হিমোগ্লোবিন বাড়ে কোন খাবারে | রক্তে হিমোগ্লোবিন কম হওয়ার কারণ

সুপ্রিয় পাঠকবৃন্দ হিমোগ্লোবিন বাড়ে কোন খাবারে এ সম্পর্কে জানার জন্য আপনারা অনেকেই গুগলের মাধ্যমে নিজেদের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। মানুষের রক্তের অন্যতম একটি উপাদান হচ্ছে লোহিত রক্তকণিকা।

এই পরিণত লোহিত রক্ত কণিকার মধ্যে থাকে এক ধরনের প্রোটিন যা অক্সিজেন এর সঙ্গে সংযুক্ত হয়। আর এই প্রোটিন কে বলা হয়ে থাকে হিমোগ্লোবিন

একই সঙ্গে এটি দেহের বিভিন্ন অঙ্গের কোষ থেকে কার্বন ডাই অক্সাইড বের করে নিয়ে আসে।

এরপর আপনার ফুসফুস পর্যন্ত এটি পৌঁছে দেয় বিষাক্ত গ্যাস কে দেহের বাইরে বের করার জন্য।

সুতরাং এক কথায় বলতে গেলে, আপনার স্বাস্থ্যকর জীবন যাত্রা করার জন্য শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণে হিমোগ্লোবিন অবশ্যই থাকতে হবে।

মূলত হিমোগ্লোবিনের মধ্যে দুটি অংশে রয়েছে। এর মধ্যে একটি হচ্ছে হিম এবং অন্যটি হচ্ছে গ্লোবিন। রক্তের হিম অংশের মধ্যে উপস্থিত থাকে আয়রন। তাই হিমোগ্লোবিনের গঠনে আয়রনের ভূমিকা অপরিহার্য।

রক্তে হিমোগ্লোবিন কম থাকার অর্থ কি?

রক্তে হিমোগ্লোবিন কম হওয়ার কারণ
রক্তে হিমোগ্লোবিন কম হওয়ার কারণ

যদি সরাসরি বলা হয় তাহলে এককথায় রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কম থাকলে দেহের বিভিন্ন অঙ্গের মাঝে অক্সিজেন কম পৌঁছায়।

তাই রক্তে হিমোগ্লোবিন কম থাকার অর্থ হচ্ছে আপনার শরীরে নানা রোগের সৃষ্টি হওয়া।

রক্তে হিমোগ্লোবিনের অভাবে কি রোগ হয়?

মানুষের শরীরে রক্তে হিমোগ্লোবিন কম থাকার কারণে মানব শরীরে দুর্বলতা দেখা দিতে পারে, হতে পারে অতিরিক্ত মাথা ব্যথা, শ্বাসকষ্ট, হার্টের দ্রুত স্পন্দন, ফ্যাকাসে চামড়ার মত উৎসর্গ ইত্যাদি।

রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা হ্রাস পাওয়ার সমস্যাকে বলা হয়ে থাকে অ্যানিমিয়া বা রক্তস্বল্পতা।

আমরা উপরে যে সকল উপসর্গগুলো বলেছি সেগুলো যদি আপনার শরীরে একটি অথবা দুইটি দেখা দেয় তাহলে আপনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন।

মূলত আপনার সিবিসি’ বা ‘টোটাল ব্লাড কাউন্ট’ পরীক্ষাটি করানো হলেই আপনার রক্তের হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বোঝা সম্ভব।

ভারতে অ্যানিমিয়ার সমস্যায় ভোগা মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি। বিশেষ এদেশে ঘরে ঘরে মহিলাদের মধ্যে রক্তাল্পতার অসুখ দেখা যায়।

Also Read:

বিজিবি সাধারণ জ্ঞান

মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান

দৈনিক প্রথম আলো প্রতিষ্ঠাকাল কবে?

রক্তে হিমোগ্লোবিনের স্বাভাবিক মাত্রা কত?

রক্তে হিমোগ্লোবিনের স্বাভাবিক মাত্রা কত
রক্তে হিমোগ্লোবিনের স্বাভাবিক মাত্রা কত

পুরুষের ক্ষেত্রে একজন প্রাপ্তবয়স্কের প্রতি ডেসিলিটারে রক্তে হিমোগ্লোবিনের স্বাভাবিক মাত্রা হচ্ছে ১৪ থেকে ১৮ গ্রাম।

এবং একজন প্রাপ্তবয়স্ক মহিলার ক্ষেত্রে প্রতি ডেসিলিটার রক্তে হিমোগ্লোবিনের স্বাভাবিক মাত্রা হচ্ছে ১২ থেকে ১৬ গ্রাম।

আপনার রক্তের এই মাত্রা থেকে যদি হিমোগ্লোবিন কম থাকে তাহলে এর অর্থ দাঁড়ায় আপনি রক্তসল্পতায় ভুগছেন। 

আপনারা জানলে অবাক হবেন, খাদ্যাভাসের সামান্য কিছু পরিবর্তন করেই আপনি রক্তের হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে পারেন। 

এখন আপনাদের মাঝে অনেকে প্রশ্ন জাগতে পারে আমরা কি ধরনের খাবার বা কোন কোন খাবার খেয়ে রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে পারি।

রক্তে হিমোগ্লোবিন কমে যাওয়ার কারণ কি?

