুক্ত সমস্ত সার্ভার থেকে ডেটা খুঁজে পেতে হয়েছিল। তখন ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবই ছিল (www.) ইন্টারনেটের সাথে সংযোগ করার একমাত্র উপায়। সার্চ ইঞ্জিন তৈরি করা হয়েছিল কারণ এটি ওয়েব সার্ভার এবং ফাইল সনাক্ত করা এত সহজ ছিল না।

প্রথম সার্চ ইঞ্জিন টি ছিল একটি স্কুলের একটি প্রকল্প, যার তৈরি কারীর নাম ছিল অ্যালান এমটাজ। 1990 সালে, তিনি ম্যাকগিল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন।

আরও পড়ুনঃ 

সিম কার নামে নিবন্ধন করা কিভাবে জানবো

ইন্টারনেট কি? ইন্টারনেট কাকে বলে | What is Internet In Bangla

How To Change Bkash Pin? বিকাশ পিন রিসেট করার নিয়ম

বিকাশ থেকে লোন নেওয়ার উপায় | জামানত ছাড়া সিটি ব্যাংক ও বিকাশ ঋণ

Happy Valentines Day SMS Bangla 2022 | বিশ্ব ভালবাসা দিবসের শুভেচ্ছা

সার্চ ইঞ্জিন কি?

সহজ ভাষায় বললে সার্চ ইঞ্জিন হচ্ছে একটি সফটওয়্যার, যা ব্যবহার করে লোকেরা অনলাইনে তার পছন্দের কিওয়ার্ড সম্পর্কে সার্চ করে থাকে।  এবং সার্চ ইঞ্জিনের কাজ হচ্ছে সঠিক তথ্য উপস্থাপন করা ব্যবহারকারীর সার্চ করা কি ওয়ার্ড এর উপর ভিত্তি করে।

সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে?

একটি সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহারকারীর সার্চ করা কিওয়ার্ড এর উপর ভিত্তি করে ব্যবহারকারীকে ফলাফল প্রদর্শন করে থাকে। তবে ফলাফল প্রদর্শনের পূর্বে সার্চ ইঞ্জিনের বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে ক্রলিং ও ইন্ডেক্স করে তথ্যগুলোকে সংরক্ষণ করা থাকে এবং ওই সংরক্ষিত তথ্যগুলোকে লিস্ট আকারে ইউজারদের সামনে প্রদর্শন করে সার্চ ইঞ্জিন।

গুগল সার্চ ইঞ্জিন কি?

গুগল সার্চ ইঞ্জিন হাঁটছে গুগোল দ্বারা পরিচালিত একটি সার্চ ইঞ্জিন। বর্তমানে বিশ্বের এক নম্বর সার্চ ইঞ্জিন হচ্ছে গুগল সার্চ ইঞ্জিন, যেখানে লোকেরা সহজে এবং সঠিক তথ্যটি পেতে পারেন।

পিপীলিকা সার্চ ইঞ্জিন কি?

পিপীলিকা সার্চ ইঞ্জিন হচ্ছে বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য বাংলায় তথ্য খোঁজার একটি সার্চ ইঞ্জি।

আজ আমরা কি শিখলাম

পোস্টের এই পর্যায়ে এসে আমরা বলতে পারি আমরা জানতে ও শিখতে পেরেছি সার্চ ইঞ্জিন কি? গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে। 

যাইহোক, আমার মতামত হল বর্তমানে বিশ্বের সেরা সার্চ ইঞ্জিন হল গুগল। এই মুহূর্তে ইমেজ সার্চ, ভয়েস সার্চ, স্পিচ, গুগল সহকারীর মতো সব আধুনিক প্রযুক্তিই গুগলের প্রযুক্তি যা বেওবহার করে গুগল লোকেদের ইন্টারনেট ব্যাবহারে আরও বেশি উৎসাহিত করছে।

এর সঙ্গে প্রতি বছরই গুগলের সার্চ অ্যালগরিদম আরও ভালো হচ্ছে এবং ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন নতুন ফিচার উন্মুক্ত করছে।

আশা করি সার্চ ইঞ্জিন কী এ সম্পর্কে আমরা জানতে পেরেছি এবং এটি কীভাবে কাজ করে, সে সম্পর্কে তথ্য অবশ্যই পরিপূর্ণ ছিল।

সার্চ ইঞ্জিন সম্পর্কে আরো জানতে এবং গুগল সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে এই বিষয়ে আপনার বুঝতে কোন সমস্যা হলে আমাদের কমেন্ট করে জানান।

সেইসাথে সার্চ ইঞ্জিন কি পোস্টটি আপনার বন্ধু বান্ধবদের সাথে শেয়ার করুন যারা তাদের তাতে জানতে পারে কিভাবে একটি সার্চ ইঞ্জিন কাজ করে এবং সহজে তথ্য খোঁজার জন্য কি কি ব্যবহার করা হয়ে থাকে এই বিষয়ে পুনরায় আরো একটি পোস্ট নিয়ে আসবো আশা করি পোস্টটি আপনাদের ভালো লেগেছে।

অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম, মোবাইল ব্যাংকিং, সেরা সকল টেলিকম অফার সহ অন্যান্য চমৎকার বিষয় গুলো বাংলায় জানতে রেগুলার ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট। 

এবং জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।  

Leave a Comment

4 × 3 =