নিয়মিত নির্দিষ্ট পরিমাণে সুষম খাবার গ্রহণ না করলে রক্তে হিমোগ্লোবিন কমে যায়। তাই রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ ঠিক রাখতে আপনাকে নিয়মিত খাবার তালিকায় সুষম খাবার অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।

হিমোগ্লোবিন বাড়ানোর উপায় – হিমোগ্লোবিন বাড়ে কোন খাবারে

আপনার খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তন করে আপনি সহজেই আপনার রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে পারেন। রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ বৃদ্ধি করার জন্য বেশি বেশি সুষম খাবার গ্রহণ করুন। 

এছাড়াও আপনি হিমোগ্লোবিন বাড়ানোর উপায় সম্পর্কে সঠিক ধারণা পেতে অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিন। 

আমরা এখানে কিছু সুষম খাবারের তালিকা উল্লেখ করলাম যে খাবারগুলো  তালিকা উল্লেখ করলাম যে খাবারগুলো নিয়মিত গ্রহণে আপনার রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ বাড়বে।

বীটরুট 

বিটরুট সম্পর্কে আমাদের কম বেশী সকলেরই জানা আছে। বিটরুট এর মাঝে প্রাকৃতিকভাবেই প্রচুর পরিমাণে লোহা হয়েছে।

এছাড়াও বিটরুটের মধ্যে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম, তামা, ফসফরাস, ভিটামিন বি১,  বি২, বি৬, বি১২ এবং ভিটামিন সি। এই ধরনের সবজিতে পূর্ণ রয়েছে খনিজ সম্পদ ও ভিটামিন দ্বারা।

ফলে নিয়মিত এই সবজি গুলি খেলে রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। একইসঙ্গে রক্তে লোহিত রক্তকণিকার সংখ্যাতেও উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হয়।

সজিনা পাতা 

আমাদের নিত্য প্রয়োজনীয় খাবারের মধ্যে আরও একটি অন্যতম খাবার হচ্ছে সজিনা পাতা।

সজিনা পাতার মধ্যে প্রচুর পরিমাণে জিংক, লোহা, তামা, ম্যাগনেসিয়াম এর মতো খনিজসহ ভিটামিন এ, বি,সি দ্বারা পরিপূর্ণ।

সজিনা পাতা যদি আপনি নিয়মিত ভাতের সঙ্গে খেতে পারেন তাহলে আপনার রক্তশূন্যতার সমস্যা থাকবে না। 

প্রিয় পাঠক সজিনা পাতা নিয়মিত খেলে আপনার শরীরের মধ্যে প্রচুর পরিমাণ হিমোগ্লোবিনের সৃষ্টি হবে।

Also Read:

ইন্টারনেট কে আবিষ্কার করেন?

আজকের খেলার সময় সূচি প্রথম আলো

লাহোর প্রস্তাবের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় কি ছিল?

সবুজ শাকসবজি 

আমরা সকলেই জানি যে, সবুজ শাকসবজির মাঝে কত গুণ রয়েছে। সবুজ শাকসবজি গুলো আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী এবং আমরা প্রতিনিয়ত এগুলো সাথে পরিচিত।

পালং, সরিষে, ব্রকোলির মতো শাকসবজি আয়রনে পরিপূর্ণ। এছাড়াও ভিটামিন বি১২, ফলিক এসিড রয়েছে এগুলোর মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে।

আপনি যদি হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে চান তাহলে অবশ্যই নিয়মিত খাবারের সাথে এগুলো খেতে পারেন।

ব্রকোলির কথা একটু আলাদা করে বলতে হয়। কারণের মধ্যে রয়েছে আয়রন এবং বি কমপ্লেক্স ভিটামিন, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ফলিক অ্যাসিড, ম্যাগনেসিয়াম।

এছাড়াও আপনারা সবসময় মনে রাখবেন যে, সবুজ শাক সবজির মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে যেগুলো আপনাদের হজম শক্তি বাড়াবে।

ক্যালোরি কম থাকায় বেশি মাত্রায় খেলেও ওজন বাড়ে না। সবচাইতে বড় কথা, ডায়াবেটিকরা নিশ্চিন্তে শাকসব্জি খেতে পারেন।

হিমোগ্লোবিন বাড়ে কোন খাবারে জানুন

আপনার শরীরে হিমোগ্লোবিন বৃদ্ধি করতে খেজুর, কিসমিস, ডুমুর, খেজুর ও কিসমিস একত্রে আয়রন ও ভিটামিন সি এর উপযুক্ত উৎস।

ডুমুরের মধ্যে রয়েছে যথেষ্ট পরিমাণে আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, ভিটামিন এ এবং ফোলেট।

আপনি যদি প্রতিদিন সকালে তিনটি করে খেজুর, একমুঠো কিসমিস এবং শুকনো ডুমুর একসাথে মিশিয়ে খান তাহলে আপনার রক্তস্বল্পতা সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

এছাড়াও আপনার শরীরে প্রচুর পরিমাণে এনার্জি পাবেন। তবে এক্ষেত্রে সতর্কতা হচ্ছে ডায়াবেটিসের রোগীরা চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া এই সমস্ত খাবার খাবেন না।

এছাড়াও আপনারা ভালো ভালো ভিটামিনযুক্ত খাবার খেতে পারেন যেগুলোর মাধ্যমে আপনাদের শরীরে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বৃদ্ধি পাবে।

মূলত রক্তস্বল্পতার কারণে প্রতিদিন নানা ধরনের রোগে আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ।

শরীর দুর্বল হতে শুরু করে নানান ধরনের অস্বস্তির মধ্যে দিয়ে মানুষের জনজীবন হয়ে উঠছে বিব্রতকর।

আপনাদের যদি কোন রক্তস্বল্পতা জনিত কোন সমস্যা থাকে তাহলে অবশ্যই এই সকল খাবারগুলো খাবেন।

আরও পড়ুনঃ

১৬ ডিসেম্বর ২০২২ কততম বিজয় দিবস?

ডায়াবেটিস চিরতরে নিরাময় হবে কিভাবে?

মাথা ব্যাথা কোন রোগের লক্ষণ | নিয়মিত মাথা ব্যাথা হলে করনীয় কি

হিমোগ্লোবিন বাড়ে কোন খাবারে FAQS

হিমোগ্লোবিন বাড়ে কোন খাবারে?

নিয়মিত হিমোগ্লোবিন বাড়ে কোন খাবারে এই সম্পর্কে এই পোস্টে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করা হল।

রক্তে হিমোগ্লোবিনের স্বাভাবিক মাত্রা কত?

মনে রখাবেন রক্তে হিমোগ্লোবিনের স্বাভাবিক মাত্রা শিশু, নারী ও পুরুষের ক্ষেত্রে ভিন্ন ভিন্ন। তবে প্রতি ডেসিলিটার রক্তে হিমোগ্লোবিনের স্বাভাবিক মাত্রা পুরুষের ক্ষেত্রে হচ্ছে ১৪ থেকে ১৮ গ্রাম এবং নারীদের ক্ষেত্রে হচ্ছে ১২ থেকে ১৬ গ্রাম।

রক্তে হিমোগ্লোবিন কমে গেলে কি সমস্যা হয়?

বিশেষ করে রক্তে হিমোগ্লোবিন কম থাকার কারণে মানব শরীরে দুর্বলতা দেখা দিতে পারে, হতে পারে অতিরিক্ত মাথা ব্যথা, শ্বাসকষ্ট, হার্টের দ্রুত স্পন্দন, ফ্যাকাসে চামড়ার মত উৎসর্গ ইত্যাদি।

উপসংহার 

প্রিয় পাঠকগণ আজকের এই আর্টিকেলের হিমোগ্লোবিন বাড়ে কোন খাবারে সম্পর্কে আপনাদেরকে বিশেষভাবে জানানো হয়েছে।

আমরা আশা করছি যে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভাল লেগেছে এবং আপনার আজকের এই আর্টিকেল থেকে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন।

আপনাদের যদি এই বিষয়ে আরো কোনো প্রশ্ন অথবা মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানান।

টেলিকম অফার, ইন্টারনেট অফার, ঘরে বসে টাকা আয়, ব্লগিং টিপস সহ নানান ধরনের আর্টিকেল গুলো পড়তে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে অনলাইন ভিত্তিক কাজগুলোর গাইডলাইন সহকারে আর্টিকেল পেয়ে যাবেন।

তাই অবশ্যই ভিজিট করেন আমাদের ওয়েবসাইট এবং আমাদের পাশেই থাকুন ফেইসবুক পেজে জয়েন করে।

আরও পড়ুনঃ

আলহামদুলিল্লাহ অর্থ কি? | আলহামদুলিল্লাহ কোথায় ব্যবহার করা হয়

মাশাআল্লাহ অর্থ কি? | কোথায় মাশাআল্লাহ ব্যবহার করতে হয়

ভোটার হালনাগাদ কবে হবে ২০২২ | নুতন ভোটার আইডি কার্ড তৈরি

Leave a Comment

fourteen − 3 =